kalerkantho

সোমবার । ২৮ নভেম্বর ২০২২ । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পৌনে চার লাখ পরিবার নদীর পানি পান করে

তামজিদ হাসান তুরাগ   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পৌনে চার লাখ পরিবার নদীর পানি পান করে

দেশে পৌনে চার লাখ পরিবারের (জনসংখ্যার ১ শতাংশের কম) খাওয়ার পানির উৎস নদী। সম্প্রতি প্রকাশিত বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) জনশুমারি ও গৃহগণনার প্রাথমিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

বিবিএস সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশে একসময় সুপেয় পানির প্রধান উৎস ছিল নদী। দিন দিন নদীদূষণে পানির সেই উৎস হারিয়ে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

তবে এখনো জাতীয়ভাবে দেশের ০.৮৯ শতাংশ মানুষ খাওয়ার পানি হিসেবে নদীর পানিকে বেছে নিয়েছে। ঢাকা বিভাগে এই হার একেবারেই কম। মাত্র ০.০৪ শতাংশ।

বিবিএস মূলত সারা দেশের চার কোটি ১০ লাখ ১০ হাজার ৫১টি খানার ওপর জরিপ করে এসব তথ্য দিয়েছে। বিবিএসের তথ্য বলছে, জাতীয় পর্যায়ে ৮৫.৬৬ শতাংশ খানার সুপেয় পানির প্রধান উৎস টিউবওয়েল, ১১.৭৮ শতাংশ খানায় পানি পান করে সরবরাহকৃত (ট্যাপ/পাইপ) পানি থেকে। বোতলজাত পানি পান করে ০.৫৯ শতাংশ খানা। কূপের পানি পান করে ০.৩৫ শতাংশ খানা, নদীর পানি পান করে ০.৮৯ শতাংশ খানা, ঝরনার পানি পান করে ০.১২ শতাংশ খানা, বৃষ্টির পানি পান করে ০.৪২ শতাংশ খানা এবং অন্যান্য উৎস থেকে পানি পান করে ০.২৪ শতাংশ খানা। জনশুমারির তথ্যের বিষয়ে প্রকল্প পরিচালক মো. দিলদার হোসেন বলেন, ‘আমরা এই তথ্যগুলো সরাসরি খানাগুলোতে গিয়ে সংগ্রহ করেছি। তথ্যগুলো খুব গুরুত্বপূর্ণ। এগুলোর মাধ্যমে দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার প্রকৃত চিত্র পাওয়া যাবে। একই সঙ্গে সরকারের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে এসব তথ্য ভূমিকা রাখে। ’

জনশুমারির তথ্য মতে, দেশের সব থেকে বেশি সিলেট বিভাগের মানুষ নদী, পুকুর ও লেক থেকে পানি পান করে। পরিবার অনুযায়ী ৩.৭৮ শতাংশ। এর পরই খুলনা বিভাগ। সেখানে ৩.৭৬ শতাংশ পরিবার। নদীবেষ্টিত বরিশাল  বিভাগে ২.৮৫ শতাংশ পরিবার নদীর পানি পান করে। চট্টগ্রাম বিভাগের ০.৫১ শতাংশ পরিবার পানি পান করে নদীর। সবচেয়ে কম নদীর পানি পান করে রংপুর বিভাগের মানুষ। ০.০১ শতাংশ পরিবার। রাজশাহী বিভাগে এই হার ০.০২ শতাংশ। ঢাকা বিভাগের ০.৫১ শতাংশ পরিবার পানি পান করে নদী থেকে। ময়মনসিংহ বিভারে ০.০৮  শতাংশ পরিবার।

স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও বায়ুমণ্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্রের (ক্যাপস) পরিচালক আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার মনে করেন, দেশে দিন দিন নদীদূষণের কারণে কমছে মানুষের সুপেয় পানির উৎস। কালের কণ্ঠকে তিনি বলেন, ‘ঢাকার আশপাশে তো ভালো নদী পাওয়া এখন প্রায় অসম্ভব। আগে একটা সময় বেশির ভাগ মানুষ নদী থেকে পানি সংগ্রহ করে পান করত, পাশাপাশি ঘরের কাজ করত, কিন্তু এখন তা একেবারে নেই বললে চলে। ’ প্রতিনিয়ত শিল্প বর্জ্য, ও রাসায়নিক সারের কারণে পানিদূষণ হচ্ছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।



সাতদিনের সেরা