kalerkantho

সোমবার । ১৩ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১০ সফর ১৪৪২

কক্সবাজারে সেনা ও পুলিশ প্রধান

দুই বাহিনীর আস্থায় চিড় ধরবে না

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

৬ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



দুই বাহিনীর আস্থায় চিড় ধরবে না

মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের মৃত্যুর ঘটনায় যৌথ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ এবং পুলিশের মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদ। গতকাল কক্সবাজারের লাবনী পয়েন্টে সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়। ছবি : আইএসপিআর

সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেছেন, কক্সবাজারের মেরিন ড্রাইভে পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ নিহতের ঘটনাটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। তাঁর হত্যাকাণ্ড নিয়ে রাষ্ট্রের দুই গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর মধ্যে ভুল-বোঝাবুঝি সৃষ্টির কোনো সুযোগ নেই। সবাইকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

গতকাল বুধবার বিকেলে কক্সবাজার সৈকতে অবস্থিত সেনাবাহিনীর রেস্ট হাউস জলতরঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে সেনাপ্রধান এ কথা বলেন। এ সময় তাঁর পাশে বসে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদও সাংবাদিকদের একই কথা বলেন।

গত ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের যেখানে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা নিহত হন, গতকাল সংবাদ সম্মেলনের পর সেই বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে যান জেনারেল আজিজ আহমেদ ও বেনজীর আহমেদ। তাঁরা কক্সবাজারে দায়িত্বরত পুলিশ ও সেনাবাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গেও বৈঠক করেন।

সংবাদ সম্মেলনে সেনাপ্রধান বলেন, ওই ঘটনায় দায়ী হিসেবে যে বা যারা চিহ্নিত হবে, তাদের শাস্তি হবে। এর দায় বাহিনীর ওপর পড়বে না। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উসকানি দিয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশের সম্পর্কে যেন কেউ চিড় ধরাতে না পারে সে জন্য সবাইকে সজাগ থাকতে বলেছেন আজিজ আহমেদ ও বেনজীর আহমেদ।

সেনাপ্রধান বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এরই মধ্যে একটি তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। কমিটির প্রতি সেনাবাহিনী ও পুলিশের পূর্ণ আস্থা রয়েছে। কমিটি যাদের দোষী সাব্যস্ত করবে অবশ্যই তাদের প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে। তদন্তের ক্ষেত্রে কোনো প্রতিষ্ঠান কারো পক্ষ নেবে না। কোনো প্রতিষ্ঠান কারো প্রতিপক্ষও হবে না। ওই ঘটনায় সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর সম্পর্কের মধ্যে কোনো ধরনের ফাটল সৃষ্টি হবে না।

জেনারেল আজিজ বলেন, ‘যে ঘটনাটা ঘটেছে সে জন্য সেনাবাহিনী মর্মাহত এবং পুলিশ বাহিনীও মর্মাহত। যে মেসেজটা আমরা দিতে চাই তা হচ্ছে—আমরা এটাকে একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা হিসেবে দেখতে চাই।’

পুলিশ প্রধান বেনজীর আহমেদ বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে গঠিত যৌথ তদন্ত কমিটি প্রভাবমুক্ত পরিবেশে তদন্ত করবে। তারা তদন্ত করে যে প্রতিবেদন দেবে সে অনুযায়ী পরবর্তী আইনি কার্যক্রম পরিচালিত হবে এবং সেটাই গ্রহণ করা হবে। তিনি বলেন, ওই ঘটনা নিয়ে অনেকেই উসকানিমূলক কথাবার্তা বলছে। এসব বলে তারা সফল হতে পারবে না। কারণ সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। গত ৫০ বছরে দেশের অনেক ক্রাইসিস মুহূর্তে এই দুটি বাহিনী কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করেছে।

তিনি বলেন যারা বিভিন্ন উসকানিমূলক কথা বলে দুই বাহিনীর মধ্যে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে তারা কখনো সফল হবে না। তিনি দেশের স্বার্থে এ ধরনের কোনো কথাবার্তা না বলার অনুরোধ জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা