kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০২২ । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দুর্বৃত্তের হামলায় জাপা নেতার পা বিচ্ছিন্ন

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, পিরোজপুর   

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্বৃত্তের হামলায় জাপা নেতার পা বিচ্ছিন্ন

শফিকুল ইসলাম

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার মাঝেরপুল এলাকায় গতকাল সকালে দুর্বৃত্তের ধারালো অস্ত্রের কোপে শফিকুল ইসলাম সিকদার (৩৮) নামে জাতীয় পার্টির এক নেতার পা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তিনি উপজেলার তুষখালী ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক।

এ ঘটনায় তুষখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান হাওলাদারের ভাই নাসির হাওলাদারকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তুষখালী বন্দরে দুটি জমির মালিকানা নিয়ে স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে জাতীয় পার্টির নেতা শফিকুল ইসলামের বিরোধ ছিল।

বিজ্ঞাপন

এর পরিপ্রেক্ষিতে বেশ কিছু মামলা আদালতে বিচারাধীন। গতকাল সকালে একটি মামলায় হাজিরা দিতে ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলে চড়ে আদালতের উদ্দেশে রওনা দেন শফিকুল। মঠবাড়িয়া-চরখালী আঞ্চলিক মহাসড়কসংলগ্ন মাঝেরপুল এলাকায় পৌঁছামাত্রই মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয় একটি গাড়ি। এতে সড়কের পাশে ছিটকে পড়েন শফিকুল ও চালক। এ সময় গাড়ি থেকে নেমে চার-পাঁচজন দুর্বৃত্ত ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে শফিকুলের পা বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। এ ছাড়া তাঁর পেট ও শরীরে বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে। পরে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। স্থানীয়রা শফিকুলকে উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি হলে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

শফিকুল ইসলামের বাবা মো. আইউব আলী সিকদার বলেন, ‘তুষখালী বন্দরের দুটি জমি নিয়ে স্থানীয় কয়েকজনের সঙ্গে বিরোধ ছিল শফিকুলের। আদালতে মামলাও চলমান। প্রতিপক্ষরা পরিকল্পিতভাবে আমার ছেলেকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে এক পা বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছে। আমার ছেলের অবস্থা এখন আশঙ্কাজনক। ’

মঠবাড়িয়া থানার ওসি মুহাম্মদ নূরুল ইসলাম বাদল জানান, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান হাওলাদারের ভাই নাসির হাওলাদারকে আটক করা হয়েছে। হামলায় জড়িতদের শনাক্ত করতে তদন্ত চলছে। মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন।

 



সাতদিনের সেরা