kalerkantho

বুধবার । ৭ আশ্বিন ১৪২৮। ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৪ সফর ১৪৪৩

সবিশেষ

ভুটানে ৮৫% মানুষ টিকার আওতায়

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভুটানে ৮৫% মানুষ টিকার আওতায়

ভুটানে করোনার টিকা নেওয়ার জন্য উপযুক্ত মানুষের সংখ্যা পাঁচ লাখ ৩০ হাজার। গত সপ্তাহে সেখানকার চার লাখ ৫৪ হাজারের বেশি মানুষকে টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ ৮৫  শতাংশের বেশি মানুষ টিকার পূর্ণ ডোজ পেয়েছেন। দেশটির টিকাদানের এই কর্মসূচিকে সাফল্য হিসেবে চিহ্নিত করেছে ইউনিসেফ ও আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থাগুলো।

ইউনিসেফের ভুটানে নিযুক্ত প্রতিনিধি উইল পার্কস বলেন, ‘আমরা চাই যেসব দেশে অতিরিক্ত টিকা মজুদ আছে, তারা টিকার সংকটে থাকা দেশগুলোর পাশে দাঁড়াক। ভুটানের মতো ছোট একটি দেশে চিকিৎসক, নার্সের স্বল্পতা রয়েছে। কিন্তু দেশটির রাজা ও সরকারের সুব্যবস্থাপনার কারণে টিকাদানপ্রক্রিয়া সফলভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে।’

মার্চের শেষ দিকে ভারত সাড়ে পাঁচ লাখ অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকা ভুটানকে দিয়েছে। ভুটান এপ্রিলের শুরুর দিকেই দ্রুত এসব টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া শুরু করে। করোনাভাইরাসের উচ্চ সংক্রমণের কারণে প্রতিবেশী দেশ ভারত টিকা সরবরাহ স্থগিত করার আগেই এই প্রক্রিয়া শুরু হয়। প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের টিকার মধ্যে সময়ের ব্যবধান বাড়তে থাকায় ভুটান সরকার আরো টিকা সরবরাহের জন্য আবেদন জানায়।

ভুটান সরকারের আবেদনে সাড়া দিয়ে জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ে কোভ্যাক্সের আওতায় যুক্তরাষ্ট্র মডার্নার পাঁচ লাখ ডোজ টিকা ভুটানকে দিয়েছে। ডেনমার্ক থেকে আড়াই লাখ ডোজ টিকাও ভুটানে ওই সময়ে এসে পৌঁছেছে। ক্রোয়েশিয়া, বুলগেরিয়া, চীন এবং আরো বেশ কয়েকটি দেশ থেকে অ্যাস্ট্রাজেনেকা, ফাইজার ও সিনোফার্মের চার লাখের বেশি টিকা ভুটানে পৌঁছবে বলে আশা করা হচ্ছে। ভুটান সরকার ফাইজারের আরো দুই লাখ ডোজ টিকা কিনেছে। এ বছরের শেষে এই টিকা এসে পৌঁছবে।

ভারত ও চীনের মাঝামাঝি অবস্থিত ভুটান সুখী দেশের তালিকায় রয়েছে। দেশটিতে করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত দুই হাজার ৫০০ জনের কম সংক্রমিত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে মাত্র দুজনের।

সূত্র : এএফপি।



সাতদিনের সেরা