kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

ক্যানভাসে জীবন ও প্রকৃতির সম্মিলন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ জানুয়ারি, ২০১৬ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পাহাড়ের শরীর বেয়ে নামছে ঝরনাধারা। আর পাহাড়ের নিচে জলাভূমিতে ফুটে আছে নয়নজুড়ানো পদ্মফুল। চিত্রকর্মটির শিরোনাম ‘পদ্ম ও শৈবালের গল্প’। আরেকটি চিত্রকর্মে দৃশ্যমান নীলাকাশ ও বিস্তৃত চরাচর। বিশাল প্রান্তর দিয়ে হেঁটে চলেছে দুই প্রান্তিক মানুষ। প্রকৃতির সঙ্গে জীবনের এমন মেলবন্ধন ঘটানো এই চিত্রকর্মের শিরোনাম দেওয়া হয়েছে—‘ওরা ওখানে থাকে’।

এভাবেই ক্যানভাসে নিসর্গের সঙ্গে জীবনের সম্মিলন ঘটিয়েছেন গুলশান হোসেন। রঙের ওপর রং চাপিয়ে প্রকৃতি ও জীবনের জয়গান গেয়েছেন আন্তর্জাতিকভাবে সমাদৃত এই চিত্রশিল্পী। এমনই কয়েকটি চিত্রকর্ম নিয়ে রাজধানীর প্রগতি সরণির অ্যাথেনা গ্যালারিতে শুরু হয়েছে এই শিল্পীর ১৭তম একক প্রদর্শনী। শিরোনাম—‘প্রকৃতি ও জীবনের প্রতিফলন’।

গতকাল শনিবার শীতের সন্ধ্যায় প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনিস এ খান। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্পী রফিকুন নবী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন বাংলাদেশ হেরিটেজ ফাউন্ডেশন ও ন্যাশনাল সিকিউরিটি চেয়ারম্যান ওয়ালিউর রহমান। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অ্যাথেনা গ্যালারি অব ফাইন আর্টসের চেয়ারপারসন নিলু রওশন মোরশেদ।

বিষয়ের সঙ্গে রঙের বৈভবে উজ্জ্বল গুলশানের চিত্রকর্মগুলো। বর্ণ দিয়ে বর্ণনা করেছেন আপন মনোলোকের। আশৈশব প্রকৃতি থেকে শিল্পী যেভাবে পাঠ নিয়েছেন সেটাকেই মেলে ধরেছেন চিত্রপটে। সেই সূত্রে প্রকৃতির পাশাপাশি উপস্থাপন করেছেন মানবিক জীবন। নিসর্গ ও জীবনের সুন্দরের উল্টো পিঠে থাকা অনাকাঙ্ক্ষা ও অসুন্দরেরও বয়ান আছে তাঁর ক্যানভাসে। এসিডে পোড়া নারীর মুখ শিল্পীর ক্যানভাসে সভ্যতারই ক্ষতচিহ্ন। উজ্জ্বল রঙের আশ্রয়ে সরু রেখায় বলেছেন আবহমান বাংলা ও প্রকৃতির কথা।

তিন সপ্তাহব্যাপী প্রদর্শনীতে অ্যাক্রিলিক, তেলরং ও মিশ্র মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে আঁকা ৫৫টি চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে। প্রদর্শনীটি চলবে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রদর্শনী দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

‘শুদ্ধ ও প্রমিত উচ্চারণের সুবর্ণ পথ’

প্রকাশিত হলো আবৃত্তিশিল্পী গোলাম সারোয়ার রচিত ‘শুদ্ধ ও প্রমিত উচ্চারণের সুবর্ণ পথ’ শিরোনামের গ্রন্থ। বইটি প্রকাশ করেছে প্রতীক প্রকাশনী। গতকাল বিকেলে শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে গ্রন্থটির প্রকাশনা উৎসব হয়েছে। প্রধান অতিথি হিসেবে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কামাল লোহানী। বিশেষ অতিথি ছিলেন ‘বাংলা শব্দের উৎস’ শিরোনামের অভিধান রচয়িতা ফরহাদ খান ও অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষ। এ ছাড়া ছিলেন অধ্যাপক নিরঞ্জন অধিকারী, আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আহ্্কাম উল্লাহ্্, বাচিকশিল্পী মীর বরকত ও প্রতীক প্রকাশনীর প্রকাশক নূর-ই-মোত্তাকিম আলমগীর।

মন্তব্য