kalerkantho

শুক্রবার । ৭ মাঘ ১৪২৮। ২১ জানুয়ারি ২০২২। ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ইউপি নির্বাচন

আখাউড়া ও কসবায় নৌকা থাকছে না

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

২১ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আখাউড়া ও কসবায় নৌকা থাকছে না

আগামী ২৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ার পাঁচ ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকা থাকছে না। আখাউড়া ছাড়াও এখনো তফসিল ঘোষণা না হওয়া কসবায়ও নৌকা বরাদ্দ দেওয়া হবে না। ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ (কসবা-আখাউড়া) আসনের সংসদ সদস্য ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক গতকাল শনিবার আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘মানুষের মনের কথা বুঝে নৌকা প্রতীক ছাড়া নির্বাচন করতে প্রধানমন্ত্রীর অনুমতি নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইউপি নির্বাচনের চেয়ারম্যান পদের ভোট দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে হাতে গোনা কয়েকটি ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক ছাড়া ভোট হচ্ছে। ওই তালিকায় যোগ হলো কসবা ও আখাউড়ার নাম।

আখাউড়া ও কসবার সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী থেকে শুরু করে আওয়ামী লীগের বেশির ভাগ নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষ এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন।

পৌর কার্যালয়ের তৃতীয় তলায় অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. জয়নাল আবেদীন। ভার্চুয়াল আলোচনায় আইনমন্ত্রী বলেন, ‘দলের আদর্শিক ধারণা গ্রাম পর্যন্ত পৌঁছাতে নৌকা প্রতীকে স্থানীয় সরকার নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত সঠিক। তবে সেটি করার মতো প্রস্তুতি সব এলাকায় শেষ হয়নি। প্রতীক ছাড়া নির্বাচন করার কারণ হলো, জনগণকে যাঁরা ভালোবাসেন, জনগণ যাঁদের পছন্দ করে, তাঁরা যেন জনপ্রতিনিধি হতে পারেন। যদি একজনকে মনোনয়ন দিয়ে দিতাম তাহলে উৎসবের মতো করে ভোট করার জনগণের যে আকাঙ্ক্ষা, সেটার পরিবেশ হবে না। ’

মনিয়ন্দ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. আলমগীর ভূঁইয়া বলেন, ‘এ সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানাই। আশা করি, বেশির ভাগ প্রার্থীই এতে খুশি। আখাউড়ায় সুষ্ঠু একটি নির্বাচন হবে বলে মনে করি। ’ মোগড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘এটা সঠিক ও সময়োপযোগী একটি সিদ্ধান্ত। এতে একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের সুযোগ হবে। ’

মনিয়ন্দ ইউনিয়নের প্রার্থী ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি খায়রুল বাশার রিপু বলেন, ‘সাধারণ মানুষও চাচ্ছিল নৌকা প্রতীক ছাড়া নির্বাচন করে নিজের পছন্দের প্রার্থী যেন বিজয়ী হয়ে আসেন। এ সিদ্ধান্তের ফলে জনগণের আশার প্রতিফলন ঘটল। ’  

আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘এ সিদ্ধান্তে এখন একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হবে। ’

 



সাতদিনের সেরা