kalerkantho

শুক্রবার । ৪ আষাঢ় ১৪২৮। ১৮ জুন ২০২১। ৬ জিলকদ ১৪৪২

পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয় দফার ভোটে কঠিন পরীক্ষা বিজেপির

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয় দফার ভোটে কঠিন পরীক্ষা বিজেপির

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনের তৃতীয় দফায় গতকাল মঙ্গলবার ভোট নেওয়া হয়েছে। গতকালের এ ভোটকে কেন্দ্র করেও প্রাণহানি ঘটেছে। আগের দুইবারের মতো এবারও প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেস ও বিজেপির কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে বিক্ষিপ্ত কিছু সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

যদিও অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ নিশ্চিত করতে নির্বাচনী এলাকাগুলোতে নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করে নির্বাচন কমিশন। ভোটকেন্দ্রে জারি করা হয় ১৪৪ ধারা।

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, হাওড়া ও হুগলি তৃণমূল-অধ্যুষিত এ তিন জেলার ৩১টি আসনে গতকালের ভোটের লড়াই বিজেপির জন্য কঠিন পরীক্ষা। এদিনের ভোটে ভাগ্য নির্ধারণ হবে ১০ হেভিওয়েট প্রার্থীরও। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন বিধানসভার সাবেক স্পিকার তৃণমূলের বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, তৃণমূলের চিকিৎসক সংগঠনের প্রধান ও সাবেক মন্ত্রী নির্মল মাজি, টালিউড তারকা পাপিয়া অধিকারী, তনুশ্রী চক্রবর্তী প্রমুখ।

হুগলি জেলার গোঘাটে ভোট দিয়ে ফেরার সময় সুনীল রায় (৭২) নামে এক তৃণমূল নেতাকে বিজেপির নেতাকর্মীরা ধাক্কা মেরে ফেলে দেন বলে অভিযোগ। পরে তিনি মারা যান। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে গেরুয়া শিবির।

স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় শুরু হয়ে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়। এই ৩১টি আসনে সর্বশেষ ২০১৬ সালে বিধানসভা নির্বাচনে ৩০টিতে জিতেছিল তৃণমূল, একটিতে কংগ্রেস। আর ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের ক্ষেত্রে এসব আসনের মধ্যে আটটিতে এগিয়ে ছিল বিজেপি।

রাজ্যে হঠাৎ করে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ভোটকেন্দ্রগুলোতে পর্যাপ্ত সুরক্ষাব্যবস্থা নেওয়া হয়। তাপমাত্রা মেপে ভোটকেন্দ্রে যেতে হয় ভোটারদের। ব্যবহার করতে হয় স্যানিটাইজারও।

রাজ্যের ২৯৪টি আসনের মধ্যে প্রথম দফায় ৩০টি এবং দ্বিতীয় দফায়ও ৩০টি আসনে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। গতকালের ৩১টিসহ এ পর্যন্ত ৯১ আসনে ভোট সম্পন্ন হলো।

দ্বিতীয় দফার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দুজনের প্রাণহানি ঘটেছিল। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

 

 



সাতদিনের সেরা