kalerkantho

রবিবার । ২৬ জুন ২০২২ । ১২ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৫ জিলকদ ১৪৪৩

মন্ত্রিসভার বৈঠক

জুনের শেষে উদ্বোধন হচ্ছে পদ্মা সেতু

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জুনের শেষে উদ্বোধন হচ্ছে পদ্মা সেতু

পদ্মা সেতু আগামী মাসের শেষের দিকে উদ্বোধন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদসচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি জানিয়েছেন, এই সেতুর নাম পদ্মা সেতুই থাকবে। বৈঠকে দ্রব্যমূল্য নিয়ে আলোচনার পর বাণিজ্য ও অর্থ মন্ত্রণালয়কে কিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বিজ্ঞাপন

পরে সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকের বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন মন্ত্রিপরিষদসচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

মন্ত্রিপরিষদসচিব জানান, মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘হাট ও বাজার (স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা) আইন ২০২২, ভূমি উন্নয়ন কর আইন ২০২২’ ‘ভূমি সংস্কার আইন ২০২২’ ও ‘জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্যনীতি, বাংলাদেশ ২০২২’-এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদসচিব বলেন, ‘পদ্মা সেতু নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আমার মনে হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নিজেই আগামী পাঁচ-ছয়

দিনের মধ্যে বিষয়টি স্পষ্ট করবেন। পদ্মা সেতু জুন মাসের শেষে উদ্বোধন করা হচ্ছে, এটা তো উনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেই দিয়েছেন। আমরাও রেডি আছি, ইনশাআল্লাহ। আশা করি, জুনের শেষ সপ্তাহের আগেই সেতু প্রস্তুত হয়ে যাবে। উদ্বোধনের তারিখটা এখনো নির্ধারিত হয়নি। তারিখ ধরে রাখেন জুনের শেষ দিকের কোনো এক দিন। ’

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদসচিব বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘পদ্মা সেতু’ ‘পদ্মা সেতু’ই হবে। পদ্মা সেতুর টোল বিষয়ে তিনি বলেন, ‘যখনই যেখানে ব্রিজ নির্মাণ করে স্ট্যান্ডার্ড হলো ফেরির ১.৫ শতাংশ টোল (যেমন—ফেরিতে ১০০ টাকা হলে ব্রিজে ১৫০ টাকা) ধরা হয়। সেটা ধরেই করা হয়েছে। অনেকে পদ্মা সেতুকে বঙ্গবন্ধু সেতুর সঙ্গে তুলনা করে। বঙ্গবন্ধু সেতু হলো পাঁচ কিলোমিটার, আর পদ্মা সেতু হলো ৯.৮৬ কিলোমিটার। প্রায় দ্বিগুণ। ’ তিনি আরো জানান, ‘পদ্মা সেতুর টাকা সেতু কর্তৃপক্ষ ১ শতাংশ হারে সুদে সরকারকে ফেরত দেবে। সুতরাং সেতু কর্তৃপক্ষকে ওই জায়গা থেকে টাকা উপার্জন করতে হবে। পৃথিবীর কোথাও এই ধরনের স্থাপনার ভেতর দিয়ে যাওয়ার সময় পয়সা না দিয়ে যাওয়ার কোনো সিস্টেম নেই। ’ তিনি বলেন, ‘ফিজিবিলিটি স্টাডিতে যেমন ছিল যে, ২৪ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে টাকাটা (পদ্মা সেতুর নির্মাণ ব্যয়) উঠে আসবে। এখন মনে হচ্ছে ১৬-১৭ বছরের মধ্যেই টাকাটা উঠে আসবে। ’

 

 

 

 



সাতদিনের সেরা