kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ঝড়ের পর সাকিবই অধিনায়ক

ক্রীড়া প্রতিবেদক   

১৪ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ঝড়ের পর সাকিবই অধিনায়ক

সাকিব আল হাসান

মিষ্টি হেসে হাতও তুলেছেন সাকিব আল হাসান। সঙ্গে তিনি যদি বিজয়সূচক ‘ভি’ চিহ্নও দেখাতেন, দারুণ মানিয়ে যেত। শেষমেশ তিনিই তো বিজয়ী! বিনা অনুমতিতে একটি ক্রিকেট জুয়াসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের দূতিয়ালি করায় সাকিবকে নেতৃত্ব না দেওয়ার জোর আলোচনা হয়েছিল। কিন্তু গতকাল বিসিবি সভাপতির বাসভবন থেকে তিনি বেরিয়েছেন টি-টোয়েন্টির নেতৃত্বের মুকুট মাথায়।

বিজ্ঞাপন

বেটউইনার নিউজের সঙ্গে তাঁর চুক্তি করা নিয়ে এক সপ্তাহ ধরে উত্তাল দেশের ক্রিকেটাঙ্গন। স্বয়ং বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসানের বক্তব্যে

আভাস মিলেছিল আবার বুঝি শাস্তির খড়্গ নামবে সাকিবের ওপর। কিন্তু গতকাল ভোররাতে দেশে ফেরা দেশের শীর্ষ ক্রিকেট তারকা বিকেল সাড়ে ৫টায় বোর্ড সভাপতির বাসা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর বিসিবির ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস ঘোষণা করেন, ‘সাকিব আল হাসান এশিয়া কাপ, নিউজিল্যান্ড সফর (ত্রিদেশীয় সিরিজ) ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য অধিনায়ক থাকছেন। ’ এই সিদ্ধান্ত পুরনোই ছিল। বাংলাদেশ দল জিম্বাবুয়ে সফরে যাওয়ার আগেই টেস্টের মতো দীর্ঘ মেয়াদে টি-টোয়েন্টির নেতৃত্বও সাকিবকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত একরকম নিয়েই রাখা হয়েছিল। কিন্তু সাম্প্রতিক ঘটনাচক্রে সেই মেয়াদকাল সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে, দুই বছর থেকে সেটি নেমে এসেছে সাড়ে তিন মাসে। ‘বোর্ডের আগে থেকেই একটা সিদ্ধান্ত ছিল সাকিবকে নিয়ে। আজ (গতকাল) সে ব্যাপারে আবার আলোচনা হয়েছে এবং সে অনুযায়ী সাকিবকেই বিশ্বকাপ পর্যন্ত নেতৃত্ব দেওয়া হচ্ছে। পরবর্তী সময়ে আমরা আবার বিশ্বকাপের পর নতুন নেতৃত্বের বিষয়টি বিবেচনা করব’, জানিয়েছেন জালাল ইউনুস।

আর কোনো ‘শনিবার’ হলে সাকিবকে নেতৃত্ব দেওয়া নিয়ে প্রশ্নই উঠত না। কিন্তু তাঁর সর্বশেষ বাণিজ্যিক চুক্তির সমালোচনায় বোর্ডসহ পুরো দেশ যেভাবে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল, তাতে এই সময়ে সাকিবকে দলের নেতা বানানো নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এই পূর্বাভাস জানতেন বলেই কিনা ঘোষণা দিয়েই চলে যেতে উদ্যত হয়েছিলেন ক্রিকেট অপারেশনস চেয়ারম্যান। তবু প্রশ্ন গেছে তাঁর কাছে, এমন একটি চুক্তির পরও কেন সাকিবকে নেতৃত্ব দেওয়া হলো? উত্তরে বোর্ডের অবস্থান জানিয়েছেন জালাল, ‘এটা (বেটউইনার নিউজের সঙ্গে চুক্তি) নিয়ে অনেক আলাপ হয়েছে। সাকিব তার ভুল বুঝতে পেরেছে যে তার এমনটা করা উচিত হয়নি। আর সাকিব আমাদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটার। যেহেতু আমরা আগে থেকেই সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছিলাম যে সাকিবকে নেতৃত্ব দেওয়া হবে, তাই ওটাই করা হয়েছে। সাকিব প্রেসিডেন্টের (নাজমুল হাসান) সামনে এবং আমাদের সামনে বলে যে ওটাকে অনলাইন নিউজ পোর্টাল মনে করে ওটার সঙ্গে চুক্তি করেছে। তাকে বুঝিয়ে বলার পর সে কিন্তু সরে এসেছে। ’

তবে কি ‘যত ভালো খেলোয়াড় তত বেশি ছাড়’ নীতিতে চলবে দেশের ক্রিকেট প্রশাসন? উত্তরে পরোক্ষে সেটি একরকম স্বীকারও করেছেন জালাল, ‘এখানে আমাদের যুক্তি তো আছে। আমরা তো বলেছি সে (সাকিব) আমাদের সেরা ক্রিকেটার, সে দেশের বাইরের কেউ না। সে যখন বলেছে যে ভুল করেছে, আমরা মেনে নিয়েছি। পরবর্তী সময়ে যেন এমন ভুল না করে, সেটা তাকে বলা হয়েছে। সাকিবও মেনে নিয়েছে। ’

কিন্তু এটাই সাকিবের প্রথম ভুল নয়। নানা সময়ে বিসিবির সঙ্গে চুক্তির নানা শর্ত ভঙ্গ করেছেন তিনি। জুয়াড়ির সঙ্গে যোগাযোগের তথ্য গোপনের দায়ে সাকিবকে নিষিদ্ধও করেছিল আইসিসি। তিনি একটা ভুল করে সেটির সংশোধনের আশ্বাস দেন ঠিকই, তবে পরের ভুলটি আসে নতুন কোনো কাণ্ডে। বড় খেলোয়াড়কে বড় ছাড় দিয়ে নতুন ভুলের পথ তৈরি করে দেওয়া হচ্ছে কি না, এমন প্রশ্নে ক্রিকেট অপারেশনস চেয়ারম্যান বলেছেন, ‘এমন কিছু (সাকিবের সর্বশেষ ভুল) হলে আসলে কম্প্রোমাইজ করা উচিত না। কিন্তু দলের চিন্তা করে এবং সে যেহেতু বলেছে, এবার আমরা মেনে নিয়েছি। আশা করছি, পরবর্তী সময়ে এমন কিছু আর হবে না। ’

গতকাল আরেকটি ‘বিজয়’ হয়েছে সাকিব আল হাসানের। কোনো প্রতিষ্ঠানের দূতিয়ালি করার আগে সেটির অনুমোদন নিতে হয় বোর্ড থেকে। বেটউইনার নিউজের ক্ষেত্রে সেটি নেননি সাকিব। এই নিয়ম ভঙ্গের জন্যও তাঁর বিরুদ্ধে বোর্ডের কোনো ব্যবস্থা নেওয়ার সম্ভাবনা একরকম নেই। জালাল অবশ্য বলেছেন, ‘এটা (বেটউইনার নিউজের সঙ্গে চুক্তি) যেহেতু আমাদের অনুমতি ছাড়া চুক্তি করেছে...এ ব্যাপারে পরবর্তী বোর্ড সভায় আলোচনা করা হবে। ’

সেই আলোচনার ফল কী হতে পারে, সেটি বোধগম্য। পরের বোর্ড সভা শুরুর আগে এই আলোচনাই হারিয়ে যাবে ভোজবাজির মতো!



সাতদিনের সেরা