kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ মাঘ ১৪২৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২২। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

লাল কার্ড দেখাল শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



লাল কার্ড দেখাল শিক্ষার্থীরা

সড়কে দুর্নীতি ও লুটপাটে জড়িতদের লাল কার্ড দেখানোর কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। গতকাল রামপুরা থেকে তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

নিরাপদ সড়কের দাবিতে গতকাল শনিবার সকালে রাজধানীর রামপুরা এলাকায় মানববন্ধন ও লাল কার্ড দেখানোর কর্মসূচি পালন করেছে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। তবে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা আলাদাভাবে এই দুই কর্মসূচি পালন করে।

আজ রবিবার দুপুর ১২টায় আবদুল্লাহ মেহেদীর নেতৃত্বে শাহবাগে প্রতীকী লাশের মিছিল করবে নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের (নিসআ) শিক্ষার্থীরা। আর একই সময় সোহাগী সামিয়ার নেতৃত্বে একদল শিক্ষার্থী রামপুরায় মানববন্ধন ও ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

রাজধানীতে শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলন চলা অবস্থায় চট্টগ্রাম নগরীতে শিক্ষার্থীদের জন্য কয়েক দিনের মধ্যে গণপরিবহনে হাফ ভাড়া চালু হতে যাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের মহাসচিব বেলায়েত হোসেন বেলাল গতকাল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আগামীকাল আমাদের কেন্দ্রীয় এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন সংগঠনের নেতাদের উপস্থিতিতে কখন থেকে হাফ ভাড়া কার্যকর করা হবে, তার ঘোষণা আসবে।’ 

এদিকে সারা দেশে সড়ক, রেল, নৌপথে সব ধরনের গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের অর্ধেক ভাড়ায় যাতায়াতের সুযোগ প্রদানের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। একই সঙ্গে সাধারণ যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধ করে সরকার নির্ধারিত ভাড়া কার্যকর করার দাবি জানানো হয়।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাজধানীতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা গতকাল দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত রামপুরা সেতুর একপাশে দাঁড়িয়ে হাতে লাল কার্ড তুলে ধরে সড়কের অনিয়মের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায়। সেখান থেকে আজকের মানববন্ধন ও ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

একই স্থানে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা ২০ মিনিট পর্যন্ত নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের নেতৃত্বে মানববন্ধন করে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আরেকটি অংশ। মানববন্ধন থেকে সংগঠনটির যুগ্ম আহ্বায়ক আবদুল্লাহ মেহেদী বলেন, ‘আমরা সারা দেশে বাস, ট্রেন, লঞ্চসহ সব ধরনের গণপরিবহনে হাফ পাস চাই। আস্তে আস্তে সারা দেশে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।’ তিনি বলেন, ‘আজকেও আমাদের এক ভাই সড়কে মারা গেছে। নিরাপদ সড়কের দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে সারা দেশে কর্মসূচির ঘোষণা দিব।’

জ্বালানি তেলের দাম বাড়ার কারণে গত ৭ নভেম্বর থেকে ঢাকাসহ সারা দেশে বাসের ভাড়া গড়ে ২৭ শতাংশ বাড়ানো হয়। শিক্ষার্থীদের জন্য গণপরিবহনে অর্ধেক ভাড়া নিশ্চিত করতে গত ১১ নভেম্বর বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষকে (বিআরটিএ) একটি স্মারকলিপি দেয় নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের (নিসআ) সঙ্গে যুক্ত শিক্ষার্থীরা।

সেদিন থেকেই অর্ধেক ভাড়ার দাবিতে সড়কে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন শুরু হয়। আন্দোলনের মধ্যে গত ২৪ নভেম্বর ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির চাপায় নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসান নিহত হলে অর্ধেক ভাড়ার সঙ্গে আন্দোলনে নিরাপদ সড়কের দাবি যুক্ত হয়।

গত সোমবার রাতে রামপুরায় বাসের চাপায় এসএসসি পরীক্ষার্থী মো. মাঈনুদ্দিন নিহত হওয়ার পর প্রতিদিনই রামপুরা এলাকায় অবস্থান নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে যাচ্ছে ওই এলাকার শিক্ষার্থীরা। এই অবস্থানে নেতৃত্ব দিচ্ছেন খিলগাঁও মডেল কলেজের শিক্ষার্থী সোহাগী সামিয়া।

গতকাল লাল কার্ড দেখানোর কর্মসূচিতে সোহাগী বলেন, ‘সড়কে একের পর এক মৃত্যু কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। সরকারি-বেসরকারি কর্তৃপক্ষরা দুর্নীতিপরায়ণ হয়ে উঠেছে। যার ফলে আমরা দেখতে পাই রাস্তায় ফিটনেসবিহীন, লাইসেন্সবিহীন গাড়ি ও অপেশাদার চালক নিয়োগ দেওয়া হয়। গাড়ির চালকরা অনেক কষ্টে দারিদ্র্যের মধ্যে জীবন যাপন করে থাকে। তাদের দারিদ্র্যের সুযোগ নিচ্ছে যারা, তারাই রাষ্ট্রে দুর্নীতি কায়েম করছে।’

চট্টগ্রামে অর্ধেক ভাড়ার ঘোষণা আজ

চট্টগ্রাম থেকে কালের কণ্ঠের প্রতিবেদক জানান, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের মহাসচিব বেলায়েত হোসেন বেলাল কালের কণ্ঠকে বলেছেন, অর্ধেক ভাড়ার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। আজ রবিবার মালিক গ্রুপের কেন্দ্রীয় এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন সংগঠনের নেতাদের উপস্থিতিতে এ ব্যাপারে ঘোষণা দেওয়া হবে।

নগরের বিভিন্ন মালিক সংগঠন সূত্রে জানা গেছে, মালিক সমিতির চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাতে আজ সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহসহ নেতারা থাকবেন। এখান থেকে ঘোষণা আসতে পারে আগামী ১১ ডিসেম্বর থেকে চট্টগ্রাম মহানগরে হাফ ভাড়া কার্যকর করার।

মালিক সংগঠনের কয়েকজন নেতা বলেছেন, চট্টগ্রামের পর দেশের অন্যান্য বিভাগীয় শহরেও শিক্ষার্থীদের জন্য গণপরিবহনে অর্ধেক ভাড়া কার্যকর করা হবে।

যাত্রী কল্যাণ সমিতির ২০ দফা সুপারিশ

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সামনে গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে যাত্রী কল্যাণ সমিতির  মহাসচিব মো. মোজাম্মেল হক চৌধুরী ২০ দফা সুপারিশ পেশ করেন। মোজাম্মেল হক বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের দীর্ঘদিন আন্দোলনের পর প্রথমে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী সারা দেশের বিআরটিসি বাসে এবং পরে বাস মালিক সমিতি ঢাকা মহানগরীতে শিক্ষার্থীদের হাফ পাসের সুবিধা দেওয়ার ঘোষণা দিলেও তা এখনো পুরোপুরি কার্যকর হয়নি। রাজধানীর অনেক বাসে শিক্ষার্থীদের উঠানো হচ্ছে না। অনেক বাসে অর্ধেক ভাড়া নেয় না। শিক্ষার্থীরা হাফ ভাড়া দিলে তাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হচ্ছে। অনেক শিক্ষার্থী বাস থেকে নামার সময় ধাক্কা দিচ্ছে।’



সাতদিনের সেরা