kalerkantho

শুক্রবার । ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৪ আগস্ট ২০২০ । ২৩ জিলহজ ১৪৪১

এমজেএফের জরিপ

জুনে বাল্যবিয়ে বেড়েছে তিন গুণ

বেড়েছে শিশু নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জুনে বাল্যবিয়ে বেড়েছে তিন গুণ

করোনাকালে শিশুদের প্রতি সহিংসতা বেড়েছে। গত এপ্রিল ও মে মাসের তুলনায় জুনে শিশু নির্যাতন বেড়েছে। আশঙ্কাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে বাল্যবিয়ের সংখ্যা। জুনে বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছে ৪৬২টি মেয়েশিশু। মে মাসের তুলনায় এই বৃদ্ধির হার প্রায় তিন গুণ। মে মাসে বাল্যবিয়ের সংখ্যা ছিল ১৭০।

বেসরকারি সংস্থা মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (এমজেএফ) পরিচালিত এক জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে।

জুন মাসে দেশের ৫৩টি জেলার মোট ৫৭ হাজার ৭০৪ নারী ও শিশুর ওপর এ জরিপ চালানো হয়। গতকাল রবিবার আয়োজিত এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে জরিপের ফলাফল তুলে ধরা হয়।

জরিপ অনুযায়ী, এই সময়ে পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয়েছে ৬১ শতাংশ শিশু। জুনে মোট দুই হাজার ৮৯৬টি শিশু নির্যাতনের শিকার হয়েছে। মে মাসে এ সংখ্যা ছিল দুই হাজার ১৭১। জুন মাসে মোট ১২ হাজার ৭৪০ জন নারী ও শিশু সহিংসতার শিকার হয়েছে। মে মাসে এ সংখ্যা ছিল ১৩ হাজার ৪৯৪। অর্থাৎ নারী ও শিশুর ওপর মোট নির্যাতনের হার মে মাসের তুলনায় কমলেও শিশু নির্যাতনের হার বৃদ্ধি পেয়েছে।

করোনাকালে নারী ও শিশুর অবস্থা জানতে টেলিফোনে চালানো এই জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ১২ হাজার ৭৪০ জন নারী ও শিশু সহিংসতার শিকার হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্যে ৯ হাজার ৮৪৪ জন নারী ও দুই হাজার ৮৯৬টি শিশু রয়েছে। শিশুদের মধ্যে মেয়েশিশু এক হাজার ৬৭৭টি, ছেলেশিশু এক হাজার ২১৯টি। কর্মক্ষেত্রে নির্যাতনের শিকার হয়েছে ২৯২টি শিশু। ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৯ জন এবং ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে ৯৯টি শিশুকে। এর মধ্যে ৮৬টি মেয়েশিশু, ১৩টি ছেলেশিশু। এই সময়ের মধ্যে হত্যা করা হয়েছে ৪১ জনকে এবং অপহূত হয়েছে ১০ জন, যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে ১২ জন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নারীদের ৯৮ শতাংশ অর্থাৎ ৯ হাজার ৬৯৩ জন পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা