kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৯ ডিসেম্বর ২০২১। ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে মাঝারি উদ্যোক্তাদের ঋণ পাওয়া সহজ হলো

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ মে, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রণোদনা প্যাকেজ থেকে মাঝারি উদ্যোক্তাদের ঋণ পাওয়া সহজ হলো

প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় বড় শিল্প ও সেবা খাতের পর এবার কুটির, মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের (সিএমএসএমই) জন্য ঘোষিত বিশেষ তহবিল থেকে মাঝারি উদ্যোক্তাদের ঋণ নিতেও বাংলাদেশ ব্যাংকের ইন্টারনাল ক্রেডিট রিস্ক রেটিং (আইসিআরআর) নীতিমালার শর্ত পূরণ করা বাধ্যতামূলক নয়। করোনার কারণে দাপ্তরিক কার্যক্রম সীমিত হয়ে পড়ায় আইসিআরআর কার্যক্রম ব্যাহত ও গ্রহীতার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সরবরাহে বিঘ্ন সৃষ্টি হওয়ায় এই সুবিধা দিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই অ্যান্ড স্পেশাল প্রগ্রাম ডিপার্টমেন্ট থেকে এসংক্রান্ত সার্কুলার জারি করা হয়। এতে বলা হয়, এই দুর্যোগপূর্ণ অবস্থায় মাঝারি শিল্পের আওতায় তাদের উৎপাদন বা সেবা কার্যক্রম পুনরায় দ্রুত চালু করতে শুধু সিএমএসএমই প্যাকেজের আওতায় ঋণ সুবিধা প্রদানের ক্ষেত্রে আইসিআরআর অনুযায়ী রেটিং কার্যক্রম সম্পন্ন না করে ব্যাংক কর্তৃক ঋণ প্রদান করা যাবে। তবে প্রতিটি ব্যাংক বিদ্যমান নিজস্ব নীতিমালার আওতায় ঋণঝুঁকি বিশ্লেষণপূর্বক ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে গ্রাহক নির্বাচন করবে।

সার্কুলারে আরো বলা হয়েছে, এসংক্রান্ত আগের নির্দেশনানুযায়ী খেলাপি গ্রাহকরা এ প্যাকেজের আওতায় ঋণ সুবিধা পাবেন না। এ ছাড়া কোনো ঋণগ্রহীতা প্রতিষ্ঠানের কোনো ঋণ ক্ষতিজনক মানে শ্রেণীকৃত হওয়ার পর তিনবারের অধিক পুনঃ তফসিল হলে এরূপ গ্রহীতা প্রতিষ্ঠানও এ প্যাকেজের আওতায় ঋণ পাবে না।

আইসিআরআর নীতিমালা অনুযায়ী, প্রথমত একজন গ্রাহককে এক্সিলেন্ট, গুড, মার্জিনাল ও আনএকসেপ্টেবল—এই চার শ্রেণিতে ভাগ করবে ব্যাংকগুলো। কোনো গ্রাহক ‘এক্সিলেন্ট’ রেটিং পেলে ব্যাংক তাকে ঋণ দিতে পারবে। ‘গুড’ রেটিং পেলেও ব্যাংক তাকে ঋণ দিতে পারবে। ‘মার্জিনাল’ রেটিংধারী গ্রাহককে পুরনো ঋণ নবায়ন বা নতুন করে ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে ব্যাংককে। ‘আনএকসেপ্টেবল’ রেটিংধারীকে কোনো পরিস্থিতিতেই নতুন ঋণ দিতে পারবে না ব্যাংকগুলো, যদি না আগের ঋণ শতভাগ নগদ পরিশোধ হয় অথবা পর্যাপ্ত জামানত দিয়ে ঋণটি আচ্ছাদন করা হয়।



সাতদিনের সেরা