kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২ ডিসেম্বর ২০২১। ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

বেড়া পৌর নির্বাচন

পুলিশি বেষ্টনীর মধ্যেই হামলা আহত ১০

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি   

২৬ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পুলিশি বেষ্টনীর মধ্যেই হামলা আহত ১০

পাবনার বেড়া পৌরসভা নির্বাচনের প্রচার শেষ মুহূর্তে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য শামসুল হক টুকুর পরিবারের বিরোধ সংঘাতে রূপ নিয়েছে। পুলিশি নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্যেই সংসদ সদস্য টুকুর ছোট ভাই স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আব্দুল বাতেনের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় বাতেনসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে বেড়া সিঅ্যান্ডবি বাজার এলাকায় সাংসদপুত্র ও নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী আসিফ শামস রঞ্জনের সমর্থকরা এই হামলা চালায়। ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজও আব্দুল বাতেন গণমাধ্যমে পাঠিয়েছেন।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, বেড়া পৌর মেয়র পদে লড়ছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য টুকুর পরিবারেরই তিনজন প্রার্থী। নৌকা প্রতীক নিয়ে সংসদ সদস্য টুকুর ছেলে আসিফ শামস রঞ্জন, নারকেলগাছ প্রতীক নিয়ে সংসদ সদস্যের ছোট ভাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান মেয়র আব্দুল বাতেন এবং মোবাইল ফোন প্রতীক নিয়ে সংসদ সদস্যের ভাতিজি এস এম সাদিয়া আলম। এ ছাড়া রেল ইঞ্জিন প্রতীক নিয়ে মেয়র পদে লড়ছেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এ এইচ এম ফজলুর রহমান মাসুদ, জগ প্রতীক নিয়ে প্রার্থিতায় রয়েছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কে এম আব্দুল্লাহ। আগামী রবিবার পৌরসভাটিতে ভোটগ্রহণ হবে।

আব্দুল বাতেনের পাঠানো ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, সাদা রমজান ও ময়ছারের নেতৃত্বে নৌকার পক্ষের ৩০-৩৫ জনের একটি দল অকথ্য গালাগাল করে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী আব্দুল বাতেনকে এলাকা ছাড়তে হুমকি দিচ্ছে। এ সময় আব্দুল বাতেনের নিরাপত্তায় থাকা পুলিশ সদস্যরা তাদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন। আর পুলিশের এই চেষ্টাকে উপেক্ষা করে নৌকার সমর্থকরা তাঁকে মারপিট করার চেষ্টা করে। প্রাণ বাঁচাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল বাতেন ও তাঁর সমর্থকরা বাজারের প্রবীর দত্তের মুদি দোকানে আশ্রয় নেন। কিন্তু সেখানেও হামলাকারীরা উপস্থিত হয়ে ‘একটা একটা বাতেন ধর, ধরে ধরে জবাই কর’ স্লোগান দিয়ে দোকানে আশ্রয় নেওয়াদের  মারপিটের চেষ্টা করে।

বাতেনের অভিযোগ, নির্বাচন থেকে তাঁকে সরিয়ে দিতে প্রচারে বাধা দেওয়া হচ্ছে। একাধিকবার তাঁকে হত্যাচেষ্টা করা হয়েছে। এমনকি তাঁর বাড়ির সামনে নৌকার প্রার্থী রঞ্জনের উপস্থিতিতে সন্ত্রাসীরা সশস্ত্র মহড়া দিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছে। এসব ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ ও প্রমাণাদি নজরে আনা হলে হাইকোর্টের নির্দেশে তাঁকে পুলিশি নিরাপত্তা দেওয়া হয়।

বেড়া থানার ওসি অরবিন্দ সরকার বলেন, ‘নৌকা ও নারকেলগাছ প্রতীকের সমর্থকরা সিঅ্যান্ডবি বাজারে মুখোমুখি হলে সামান্য উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। তাত্ক্ষণিকভাবে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 



সাতদিনের সেরা