kalerkantho

সোমবার । ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ১ পোষ ১৪২৬। ১৮ রবিউস সানি                         

এবার উল্লাপাড়ায় ট্রেন লাইনচ্যুত পুড়েছে ৫ বগি

রেলকর্মীসহ আহত ২৫

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা; সিরাজগঞ্জ ও উল্লাপাড়া প্রতিনিধি   

১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



এবার উল্লাপাড়ায় ট্রেন লাইনচ্যুত পুড়েছে ৫ বগি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া রেলস্টেশনের কাছে আন্ত নগর রংপুর এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত হয়। এ সময় পাঁচটি বগিতে আগুন ধরে যায়। ছবি : কালের কণ্ঠ

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে ঈশ্বরদী-ঢাকা রেলপথে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া রেলস্টেশনের আগে লেভেলক্রসিংয়ে রংপুর আন্ত নগর এক্সপ্রেস ট্রেন লাইনচ্যুতির ঘটনায় আহত হয়েছে ২৫ জন। এ সময় ট্রেনের ইঞ্জিন বিচ্ছিন্ন হয়ে রেলপথের পাশে উল্টে পড়ে এবং আগুন ধরে যায়। পরে ওই আগুন লাইনচ্যুত ট্রেনের আরো তিনটি বগিতে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় যাত্রীরা দ্রুত জানালার কাচ ভেঙে এবং দরজা দিয়ে বেরিয়ে আসে। যাত্রীদের উদ্ধারে এগিয়ে আসা স্থানীয় লোকজন জানায়, স্টেশনের কাছে আসার পরই বিকট শব্দে ট্রেনটি দুলছিল। এ সময় ধোঁঁঁয়ায় চারদিক আচ্ছন্ন হয়ে যায়, প্রচণ্ড চাপে এসি বগির দরজা ও জানালা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। ভেতরে আটকে পড়া যাত্রীদের দম বন্ধ হয়ে আসছিল, তারা ‘বাঁঁচাও বাঁচাও’ বলে চিৎকার করছিল আতঙ্কে। উদ্ধারে এগিয়ে আসা স্থানীয় লোকজন পাথর মেরে জানালার কাচ ভেঙে তাদের উদ্ধার করে।  

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুর্ঘটনায় ট্রেনটির লোকো মাস্টার, সহকারী লোকো মাস্টারসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়। ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রংপুর মিটার গেজের এ এক্সপ্রেসটি ঢাকা থেকে লালমনিরহাট যাচ্ছিল। উল্লাপাড়া লেভেলক্রসিংয়ের ৫০ মিটার দূরে রেলপথ পরিবর্তনের স্থানে ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়। খবর পেয়ে উল্লাপাড়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দুর্ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে।

পরে সিরাজগঞ্জ ও কামারখন্দ ফায়ার স্টেশনের কর্মীরা আগুন নেভানো এবং উদ্ধার অভিযানে অংশ নেন। উল্লাপাড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে যাত্রীদের মালপত্র হেফাজতের জন্য ট্রেনটি ঘিরে রাখে। সিরাজগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের উপপরিচালক মঞ্জিল হক ঘটনাস্থল থেকে জানান, দুর্ঘটনার পর আধাঘণ্টার মধ্যে আগুন নেভানো সম্ভব হয়েছে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছে, রেলপথের ত্রুটির কারণে এবং সিগন্যাল ভুলের কারণে ট্রেনটি দুর্ঘটনার শিকার হয়। তবে উল্লাপাড়ায় দায়িত্বরত সহকারী স্টেশন মাস্টার রফিকুল ইসলাম সিগন্যাল ভুলের বিষয়টি অস্বীকার করেন। তাঁর দাবি, রেলপথের ত্রুটির কারণে দুর্ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে। 

এদিকে দুর্ঘটনার পর দুপুর ২টা থেকে রাজধানী ঢাকার সঙ্গে দক্ষিণ ও উত্তরাঞ্চলের ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ ছিল। অন্যদিকে উল্লাপাড়া লেভেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনাকবলিত ট্রেনের কয়টি বগি দাঁড়িয়ে থাকায় প্রায় দুই ঘণ্টা পাবনা-বগুড়া ও পাবনা-ঢাকা মহাসড়কে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে।

এদিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মন্দবাগে ভয়াবহ দুর্ঘটনার কয়েক দিনের ব্যবধানে গতকাল বৃহস্পতিবার সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেন দুর্ঘটনার খবরে রেলপথ মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ রেলওয়ের কর্মকর্তারা বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। রেলসচিব মোফাজ্জেল হোসেন কালের কণ্ঠকে জানান, পয়েন্ট সিন না থাকায় ট্রেন নির্দিষ্ট লাইনে চলছিল না। বাংলাদেশ রেলওয়ের একাধিক কর্মকর্তা জানান, উল্লাপাড়ার এই রেলপথটি মেরামত চলছিল। মেরামতকাজ চললে তা আশপাশের স্টেশন মাস্টারদের অবহিত করতে হয়। সে মোতাবেক ট্রেন চালানোর গতি নিয়ন্ত্রণসহ সতর্কতা অবলম্বন করা হয়নি। এ কারণে দায়িত্বে অবহেলার দায়ে জড়িতদের গ্রেপ্তারও করা হতে পারে। তবে কী কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে তার তদন্ত শুরু হয়েছে। এ জন্য তিনটি কমিটি করা হয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে সূত্র জানায়, রংপুর এক্সপ্রেস দুর্ঘটনা তদন্তে রেলওয়ের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়, পাকশী প্রধান কার্যালয় ও সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসন তিনটি আলাদা কমিটি গঠন করেছে। সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ফিরোজ মাহমুদকে প্রধান করে কমিটি গঠন করেছে।

রেলের পাকশী বিভাগের প্রধান কার্যালয়ের বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা আব্দুল আল মামুনকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া পশ্চিম রেলের প্রধান পরিচালনা তত্ত্বাবধায়ক শহিদুল ইসলামকে প্রধান করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকামুখী রংপুর এক্সপ্রেস লাইনচ্যুত হওয়ার পর থেকে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে ট্রেন যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তাতে সারা দেশের সঙ্গে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকে। পরে উদ্ধারকাজ শেষ করে এই পথে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করতে ছয় ঘণ্টা সময় লেগে যায় বলে বাংলাদেশ রেলওয়ে সূত্র জানিয়েছে।

ঢাকা-রাজশাহী ট্রেনযাত্রা বাতিল

রাজশাহী থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ‘রংপুর এক্সপ্রেস’ ট্রেনটি লাইনচ্যুত হওয়ায় রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী আন্ত নগর ‘পদ্মা এক্সপ্রেস’ ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়। গতকাল বিকেল ৪টায় রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়। তবে ঢাকাগামী ট্রেন ব্যতীত সব ট্রেনের সময়সূচি অপরিবর্তিত ছিল।

রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের ম্যানেজার আব্দুল করিম বলেন, সিরাজগঞ্জে ট্রেন দুর্ঘটনার পর উদ্ধারকাজ শুরু এবং শেষ হতে গভীর রাত পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। তাই আপাতত ঢাকাগামী আন্ত নগর ট্রেন পদ্মা এক্সপ্রেসের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। যাত্রা বাতিলের কারণে ট্রেনযাত্রীদের টাকা ফেরত দেওয়া হয়েছে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা