kalerkantho

রবিবার । ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৭ রবিউস সানি                    

কোরআনে বর্ণিত নবীজির নামসমূহ

সাআদ তাশফিন   

১২ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোরআনে বর্ণিত নবীজির নামসমূহ

কখনো মহান আল্লাহ তাঁর প্রিয় বন্ধুকে ‘রহমত’ বলে সম্বোধন করেছেন। ইরশাদ হয়েছে, ‘আমি তোমাকে (রাহমাতাল লিল আলামিন) বিশ্ববাসীর জন্য রহমত হিসেবেই প্রেরণ করেছি।’ (সুরা : আম্বিয়া, আয়াত : ১০৭)

মহান আল্লাহ তাঁর প্রিয় বন্ধুকে আমাদের জন্য পাঠিয়েছেন নিয়ামতস্বরূপ। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে, ‘ওয়াজকুরু নিমাতাল্লাহি আলাইকুম’—তোমরা তোমাদের ওপর আল্লাহর নিয়ামতকে স্মরণ করো। (সুরা : আল ইমরান, আয়াত : ১০৩)

কিছু তাফসিরবিদের মতে, এখানে ‘নিয়ামত’ দ্বারা রাসুল (সা.)-এর কথা বলা হয়েছে।

অন্য আয়াতে মহান আল্লাহ ইরশাদ করেন, ‘হে নবী! আমি আপনাকে পাঠিয়েছি ‘শাহেদ’ সাক্ষ্যদাতা, ‘মুবাসসির’ সুসংবাদদাতা ও ‘নাজির’ সতর্ককারী রূপে।’ (সুরা : আহজাব, আয়াত : ৪৫)

ওই আয়াতে মহান আল্লাহ তাঁর প্রিয় বন্ধুকে তিনটি নামে সম্বোধন করেছেন। শাহেদ, মুবাসসির ও নাজির।

এর পরের আয়াতেই মহান আল্লাহ তাঁর প্রিয় বন্ধুকে আরো দুটি নামে সম্বোধন করেন—১. ‘দায়ি ইলাল্লাহ’। ২. ‘সিরাজাম মুনিরা’। ইরশাদ হয়েছে, ‘আর আল্লাহর অনুমতিক্রমে (দায়ি ইলাল্লাহ) তাঁর দিকে আহ্বানকারী ও (সিরাজাম মুনিরা) উজ্জ্বল প্রদীপ রূপে। (সুরা : আহজাব, আয়াত : ৪৬)

আন নাবিয়্যুল উম্মি : ইরশাদ হয়েছে, ‘যারা অনুসরণ করে রাসুলের। যিনি উম্মি নবী।’ (সুরা : আরাফ, আয়াত : ১৫৭) এই আয়াতে মহান আল্লাহ তাআলা নবী (সা.)-কে ‘আন নাবিয়্যুল উম্মি’ বলে সম্বোধন করেছেন।

কখনো মহান আল্লাহ তাঁর প্রিয় বন্ধুকে ‘মুজ্জাম্মিল’ বলে সম্বোধন করেছেন। ‘মুজ্জাম্মিল’ মানে হলো চাদরে আবৃত ব্যক্তি। একবার রাসুল (সা.) চাদরে আবৃত ছিলেন। সেই সময় আয়াত নাজিল হলো, ‘ইয়া আইয়্যুহাল মুজ্জাম্মিল’—হে বস্ত্রাবৃত! (সুরা : মুজ্জাম্মিল, আয়াত : ১)

আবার কখনো সম্বোধন করেছেন ‘মুদ্দাসসির’ বলে, যার অর্থ হলো বস্ত্রাবৃত। ইরশাদ হয়েছে, ‘ইয়া আইয়্যুহাল মুদ্দাসসির’—হে বস্ত্রাবৃত! (সুরা : মুদ্দাসসির, আয়াত : ১)

কখনো সম্বোধন করেছেন, ‘আমিন’ বলে, যার অর্থ বিশ্বস্ত। ইরশাদ হয়েছে, ‘নিশ্চয়ই কোরআন সম্মানিত রাসুলের আনীত বাণী। যে শক্তিশালী আরশের মালিক, আল্লাহর কাছে মর্যাদাসম্পন্ন। মান্যবর ও বিশ্বাসভাজন। (সুরা : তাকভির,    আয়াত : ১৯-২১)

এ ছাড়া মহান আল্লাহ তাঁর প্রিয় নবীকে ‘হাদি’, ‘খাতামুন নাবিয়্যিন’ ইত্যাদি নামে সম্বোধন করেছেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা