kalerkantho

ডেঙ্গু তরুণ প্রজন্মকে ঘায়েল করেছে বেশি

আরো তিনজনের মৃত্যু ► ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি ২৩২৬

তৌফিক মারুফ   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৮ মিনিটে



ডেঙ্গু তরুণ প্রজন্মকে ঘায়েল করেছে বেশি

রাজধানীর মুগদা হাসপাতালে চলছে ডেঙ্গু আক্রান্ত এই শিশুর চিকিৎসা

এবারের ডেঙ্গু রোগের রয়েছে নানামুখী নতুনত্ব। বিশেষজ্ঞদের পর্যবেক্ষণে সেই নতুনত্বের আরেকটি দিক উঠে এসেছে। ডেঙ্গু এবার তরুণ প্রজন্মকে ঘায়েল করেছে সবচেয়ে বেশি। এ বছরের শুরু থেকে গত ৫ আগস্ট পর্যন্ত তথ্য-উপাত্ত থেকে এমনই চিত্র তুলে ধরেছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইইডিসিআর। ওই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে এবার ডেঙ্গুর নানা ধরন বদলের সঙ্গে বয়স, পেশা ও নারী-পুরুষের তুলনামুলক চিত্রও পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে।

এদিকে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে আরো তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে আরিফ খন্দকার কাজল নামে এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ফরিদপুরের মধুখালী সরকারি আইনউদ্দিন কলেজের ছাত্রী খালেদা পারভীন (২৫) গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে  চিকিৎসাধীন অবস্থায়  মারা গেছেন ময়মনসিংহের তারাকান্দার আলামিন (২৭)।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, আগের দিনের চেয়ে গত বুধবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল  বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত সারা দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তির সংখ্যা কিছুটা কমেছে। ওই সময়ে সারা দেশে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে দুই হাজার ৩২৬ জন, আগের দিন যা ছিল দুই হাজার ৪২৮ জনে।

এদিকে ঈদের ছুটিতে ঢাকা ছাড়ার আগে জ্বরে আক্রান্তদের রক্ত পরীক্ষা করে তবেই রাজধানী ছাড়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

আইইডিসিআরের পর্যবেক্ষণ : আইইডিসিআর তথ্য অনুসারে চলতি বছর এ পর্যন্ত ডেঙ্গুতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে ১৫-২৫ বছর বয়সের মানুষ। তারপর বেশি আক্রান্ত হয়েছে ২৫-৩৫ বছর বয়সীরা। এরপর ৫-১৫ বছরের শিশু-কিশোররা আক্রান্ত হয়েছে বেশি। সবচেয়ে কম আক্রান্ত হয়েছে ৭৫ বছরের ওপরের বয়সীরা। অবশ্য ৫৫ বছরের পর থেকে আক্রান্তের সংখ্যা কমতে শুরু করেছে। অন্যদিকে নারী-পুরুষ বিবেচনায় নারীদের চেয়ে সব বয়সের পুরুষরাই বেশি আক্রান্ত হয়েছে। তবে নারীদের মধ্যেও সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ১৫-২৫ বছর বয়সীরা, তারপর বেশি আক্রান্ত ৫-১৫ বছর বয়সের কন্যা শিশু ও কিশোরীরা। তারপর বেশি আক্রান্ত হয়েছে ২৫-৩৫ বছরের নারীরা। এ ক্ষেত্রে বয়স্ক নারীদের আক্রান্তের হার তুলনামূলক কম।

এদিকে আইইডিসিআরের আরেক পর্যবেক্ষণের তথ্য অনুসারে এবারে ডেঙ্গুতে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে শিক্ষার্থীরা, এরপর কর্মজীবীরা।

ওই প্রতিষ্ঠানের আরেক পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, ডেঙ্গু আক্রান্তদের মধ্যে শতভাগেরই উপসর্গ হিসেবে ছিল জ্বর, তবে অন্যান্য উপসর্গের মধ্যে ৭৮ শতাংশের ছিল মাথা ব্যথা, গায়ে ব্যথা ছিল ৬৪ শতাংশের, বমি ছিল ৩৮ শতাংশের, জোড়ায় ব্যথা ছিল ৪০ শতাংশের, দুর্বলতা ছিল ২৫ শতাংশের, কাশি ছিল ১৯ শতাংশের, পেটে ব্যথা ছিল ১৪ শতাংশের, পাতলা পায়খানা ছিল ১৩ শতাংশের, গলা ব্যথা ছিল ৬ শতাংশের, শ্বাসের সমস্যা ছিল ৩ শতাংশের, রক্তক্ষরণ ছিল ২ শতাংশের আর শরীরে র‌্যাশ ছিল মাত্র ৩ শতাংশের।

সারা দেশে নতুন ভর্তি হয়েছে ২৩২৬ জন : স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ্ ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক ডা. আয়েশা আক্তার জানান, আগের দিনের তুলনায় গত বুধবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল  বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত সারা দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তির সংখ্যা কিছুটা কমেছে। ওই সময়ের তথ্য অনুসারে ভর্তি হয়েছে মোট দুই হাজার ৩২৬ জন, আগের দিন যা ছিল দুই হাজার ৪২৮ জনে। গত ১ জানুয়ারি থেকে সারা দেশে হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয় ৩৪ হাজার ৬৬৬ জন। এর মধ্যে ২৫ হাজার ৮৭২ জন চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছে। বাকি আট হাজার ৭৬৫ জন বিভিন্ন হাসপাতালে গতকাল পর্যন্ত চিকিৎসাধীন ছিল। আর সরকারি হিসাবে মৃত্যু বেড়ে গতকাল ২৯ জনে উঠেছে। তবে বিভিন্ন গণমাধ্যম থেকে পাওয়া তথ্য বলছে, এ মৃত্যুসংখ্যা সরকারি হিসাবের তিন গুণের কাছাকাছি।

কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুসারে, ঢাকার ৪০টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছে এক হাজার ১৫৯ জন (আগের দিন ছিল এক হাজার ২৭৫ জন)। আর ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে গতকাল নতুন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছে এক হাজার ১৬৭ জন (আগের দিন ছিল এক হাজার ১৫৩ জন)।

আরো তিনজনের মৃত্যু : টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে গত বুধবার রাতে কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরিফ খন্দকার কাজল নামে এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। কাজল মির্জাপুর কলেজের স্নাতক শ্রেণির ছাত্র ছিল। কাজলের বাড়ি মির্জাপুরের উয়ার্শী ইউনিয়নের খৈলসিন্দুর গ্রামে। কুমুদিনী হাসপাতাল সূত্র জানায়, কাজল গত রবিবার জ্বর নিয়ে কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য আসেন। সেখানে রক্ত পরীক্ষা করা হলে তাঁর ডেঙ্গু ধরা পড়ে। পরে তিনি চিকিৎসকের পরামর্শে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি হন। গত বুধবার সন্ধ্যার পর তাঁর রক্তবমি হচ্ছিল এবং তাঁর প্লাটিলেট কমতে থাকে। পরে রাত ১০টার দিকে কাজলের মৃত্যু হয়।

এদিকে ফরিদপুরের মধুখালী সরকারি আইনউদ্দিন কলেজের ছাত্রী খালেদা পারভীন (২৫) ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। খালেদা পারভীন ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার মেঘচামী ইউনিয়নের মেঘচামী গ্রামের ফিরোজ খানের মেয়ে। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে তিনি সবার ছোট। তাঁর বাবা স্থানীয় আশাপুর সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার সহকারী শিক্ষক। খালেদা সরকারি আইনউদ্দিন কলেজের ডিগ্রি শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন।

এ ছাড়া গতকাল বৃহস্পতিবার ভোরে রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়  মারা গেছেন আলামিন (২৭) নামে এক যুবক। তিনি ময়মনসিংহের তারাকান্দার বালিখা ইউনিয়নের পারুলীতলা গ্রামের মৃত মোস্তফার ছেলে। ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজ থেকে অনার্স-মাস্টার্স শেষ করে ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রাইভেট ফার্মে চাকরি করতেন তিনি। গত সপ্তাহে ডেঙ্গু ধরা পড়লে উন্নত চিকিৎসার জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন আলামিন।

দুই-তিন দিনের আটকে থাকা স্বচ্ছ পানিতেই জন্ম নেয় এডিস মশা : স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকায় একটি জাতীয় পত্রিকার উদ্যোগে আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে জানিয়েছেন, স্বচ্ছ পানি মাত্র দুই-তিন দিন আটকে থাকলেই সেখানে এডিশ মশা জন্ম নেওয়ার সুযোগ পায়। বাসাবাড়ির আশপাশে বা ছাদে, ফুলের টবে বৃষ্টির পানি জমে তিন দিন থাকা মানেই এডিশ মশার বংশ বৃদ্ধিতে সহায়তা করা, আর এডিশ মশা বৃদ্ধি মানেই ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যাও বৃদ্ধি পাওয়া। এ কারণে বাসাবাড়িতে জমে থাকা স্বচ্ছ পানি প্রতি তিন দিনে একবার পরিবর্তন করা জরুরি।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পদক্ষেপ : গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেঙ্গু বিষয়ক এক সভায় জানানো হয়, মাতুয়াইল মা ও শিশু হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগের ব্যবস্থাপনার জন্য ৫০ শয্যার একটি ইউনিট চালু করা হয়েছে। এ ছাড়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের আহ্বানে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিক্যাল কলেজ অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএমসিএ) ঢাকা এবং ঢাকার আশপাশে ৩২টি মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে ডেঙ্গু প্রতিরোধবিষয়ক প্রচারণা চালিয়েছে।

মতবিনিময় : বাংলাদেশ পেডিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সঙ্গে ডেঙ্গু ব্যবস্থাপনা বিষয়ে এক মতবিনিময়সভা করেন। বাংলাদেশ পেডিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতায় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার উদ্যোগে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে সব সদর হাসপাতাল, মেডিক্যাল কলেজ ও মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু বিভাগের শিক্ষক এবং শিশু বিশেষজ্ঞদের নিয়ে ডেঙ্গু ব্যবস্থাপনাবিষয়ক প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে অনুরোধে সারা দেশে ১৬ লাখ স্কাউট ডেঙ্গু বিষয়ে সতর্কতামূলক সচেতনতা সৃষ্টিতে কাজ শুরু করেছে।

খুলনায় ১১৬ মেডিক্যাল টিম : খুলনার জেনারেল (সদর) হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডেঙ্গু শনাক্তকরণ সরঞ্জাম কেনার জন্য টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ডেঙ্গু শনাক্তকরণ ও চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে জেলায় ১১৬টি মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে খুলনা জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম আব্দুর রাজ্জাক এ তথ্য জানান।

আখাউড়ায় রক্ত পরীক্ষার মেশিন নষ্ট : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রক্ত পরীক্ষার মেশিন নষ্ট হয়ে আছে। যে কারণে ডেঙ্গু শনাক্তকরণের কোনো পরীক্ষা করানো যাচ্ছে না। এদিকে সংকটের সময়ে নিজ সংসদীয় এলাকা কসবা ও আখাউড়া উপজেলার জন্য নিজ অর্থায়নে প্রায় ৪০০ ডেঙ্গু কিট পাঠিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক এমপি। বৃহস্পতিবার রাতে ও শুক্রবার সকালের যেকোনো সময়ে কিটগুলো পৌঁছার কথা রয়েছে।

মন্তব্য