kalerkantho

রবিবার । ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩১  মে ২০২০। ৭ শাওয়াল ১৪৪১

অনিশ্চয়তায় হজ

নিবন্ধনের সময় বাড়ল ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নিবন্ধনের সময় বাড়ল ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে এবারের পবিত্র হজ অনুষ্ঠান। তবে এ পরিস্থিতিতেও হজের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে আগ্রহীদের নিবন্ধন কার্যক্রম চালাচ্ছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। হজযাত্রীদের সুবিধার্থে তৃতীয় দফায় এ নিবন্ধনের সময় বাড়ানো হয়েছে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত। এর আগের বেঁধে দেওয়া সময়সীমা শেষ হওয়ার কথা ছিল গতকাল বুধবার। তবে এ সময়ের মধ্যে নিবন্ধনের সংখ্যা অনেক কম হওয়ায় সময় আবারও বাড়াল ধর্ম মন্ত্রণালয়।

বুধবার ধর্ম মন্ত্রণালয় জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, ২০২০ সালের হজে আগ্রহী অনেকে নিবন্ধনের জন্য পাসপোর্ট জমা দিলেও দীর্ঘ ছুটির কারণে ব্যাংক থেকে নিবন্ধন ভাউচার নিতে পারেননি। তাঁদের কথা বিবেচনা করেই সময় বাড়ানো হলো। মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, যাঁরা সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ করতে প্রাক-নিবন্ধন করেছেন এবং নতুন যাঁরা প্রাক-নিবন্ধন ও নিবন্ধন করতে চান—সবার জন্যই এ সুযোগ প্রযোজ্য। আর যাঁরা বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক-নিবন্ধন করেছেন, তাঁদের মধ্যে ছয় লাখ ৭২ হাজার ১৯৯ ক্রমিক পর্যন্ত যাঁরা আছেন, ‘আগে এলে আগে নিবন্ধন’ ভিত্তিতে তাঁদের নিবন্ধন করা হবে। একই সঙ্গে পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনের সুবিধার্থে ১৫ এপ্রিলের মধ্যে সংশ্লিষ্ট নিবন্ধনকেন্দ্রে পাসপোর্ট দাখিল করতে হবে। সৌদি আরব সরকারের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী এ বছর বাংলাদেশ থেকে এক লাখ ৩৭ হাজার ১৯৮ জন হজে যাওয়ার সুযোগ পাবেন। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৭ হাজার ১৯৮ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজার জন হজে যেতে পারবেন। গত ২ মার্চ থেকে প্রাক-নিবন্ধিত হজযাত্রীদের মূল নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়। বুধবার দুপুর পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনায় তিন হাজার ৩৭৯ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪৭ হাজার ৮৮ জন নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন।

এবার হজে আগ্রহীদের জন্য তিন ধরনের প্যাকেজ রেখেছে সরকার। প্রথম প্যাকেজে চার লাখ ২৫ হাজার টাকা, দ্বিতীয় প্যাকেজে তিন লাখ ৬০ হাজার এবং তৃতীয় প্যাকেজে তিন লাখ ১৫ হাজার টাকা খরচ হবে। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় দুটি প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় আগ্রহীদের নিবন্ধনে আপাতত বিমানভাড়া ও সার্ভিস চার্জ বাবদ এক লাখ ৫১ হাজার ৯৯০ টাকা জমা দিতে হবে। এখন কোনো অবস্থায়ই এর বেশি টাকা জমা না দিতে সতর্ক করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে এবারের হজ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে আগামী ৩০ জুলাই অর্থাৎ ৯ জিলহজ। সে অনুযায়ী ২৩ জুন হজ ফ্লাইট শুরু হতে পারে। তবে বিশ্বজুড়ে নভেল করোনাভাইরাসের মহামারির মধ্যে সব কিছুই এখন নির্ভর করছে সার্বিক পরিস্থিতির ওপর। ভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে সৌদি কর্তৃপক্ষ বিদেশিদের ওমরাহর অনুমতিসহ আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দিয়েছে আগেই। এখন পুরো দেশ রয়েছে লকডাউনে; মসজিদে জামাতে নামাজ পড়াও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা