kalerkantho

শুক্রবার । ১ জুলাই ২০২২ । ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ । ১ জিলহজ ১৪৪৩

সাক্ষাৎকার

নৌকার গণজোয়ার চারদিকে

আরফানুল হক রিফাত, প্রতীক নৌকা

১৪ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নৌকার গণজোয়ার চারদিকে

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে গতকাল ছিল প্রচার-প্রচারণার শেষ দিন। আগামীকাল ভোট। প্রচার-প্রচারণার পুরো সময়েই হেভিওয়েট তিন মেয়র প্রার্থী পরস্পরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। নির্বাচিত হলে নগরবাসীর জন্য কী কী করবেন, দিয়েছেন সেসবের ফিরিস্তিও।

বিজ্ঞাপন

সাক্ষাৎকার নিয়েছেন এস এম আজাদআবদুর রহমান

 

কালের কণ্ঠ : ভোটের মাঠের পরিবেশ নিয়ে অন্য প্রার্থীরা অভিযোগ করছেন। আপনি কী মনে করছেন?

আরফানুল হক রিফাত : আমি মনে করি ভোটের মাঠের পরিবেশ দারুণ। এমন উৎসবমুখর পরিবেশ দেখে কুমিল্লার মানুষ আনন্দিত।

চারদিকে নৌকার গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে।  

 

কালের কণ্ঠ : সুষ্ঠু ভোট হওয়া নিয়ে আপনার মধ্যে কোনো উৎকণ্ঠা আছে?

আরফানুল হক রিফাত : উৎকণ্ঠার কিছু দেখছি না। কুমিল্লায় অবশ্যই সুষ্ঠু ভোট হবে।

 

কালের কণ্ঠ : ভোট সুষ্ঠু হলে ফলাফল যাই হোক, মেনে নেবেন?

আরফানুল হক রিফাত : অবশ্যই মেনে নেব। আর ভোট সুষ্ঠু হবে না, এমন উৎকণ্ঠা কুমিল্লার মানুষের মধ্যে নেই।

 

কালের কণ্ঠ : কুমিল্লায় আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে দ্বিধা-বিভক্তি আছে। মাসুদ পারভেজ খান ইমরান বিদ্রোহী প্রার্থী ছিলেন। যদিও পরে তিনি সরে গেছেন। তাঁর পক্ষের লোকজন কি আপনার পক্ষে কাজ করছেন?

আরফানুল হক রিফাত : নৌকার প্রশ্নে কুমিল্লায় আওয়ামী লীগের মধ্যে কোনো বিভেদ নেই। আমি মনে করি সবাই নৌকার জন্য কাজ করছেন। কারো বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নেই।

 

কালের কণ্ঠ : সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে আপনি বলেছেন, আপনার কাছে প্রমাণ আছে। তাহলে আগে বলেননি কেন?

আরফানুল হক রিফাত : আগে হাতে প্রমাণ ছিল না, তাই বলিনি। কারণ তিনি ক্ষমতায় থাকার সময় নিজের দুর্নীতি লুকিয়ে রাখতে তৎপর ছিলেন। এখন তিনি সাবেক মেয়র, এ জন্য তাঁর দুর্নীতির অনেক প্রমাণ হাতে এসেছে।   

 

কালের কণ্ঠ : আপনি নির্বাচিত হলে সাক্কুর বিরুদ্ধে শ্বেতপত্র প্রকাশের কথা বলছেন। পরাজিত হলেও কি এই অভিযোগগুলো নিয়ে কথা বলবেন?

আরফানুল হক রিফাত : আমি দুর্নীতির বিরুদ্ধে সব সময় সোচ্চার। নির্বাচিত হলে আমি প্রথমেই তাঁর দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করব। আর যদি মেয়র নির্বাচিত হতে না পারি, তার পরও দুর্নীতির বিরুদ্ধে আমার অবস্থান একই থাকবে।

 

কালের কণ্ঠ : বিএনপির দুই নেতা সাক্কু ও কায়সার নির্বাচন করছেন। এটা কি আপনার জন্য বাড়তি সুবিধা?

আরফানুল হক রিফাত :  আমার কাছে সবাই সমান। আমি কাউকে ছোট করে দেখছি না। আশা করছি, একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে আমাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে।

 

কালের কণ্ঠ : নির্বাচিত হলে আপনি নগরবাসীর জন্য প্রথম কোন কাজটি করবেন?

আরফানুল হক রিফাত : কুমিল্লার মানুষের সবচেয়ে বড় সমস্যা জলাবদ্ধতা ও যানজট। নির্বাচিত হলে আমি এক বছরের মধ্যে জলাবদ্ধতা ও যানজট সমস্যার সমাধান করব।

 

কালের কণ্ঠ : ব্যস্ততার মধ্যে সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

আরফানুল হক রিফাত : কালের কণ্ঠকেও ধন্যবাদ।



সাতদিনের সেরা