kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ১ ডিসেম্বর ২০২০। ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

মোরেলগঞ্জে ইউপি সদস্যের চোখ ক্ষতবিক্ষত করল দুর্বৃত্তরা

বাগেরহাট ও মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি   

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোরেলগঞ্জে ইউপি সদস্যের চোখ ক্ষতবিক্ষত করল দুর্বৃত্তরা

বাগেহাটের মোরেলগঞ্জের শেখপাড়া বাজার এলাকায় গত সোমবার রাতে ইউপি সদস্য ও যুবলীগ নেতা নাজমুল হাসান রানার (৪০) দুই চোখ খুঁচিয়ে ক্ষতবিক্ষত করেছে দুর্বৃত্তরা। সংকটাপন্ন অবস্থায় তাঁকে প্রথমে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিত্সার জন্য তাঁকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় রানার ভাই ফারুক হাওলাদার বাদী হয়ে ১৫ জনকে আসামি করে মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন। এরই মধ্যে শাহাজালাল আকন (৩৫) নামের এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আক্রান্ত রানা বারইখালী ইউনিয়নের শেখপাড়া গ্রামের নুর আলী হাওলাদারের ছেলে এবং ওই ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য।

রানার স্ত্রী মুকুল বেগম বলেন, ‘আসন্ন বাগেরহাট-৪ আসনের উপনির্বাচনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী আমিরুল আলম মিলনের সঙ্গে দেখা করে বাড়ি ফেরার পথে পরিকল্পিতভাবে হামলা করেছে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। তারা রানার দুটি চোখ ধারালো অস্ত্র দিয়ে খুঁচিয়ে ক্ষতবিক্ষত করেছে।’

উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও মোরেলগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক মোজাম বলেন, ‘গত  সোমবার রাতে বাড়ি ফেরার পথে ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিতভাবে হামলা চালিয়ে রানার হাত-পা ভেঙে দুই চোখ ক্ষতবিক্ষত করেছে। রানার ওপর হামলাকারী যে দলেরই হোক তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত বিচার দাবি জানাচ্ছি।’

মোরেলগঞ্জ থানার ওসি কে এম আজিজুল ইসলাম বলেন, অভিযান চালিয়ে মামলার এজাহারভুক্ত এক আসামিকে  গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের ধরতে পুলিশের একাধিক দল মাঠে কাজ করেছে। রানার সঙ্গে প্রতিবেশী রাসেল কাজী, ডালিমসহ কয়েকজনের মত্স্যঘের নিয়ে শত্রুতা রয়েছে। ওই বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষরা পরিকল্পিতভাবে রানার ওপর হামলা চালায়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা