kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

চাঁদ হাসলেই ঈদ উৎসব

নওশাদ জামিল   

৪ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



চাঁদ হাসলেই ঈদ উৎসব

ঈদের আগেভাগেই বাংলাদেশকে যেন দারুণ এক ঈদ আনন্দ উপহার দিয়েছেন আমাদের ‘ব্যাঘ্রশাবকরা’। বিশ্বকাপ ক্রিকেটে দাপুটে জয় দিয়ে তাঁরা বাড়িয়ে দিয়েছেন নির্মল আনন্দ। আজ মঙ্গলবার থেকে ঈদের ছুটি শুরু হয়ে গেছে। সারা দেশের মানুষের এখন অপেক্ষা আকাশে একফালি চাঁদ দেখার। আজ শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেলে কাল বুধবার ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা মেতে উঠবে ঈদ আনন্দে, উৎসবে। আত্মীয়-পরিজন ও বন্ধুবান্ধব নিয়ে, ধনী-গরিব- নির্বিশেষে সব মানুষ অংশ নেবে ঈদের ঐতিহ্যবাহী আয়োজনে। আজ ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণে সন্ধ্যায় জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে। সেখানে সিদ্ধান্ত হবে ঈদের দিন নির্ধারণের।

এক মাস সিয়ামসাধনা শেষ হতে চলেছে। মানুষ ঈদ উৎসবে অংশ নিতে উদগ্রীব হয়ে আছে। উৎসবে অংশ নিতে যে যার সাধ্যমতো কেনাকাটাও করছে। প্রিয়জনকে ঈদ উপহার দিচ্ছে। রাজধানী ফাঁকা হতে শুরু করেছে। ঈদ আনন্দে শরিক হতে ঢাকা ছেড়ে যাচ্ছে লাখ লাখ মানুষ। প্রিয় মানুষের সঙ্গে একটু দেখা-সাক্ষাৎ, কুশলবিনিময়, পারস্পরিক সহমর্মিতা প্রকাশ করতে ঘরে ফেরার ভোগান্তির কথা মুহূর্তেই ভুলিয়ে দিচ্ছে। মানুষ এখন উন্মুখ হয়ে আছে সেই ধর্মীয় উৎসবে অংশ নেওয়ার জন্য।

জানা যায়, ধর্মীয় পরিভাষায় ঈদুল ফিতরকে পুরস্কার দিবস হিসেবেও বর্ণনা করা হয়েছে। দীর্ঘ এক মাস রোজা রাখা বা সিয়ামসাধনার পর বিশ্বের মুসলমানরা এই দিনটি ধর্মীয় কর্তব্য পালনসহ খুব আনন্দের সঙ্গে পালন করে থাকে। ঈদ মানে খুশি, ঈদ মানে আনন্দ। ধনী-গরিব, ছোট-বড়, আশরাফ-আতরাফ সবাইকে এক কাতারে দাঁড় করায় ঈদ। সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যের বন্ধনে আবদ্ধ করে।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা এইচ এম এরশাদ। এ ছাড়া বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় সংগঠনের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, ১৪৪০ হিজরির পবিত্র ঈদুল ফিতরের তারিখ নির্ধারণ ও শাওয়াল মাসের চাঁদ  দেখার সংবাদ পর্যালোচনা এবং এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণে আজ সন্ধ্যা ৭টায় বায়তুল মোকাররম মসজিদের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করবেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ। দেশের আকাশে কোথাও পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেলে তা নিচের টেলিফোন ও ফ্যাক্স নম্বরে অথবা সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা প্রশাসক অথবা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। টেলিফোন নম্বর : ৯৫৫৯৪৯৩, ৯৫৫৯৬৪৩, ৯৫৫৫৯৪৭, ৯৫৫৬৪০৭ ও ৯৫৫৮৩৩৭। ফ্যাক্স নম্বর : ৯৫৬৩৩৯৭ ও ৯৫৫৫৯৫১।

জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে দেশের প্রধান ঈদ জামাত সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, ঈদের প্রধান জামাতের নামাজে ইমামতি করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে রাষ্ট্রপতি, মন্ত্রী, প্রধান বিচারপতি, সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিরা, বিদেশি কূটনীতিক, রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিসহ সাধারণ মুসল্লিরা নামাজ আদায় করবেন।

প্রতিবারের মতো এবারও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রথম জামাত সকাল ৭টায়, দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায়, তৃতীয় জামাত সকাল ৯টায়, চতুর্থ জামাত সকাল ১০টায় এবং পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে। ঈদুল ফিতরের নামাজের আগে মুসলমানদের অবশ্যই ফিতরা আদায় করার বিধান রয়েছে। এই বিধান মেনে এবারও ইসলামিক ফাউন্ডেশন সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ ফিতরার হার নির্ধরণ করে। এবার জনপ্রতি সর্বনিম্ন ফিতরা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭০ টাকা। সর্বোচ্চ ফিতরার এই হার ধরা হয়েছে এক হাজার ৯৮০ টাকা। ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, যে কেউ ইচ্ছা করলে সর্বনিম্ন ৭০ টাকা থেকে শুরু করে এক হাজার ৯৮০ টাকা পর্যন্ত ফিতরা প্রদান করতে পারবেন।

এদিকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন রাজধানীসহ সারা দেশে বিচ্ছিন্নভাবে বৃষ্টির আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। তীব্র দাবদাহের পর জুনের শুরুতেই সারা দেশে বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, সাগরে পশ্চিমা লঘুচাপ ও পুবালি বাতাসের সংমিশ্রণে সারা দেশে বিচ্ছিন্নভাবে বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে জুনের প্রথম থেকেই। বিভিন্ন এলাকায় এর প্রভাবে ঝোড়ো হাওয়া ও বজ সহ বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ৫ জুন সারা দেশে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা