kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সাহসী আলী

ছুরির আঘাত সহ্য করে ধরে রাখলেন ছিনতাইকারীকে

সিলেট অফিস   

২ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাহসী আলী

আব্দুল আলী

দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অফিসের ৪৫ হাজার টাকাসহ বাসার উদ্দেশে যাচ্ছিলেন একটি প্রতিষ্ঠানের বিক্রয়কর্মী আব্দুল আলী (২৫)। হঠাৎ তিন ছিনতাইকারী তাঁকে ঘিরে ফেলে সেই টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। জীবন বাজি রেখে এক ছিনতাইকারীকে জাপটে ধরেন আলী। তখন সঙ্গীকে ছাড়িয়ে নিতে অন্য দুই ছিনতাইকারী আলীকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করতে শুরু করলেও তিনি ছাড়েননি ওই অপরাধীকে। আর তাতেই ধরা পড়ে এক ছিনতাইকারী।

গতকাল বুধবার সিলেট নগরের নয়া সড়ক পয়েন্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সাহসী আব্দুল আলী নগরের কাজিটুলা এলাকার বাসিন্দা আবুল কাশেমের ছেলে। তিনি আহমদ ফুড নামের একটি প্রতিষ্ঠানের বিক্রয় প্রতিনিধি। ছুরিকাহত আলী বর্তমানে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আটক ছিনতাইকারী শিপন আহমদ (২৮) সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া গ্রামের লালসাদ আহমদের ছেলে। তাঁকে থানাহাজতে রাখা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় ব্যক্তিরা জানান, সাহসী আব্দুল আলী এক ছিনতাইকারীকে জাপটে ধরলে অন্য দুজন তাঁকে ছুরিকাঘাত করতে শুরু করে। তাতেও হাতের বাঁধন ছেড়ে দেননি আলী। তাঁর চিৎকারে নয়া সড়ক পয়েন্টে দায়িত্বরত পুলিশ সার্জেন্ট জয়ন্ত এগিয়ে গিয়ে পথচারীদের সহযোগিতায় ওই ছিনতাইকারীকে আটক করেন। তবে বাকি দুই ছিনতাইকারী পালিয়ে যায়।

সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ আলী মাহমুদ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘ছিনতাইকারী শিপনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে পাঠানো হবে।’ আব্দুল আলীর সাহসিকতায় ছিনতাইকারীকে ধরা সম্ভব হয়েছে উল্লেখ করে ওসি জানান, আহত আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের তৃতীয় তলার সার্জারি বিভাগে চিকিৎসাধীন আহত আব্দুল আলী। ওই ওয়ার্ডের দায়িত্বরত চিকিৎসক সাইফুল ইসলাম জানান, আহত যুবকের পিঠে দুটি আঘাত রয়েছে। রক্তচাপ কমে গেছে।



সাতদিনের সেরা