kalerkantho

নবজাতকের জীবন সুরক্ষা

আরো পাঁচ বছরের নতুন কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাঠপর্যায়ে নবজাতকের জীবন সুরক্ষায় জন্মের পর শ্বাস নিতে সহায়তার জন্য হেল্পিং বেবিজ ব্রিদ (এইচবিবি), নবজাতকের নাভির যত্নে নাড়িতে ক্লোরহেক্সিডিনের ব্যবহার, সংক্রমণ রোধ, ক্যাঙ্গারু মাদার কার্যক্রম অনেক ইতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মা-নবজাতক ও শিশু স্বাস্থ্যব্যবস্থা এবং পরিবার পরিকল্পনা শক্তিশালীকরণ কার্যক্রমের ওপর এক সভায় এ তথ্য তুলে ধরা হয়।

সভায় গত পাঁচ বছরে ওই কার্যক্রম পর্যালোচনা এবং নতুন পাঁচ বছর মেয়াদি ইউএসএআইডির মামণি-মা ও নবজাতকের সেবা শক্তিশালীকরণ প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থার (ইউএসএআইডি) মামণি-হেলথ সিস্টেমস স্ট্রেংদেনিং প্রকল্পটি বাংলাদেশের ছয়টি জেলায় বাস্তবায়ন করেছে। জেলাগুলো হলো হবিগঞ্জ, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ঝালকাঠি, পিরোজপুর ও ভোলা।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইউএসএআইডির মামণি-মা ও নবজাতকের সেবা শক্তিশালীকরণ নতুন প্রকল্পটি গঠিত হয়েছে মূলত ইউএসএআইডির মামণি-হেলথ সিস্টেমস স্ট্রেংদেনিং প্রকল্প এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং অন্যান্য উন্নয়ন সহযোগীর সম্মিলিত প্রচেষ্টায়। এর মাধ্যমে মাতৃ ও নবজাতকের মৃত্যু রোধ করতে সম্মিলিতভাবে কাজ চলছে।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক। সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্ল্যানিং উইংয়ের জয়েন্ট চিফ ডা. এ ই এম মহিউদ্দিন ওসমানী। আরো বক্তব্য দেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হাবিবুর রাহমান, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. কাজী মোস্তাফা সারোয়ার, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

 

মন্তব্য