kalerkantho

বুধবার ।  ২৫ মে ২০২২ । ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৩ শাওয়াল ১৪৪৩  

ভোট দিয়ে শামীম ওসমান

নৌকা বিজয়ী হলে অবদান জনগণের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



নৌকা বিজয়ী হলে অবদান জনগণের

শামীম ওসমান

‘নৌকার বিজয় হলে সম্পূর্ণ অবদান জনগণের। আমার এক ফোঁটা অবদানও নেই। আমি একটা ভোট দিয়েছি। এটিই আমার অবদান জনগণ হিসেবে।

বিজ্ঞাপন

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট দিয়ে এমনটাই বললেন জাতীয় সংসদে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। গতকাল রবিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় আদর্শ বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, ‘আল্লাহর রহমতে নারায়ণগঞ্জে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হয়েছে। আমাদের বুকে রক্তক্ষরণ হয়, যখন বারবার নারায়ণগঞ্জ নিয়ে কথা ওঠে যে নারায়ণগঞ্জে এই হয়েছে, ওই হয়েছে, এই হবে, ওই হতে পারে। কিন্তু জাতীয় সংসদ নির্বাচন, সিটি করপোরেশন নির্বাচন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন—কোনো নির্বাচনেই কিন্তু নারায়ণগঞ্জে ধাক্কাধাক্কি পর্যন্ত হয়নি। তাই আমি দুঃখিত, সাংবাদিকরা কোনো তথ্য-উপাত্ত পাননি।

আওয়ামী লীগের এই সংসদ সদস্য বলেন, ‘নির্বাচনে একজন জিতবেন, আরেকজন হারবেন। কিন্তু দেশটা তো আমাদের সবার। সবাই মিলে দেশটা গড়তে হবে। ’

দেশের অগ্রযাত্রা ঠেকাতে ষড়যন্ত্র চলছে—এমন আশঙ্কা প্রকাশ করে শামীম ওসমান বলেন, ‘দেশটা এগিয়ে যাচ্ছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। আমার মনে হচ্ছে, সামনে এই এগিয়ে যাওয়াটাকে স্তব্ধ করতে, বিশেষ করে এই অগ্রগতিকে থামিয়ে দিতে আমাদের ভৌগোলিক কারণে দেশে-বিদেশে আন্তর্জাতিক মহল ব্যাপক ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে। ’

শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি আশা করব, এই নির্বাচনে যাঁকে আমি ভোট দিয়েছি, সেই নৌকা মার্কা জয়ী হবে। ’

আইভী রহমানের নাম উল্লেখ না করে সাংবাদিকরা জানতে চান, ‘আপনার বোন সম্পর্কে কোনো পরামর্শ আছে কি না?’ জবাবে শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি নৌকার নির্বাচন করেছি। আমি অন্য কারো নির্বাচন করিনি। আমি নৌকার কথা বলেছি। হৃদয়ে রক্তক্ষরণ আছে, কষ্ট আছে, দুঃখ আছে। ’

নারায়ণগঞ্জের সরকারদলীয় এই সংসদ সদস্য বলেন, ‘জাতির পিতার কন্যা শেখ হাসিনা পাঁচ বছর আগে একটি মিটিংয়ে বলেছিলেন, শামীম, আমি নীলকণ্ঠী। আমি বিষ খেয়ে হজম করি। আই অ্যাম অ্যা সোলজার অব শেখ হাসিনা। যুদ্ধের ময়দানে সেনাপ্রধান যেভাবে নির্দেশ দেবেন, সৈনিক সেভাবে যুদ্ধ করবে। সেটিই তার কর্ম। ’

শামীম ওসমান বলেন, ‘উনি জাতির পিতার কন্যা। তিনি যদি নীলকণ্ঠী হতে পারেন, আমারও নীলকণ্ঠী হওয়ার চেষ্টা করা উচিত। কিন্তু আমি তো জাতির পিতার সন্তান না। তাঁর মতো এত কষ্ট সহ্য করার ক্ষমতাও আমার নেই। এ কারণে হয়তো বলে ফেলি, অনেক কষ্ট লাগছে, অনেক কষ্ট লেগেছে। ’

শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘আমি শুধু একটি কথাই বলব, যারা কষ্ট দিয়েছে এবং এখন...আল্লাহ রাব্বুল আলামিন যেন তাদের হিদায়াত করেন এবং তাদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করেন। ’

নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে প্রার্থীর প্রয়োজন বেশি নাকি প্রতীকের—জানতে চাইলে শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি মনে করি, মানসিকতার প্রয়োজন বেশি। ’

প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন, না প্রতীকের পক্ষে কাজ করেছেন—এ প্রশ্নের জবাবে শামীম ওসমান বলেন, ‘আমি সারা জীবন প্রতীকের পক্ষে কাজ করেছি। ’

শামীম ওসমান বলেন, ‘নির্বাচনের আগে যাঁরা গরিবের কাছে হাত পেতে ভোট চেয়েছেন নির্বাচনের পর গরিবের পেটে যাতে কেউ লাথি না মারেন, এটিই আমার অনুরোধ। ’

কোনো কারণে যদি প্রতীক ফেল করে এর দায় তাঁর ওপর আসবে কি না জানতে চাইলে শামীম ওসমান বলেন, ‘না, আমার কাছে আসবে না। দেখেন, কষ্ট সহ্য করার একটা ব্যাপার আছে। আমি সেই ব্যাপারটা এখন বলব না। ’

আইভী বলেন, ‘আমি প্রতিদিন মনে করি, আজ আমার শেষ দিন। আগামী ফেব্রুয়ারির ২৮ তারিখ ৬০ পার হয়ে ৬১টিতে পা দেব। আমাদের বাড়ির পুরুষ মানুষরা কেউ-ই বেশি দিন বাঁচেননি। আমার আব্বা, বড় ভাই, দাদু সবাই ৬০-৬৫ বছর বয়সে চলে গেছেন। সে কারণে আমার ভেতরেও মনস্তাত্ত্বিক ব্যাপার আছে যে আমারও চলে যাওয়ার সময় হয়েছে।

আইভী ভোট চেয়েছেন কি না জানতে চাইলে শামীম ওসমান বলেন, ‘উনি জানেন যে উনি যদি ভোট না-ও চান, আমি সবার কাছে উনার ভোট চাইব। ’ একই প্রশ্নে আবার করলে বলেন, ‘না, আমার কাছে উনি ভোট চাননি। ’

নৌকার প্রার্থী যদি হারে, প্রার্থী হারবে না নৌকা হারবে?—এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নৌকার প্রার্থী হারবে না। ‘যদি’ বলতে কোনো কথা নেই। ’

এর আগে ইভিএমে ভোট দেওয়ার পর বাইরে এসে একজন সাংবাদিককে শামীম ওসমান বলেন, “আমার বউ যখন ‘কবুল’ বলেছিল, সে রকম আনন্দ হলো ইভিএমে ভোট দিয়ে। ”

 

 



সাতদিনের সেরা