kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ১৯ মে ২০২২ । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  

সবিশেষ

আনা ফ্রাংককে ‘ধরিয়ে দেওয়া’ ব্যক্তি ৭৭ বছর পর শনাক্ত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আনা ফ্রাংককে ‘ধরিয়ে দেওয়া’ ব্যক্তি ৭৭ বছর পর শনাক্ত

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় আনা ফ্রাংক ও তার পরিবারের গোপন অবস্থানের হদিস নাৎসিদের জানিয়ে দেওয়া এক ব্যক্তিকে শনাক্তের দাবি করা হয়েছে সাম্প্রতিক এক তদন্তে। ঘটনার প্রায় ৭৭ বছর পর তাঁর খোঁজ মিলল।

আলোচ্য তদন্তটিতে দাবি করা হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের তদন্ত সংস্থা ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (এফবিআই) সাবেক এক এজেন্ট দাবি করেন, নেদারল্যান্ডসের আমস্টারডামে বসবাসকারী ইহুদি আরনল্ড ভ্যান ডেন বার্গ আনা ফ্রাংক ও তার পরিবারকে বিপাকে ফেলা সেই ব্যক্তি। নিজের পরিবারকে রক্ষা করতে গিয়ে তিনি আনাদের পরিবারকে ঝুঁকিতে ফেলেন।

বিজ্ঞাপন

তদন্তদলটি ইতিহাসবেত্তা ও অন্যান্য বিশেষজ্ঞ মিলে গঠিত। দলটি প্রায় ছয় বছর গবেষণার পর এই অনালোচিত রহস্য উন্মোচনের চেষ্টা চালায়। ভ্যান ডেন বার্গ ওই সময়ে আমস্টারডামের ইহুদি কাউন্সিলের সদস্য ছিলেন। এটি ১৯৪৩ সালে বাতিল করে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কারাগারে পাঠানো হয়। কিন্তু ভ্যান ডেন বার্গকে কারাগারে যেতে হয়নি, বরং তিনি বেশ স্বাভাবিক জীবন যাপন করেছিলেন। তদন্তকারীরা মনে করছেন, এর নেপথ্যে রয়েছে নাৎসিদের কাছে তাঁর তথ্যপাচারের প্রতিশ্রুতি। তদন্ত প্রতিবেদনটিতে আরো বলা হয়েছে, আনার তথ্য ফাঁসে আরো একজন জড়িত। এই ফাঁসের ঘটনাটি আনার বাবা ওটো ফ্রাংক নিজেও জানতেন, কিন্তু গোপন রাখেন। কিশোরী আনা ফ্রাংকের দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় লেখা দিনলিপি (ডায়েরি) সারা বিশ্বে জনপ্রিয়। সেই সময় জার্মান নাৎসি বাহিনীর ইহুদি বন্দিশিবিরে বোনসহ নির্মম মৃত্যুর শিকার হওয়ার আগে রোমহর্ষক অভিজ্ঞতার বর্ণনা লিখে গিয়েছিল আনা। এর আগে আনাদের পরিবার একটি গোপন আশ্রয়ে ছিল। সূত্র : বিবিসি



সাতদিনের সেরা