kalerkantho

বুধবার । ১৬ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৬ সফর ১৪৪১       

নন-এমপিও শিক্ষকদের কর্মসূচি

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা না পাওয়া পর্যন্ত আন্দোলন

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৯ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা না পাওয়া পর্যন্ত আন্দোলন

নন-এমপিও শিক্ষকরা তৃতীয় দিনের মতো গতকাল অবস্থান ধর্মঘট পালন করেন। ছবি : কালের কণ্ঠ

দাবি আদায়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি দিলেন নন-এমপিও শিক্ষকরা। গতকাল বৃহস্পতিবার শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধিদল তাঁদের দাবিসংবলিত স্মারকলিপি প্রধানমন্ত্রীর বরাবর পৌঁছে দেয়। একই সঙ্গে নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের নেতৃত্বে এমপিওভুক্তির দাবিতে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে তৃতীয় দিনের মতো কর্মসূচি পালন করেন তাঁরা।

অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, ‘শিক্ষকদের বর্তমান অবস্থা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বরাবর একটি আবেদনপত্র জমা দিয়েছি। তাঁর কার্যালয় থেকে আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে। আবেদনপত্রটি প্রধানমন্ত্রীর হাতে দ্রুত পৌঁছানো হবে বলেও জানানো হয়েছে।’

সাধারণ সম্পাদক বিনয় ভূষণ রায় বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে। দাবি আদায়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ঘোষণা না আসা পর্যন্ত শিক্ষকরা রাজপথে থাকবে। তিনি আরো বলেন, ‘আমরা ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, রাজনীতিবিদসহ সকল পেশার মানুষ তৈরি করি। অথচ যুগ যুগ ধরে শিক্ষকতা করলেও আমাদের এমপিওভুক্ত করা হচ্ছে না। অর্থাভাবে নন-এমপিও শিক্ষকরা মানবেতর জীবন যাপন করলেও শুধু আশ্বাস আর প্রত্যাশা ছাড়া কিছুই পাননি। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে, তাই আমরা খালি হাতে বাড়ি ফিরব না। জীবন গেলেও আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের ব্যানারে এমপিওভুক্তির দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি শুরু হয়। বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিনেও এ আন্দোলন চলে।

সংশোধনী

কালের কণ্ঠ’র শেষ পৃষ্ঠায় গতকাল ‘ভুগছে ৮০ হাজার শিক্ষক-কর্মচারী’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের উপশিরোনামে এবং ভেতরে ২০১০ সাল থেকে ১৮ বছর ধরে এমপিওভুক্তি বন্ধ থাকার কথা বলা হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে এটি হবে আট বছর ধরে বন্ধ আছে। অনিচ্ছাকৃত এ ভুলের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত। বা. স.

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা