kalerkantho

ভাটারায় ৩০ হাজার লিটার চোলাই মদসহ গ্রেপ্তার ১৪

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সারা দেশে ১৫ দিনব্যাপী মাদকবিরোধী ক্রাশ প্রগ্রাম শুরু করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর (ডিএনসি)। প্রথম দিনে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর ভাটারা থানার জগন্নাথপুরে অন্তত ৩০টি ঘরে একযোগে অভিযান চলে। অভিযানে ৩০ হাজার লিটার চোলাই মদসহ ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ডিএনসির ঢাকা বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক ফজলুর রহমান জানান, জগন্নাথপুরের ক/২৮/এ/৭ নম্বর বাড়িসহ পাশের আরো দুটি বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ চোলাই মদ ও মদ তৈরির উপকরণ জব্দ করা হয়েছে। এ সময় মদ উৎপাদন ও সংরক্ষণের দায়ে ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। যে পরিমাণ কাঁচামাল উদ্ধার করা হয়েছে তা দিয়ে হাজার হাজার লিটার চোলাই মদ তৈরি করা যেত। জব্দ হওয়া মদ ঘটনাস্থলেই কেরোসিন দিয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। মাদক আইনে ভাটারা থানায় মামলা করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, অভিযান চালানো তিনটি বাড়িতে অন্তত ৩০টি ছোট ঘর রয়েছে। এসব ঘর চোলাই মদের কারখানা। পচা ভাতের সঙ্গে কেমিক্যাল মিশিয়ে এই মদ তৈরি করা হয়। প্লাস্টিকের ড্রামে মদ রাখা হতো। গ্লাসে করে ক্রেতাদের কাছে এই মদ বিক্রি করা হতো। মদ বিক্রি ছাড়াও চিহ্নিত মাদক কারবারিরা জগন্নাথপুরের এসব বাড়িতে আশ্রয় নিত।

ডিএনসির কর্মকর্তারা জানান, সারা দেশে ডিএনসির তত্ত্বাবধানে ১৫ দিনব্যাপী বিশেষ অভিযান চলবে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তায় এসব অভিযানে চিহ্নিত ও তালিকাভুক্ত মাদক কারবারিদের ধরা হবে। ক্রাশ প্রগ্রামের আওতায় সারা দেশে অন্তত তিন হাজার মাদক স্পটে অভিযান পরিচালিত হবে।

 

মন্তব্য