kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ আগস্ট ২০২২ । ১ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৭ মহররম ১৪৪৪

সবিশেষ

দক্ষিণ কোরিয়াও এবার চাঁদে অভিযানে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দক্ষিণ কোরিয়াও এবার চাঁদে অভিযানে

প্রদক্ষিণ যন্ত্রটির (অরবিটার) নাম দানুরি। যার মোটামুটি বাংলা অর্থ ‘চাঁদ উপভোগ করুন’। দক্ষিণ কোরিয়া তাদের প্রথম চন্দ্র অভিযানে পাঠানো অরবিটারের নামকরণ এভাবেই করেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার মহাকাশ গবেষণা ইনস্টিটিউট উদ্ভাবিত অরবিটারটির ওজন ৬৭৮ কেজি।

বিজ্ঞাপন

গতকাল শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার স্পেস ফোর্স স্টেশন থেকে বিশাল ফ্যালকন-৯ রকেটের মাধ্যমে চাঁদের কক্ষপথে যাত্রা শুরু করেছে দানুরি।

এক পর্যায়ে ফ্যালকন-৯ থেকে সফলভাবে পৃথক হয়ে অরবিটারটি চাঁদের কক্ষপথের দিকে ছুটতে শুরু করে। এ অভিযান সফল হলে দক্ষিণ কোরিয়া হবে বিশ্বের সপ্তম ও এশিয়ার চতুর্থ চাঁদে অভিযানে যাওয়া দেশ। এর আগে এশিয়ার মধ্যে চীন, জাপান ও ভারত চাঁদে কোনো না কোনো অভিযান পরিচালনা করেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার বিজ্ঞান ও আইসিটি মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আশা করা হচ্ছে, ডিসেম্বরে অরবিটারটি চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশ করবে। ভবিষ্যতে চাঁদের বুকে আরো অভিযান চালানোর সম্ভাব্য উপযুক্ত স্থান খুঁজতে এক বছর অনুসন্ধান চালাবে এটি। এ ছাড়া এটি থেকে চাঁদের পরিবেশের বৈজ্ঞানিক গবেষণা ও মহাকাশ ইন্টারনেট প্রযুক্তি পরীক্ষা করা হবে।

মহাকাশ কর্মসূচির বিষয়টি কোরীয় উপদ্বীপে দীর্ঘদিন ধরে একটি সংবেদনশীল বিষয়। কমিউনিস্ট উত্তর কোরিয়া তার পারমাণবিক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির জন্য আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার সম্মুখীন হয়েছে।

দৃশ্যত মহাকাশ অভিযানের ব্যাপ্তি বাড়াতে মার্চে উত্তর কোরিয়া তার রকেট উৎক্ষপণকেন্দ্র সম্প্র্রসারণের উদ্যোগ নেয়। তবে দক্ষিণ কোরিয়া ও তার মিত্র যুক্তরাষ্ট্র এটিকে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার নতুন পন্থা বলে অভিযুক্ত করে।

দক্ষিণ কোরিয়া বলেছে, তাদের মহাকাশ কর্মসূচি শান্তিপূর্ণ এবং বৈজ্ঞানিক উদ্দেশ্যে হচ্ছে। পাশাপাশি সামরিক খাতে প্রযুক্তির ব্যবহার এবং গোপন স্যাটেলাইট থেকে প্রতিরক্ষা নিশ্চিতেও কাজ করবে দেশটির মহাকাশ সংস্থা। সূত্র : সিএনএন।



সাতদিনের সেরা