kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

এক সপ্তাহে সর্বোচ্চ মৃত্যু ১৬৩৯

২৪ ঘণ্টায় আরো ২১৮ শনাক্ত বাড়ল ৫৮%

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এক সপ্তাহে সর্বোচ্চ মৃত্যু ১৬৩৯

এক সপ্তাহের ব্যবধানে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসাবে শনাক্তের হার বেড়েছে প্রায় ৫৮ শতাংশ। সেই সঙ্গে মৃত্যু বেড়েছে ১৯ শতাংশ, যার প্রভাবে আক্রান্ত ও মৃত্যু বিপজ্জনক পর্যায়েই আছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যানুসারে আগের ২৪ ঘণ্টায় ২১২ জনের মৃত্যু হলেও গতকাল শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১৮ জনে। অবশ্য ছুটির দিন শুক্রবার অনেক ল্যাব ও বুথ বন্ধ থাকায় পরীক্ষা কম হওয়ায় শনাক্ত আগের দিনের তুলনায় কমে হয়েছে ৯ হাজার ৩৬৯ জন। তবে সুস্থতা বেড়ে হয়েছে ১৪ হাজার ১৭ জন। সব মিলিয়ে এ পর্যন্ত দেশে মোট শনাক্ত ১২ লাখ ৪৯ হাজার ৪৮৪ জন। মারা গেছে ২০ হাজার ৬৮৫ জন, সুস্থ হয়েছে ১০ লাখ ৭৮ হাজার ২১২ জন। আর দৈনিক শনাক্তের হার আগের দিনের মতোই ৩০ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রতিবেদন অনুসারে ২৯তম সপ্তাহে (১৮-২৪ জুলাই) নমুনা পরীক্ষা দুই লাখ দুই হাজার ১১৩টি, শনাক্ত ৬০ হাজার ৯৩৩, মৃত্যু এক হাজার ৩৭৭, সুস্থতা ছিল ৬৫ হাজার ১৭৬; যা সব সূচকেই বেড়ে সপ্তাহান্তে ৩০তম সপ্তাহে (২৪-৩১ জুলাই) পরীক্ষা হয়েছে তিন লাখ ২৩ হাজার ২০০টি। এর মধ্যে শনাক্ত হয়েছে ৯৬ হাজার ১৪০ জন, মারা গেছে এক হাজার ৬৩৯ জন, সুস্থ হয়েছে ৮৯ হাজার ৮৭৩ জন। অর্থাৎ দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে এক সপ্তাহের হিসাবে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে গেল সপ্তাহে (২৪-৩১ জুলাই)।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যানুসারে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ২১৮ জনের মধ্যে ১৩৪ জন পুরুষ, ৮৪ জন নারী। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ৬৭ জন মারা গেছেন ঢাকায়। এরপর ৫৫ জন চট্টগ্রামে, ২৭ জন খুলনায়, ২২ জন রাজশাহীতে, ১৬ জন রংপুরে, ১২ জন ময়মনসিংহে, ১০ জন বরিশালে এবং ৯ জন সিলেটে।

এর মধ্যে ১০ বছরের নিচে এক শিশু, ২১ থেকে ৩০ বছরের ছয়জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের ১৭ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের ৩৭ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের ৩৭ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের ৬৬ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের ৩৩ জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের ১৫ জন, ৯১ থেকে ১০০ বছরের চারজন, ১০০ বছরের বেশি বয়সী দুজন। এর মধ্যে ১৫৬ জন সরকারি হাসপাতালে, ৪৯ জন বেসরকারি হাসপাতালে এবং ১৩ জন বাসায় মারা গেছে।

শনাক্তের হার অনুসারে গতকাল সর্বোচ্চ ৪৭ শতাংশ ছিল বরিশালে, ৩৫ শতাংশ সিলেট ও চট্টগ্রামে, ৩২ শতাংশ ঢাকায়, ২৮ শতাংশ খুলনায়, ২৬ শতাংশ রংপুরে, ২৪ শতাংশ ময়মনসিংহে এবং ১২ শতাংশ রাজশাহীতে।



সাতদিনের সেরা