kalerkantho

রবিবার । ২৬ বৈশাখ ১৪২৮। ৯ মে ২০২১। ২৬ রমজান ১৪৪২

এসএসসি প্রস্তুতি

পদার্থবিজ্ঞান

আবু জাফর সৈকত, সহকারী শিক্ষক, হাজী সিরাজ উদ্দিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়, নারায়ণগঞ্জ

১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



পদার্থবিজ্ঞান

জ্ঞানমূলক প্রশ্ন

অষ্টম অধ্যায়

আলোর প্রতিফলন

১। ব্যাপ্ত প্রতিফলন কাকে বলে?

    উত্তর : যদি একগুচ্ছ সমান্তরাল আলোকরশ্মি কোনো তলে আপতিত হয়ে প্রতিফলনের পর আর সমান্তরাল না থাকে বা অভিসারী বা অপসারী রশ্মিগুচ্ছে পরিণত না হয় তবে এ ধরনের প্রতিফলনকে আলোর ব্যাপ্ত বা অভিসারী প্রতিফলন বলে।

২। দর্পণ কী?

    উত্তর : দর্পণ হলো এমন একটি মসৃণ তল, যেখানে আলোর নিয়মিত প্রতিফলন ঘটে।

৩। দর্পণের মেরু কাকে বলে?

    উত্তর : গোলীয় দর্পণের প্রতিফলক পৃষ্ঠের মধ্যবিন্দুকে দর্পণের মেরু বলে।

৪। বক্রতার ব্যাসার্ধ কাকে বলে?

    উত্তর : গোলীয় দর্পণ যে গোলকের অংশ, সেই গোলকের ব্যাসার্ধকে ওই দর্পণের বক্রতার ব্যাসার্ধ বলে।

৫। গৌণ অক্ষ কাকে বলে?

    উত্তর : মেরু বিন্দু ব্যতীত দর্পণের প্রতিফলক পৃষ্ঠের ওপরস্থ যেকোনো বিন্দু ও বক্রতার কেন্দ্রের মধ্য দিয়ে অতিক্রমকারী সরলরেখাকে গৌণ অক্ষ বলে।

৬। ফোকাস তল কাকে বলে?

    উত্তর : গোলীয় দর্পণের প্রধান ফোকাসের মধ্য দিয়ে প্রধান অক্ষের সঙ্গে লম্বভাবে যে সমতল কল্পনা করা হয় তাকে ফোকাস তল বলে।

৭। প্রতিবিম্ব কাকে বলে?

    উত্তর : কোনো বিন্দু থেকে নির্গত আলোকরশ্মিগুচ্ছ কোনো তলে প্রতিফলিত বা প্রতিসরিত হওয়ার পর দ্বিতীয় কোনো বিন্দুতে মিলিত হয় বা দ্বিতীয় কোনো বিন্দু থেকে অপসারিত হচ্ছে বলে মনে হয়, তখন ওই দ্বিতীয় বিন্দুটিকে প্রথম বিন্দুর প্রতিবিম্ব বলে।

৮। বাস্তব প্রতিবিম্ব কাকে বলে?

    উত্তর : কোনো বিন্দু থেকে নিঃসৃত আলোক রশ্মিগুচ্ছ কোনো তলে প্রতিফলিত বা প্রতিসরিত হওয়ার পর যদি দ্বিতীয় কোনো বিন্দুতে প্রকৃতপক্ষে মিলিত হয় তাহলে ওই দ্বিতীয় বিন্দুটিকে প্রথম বিন্দুর বাস্তব প্রতিবিম্ব বলে।

৯। রৈখিক বিবর্ধন কী?

    উত্তর : প্রতিবিম্বের দৈর্ঘ্য ও লক্ষ্যবস্তুর দৈর্ঘ্যের অনুপাতকে রৈখিক বিবর্ধন বা সংক্ষেপে বিবর্ধন বলে।

১০।     বক্রতার কেন্দ্র কাকে বলে?

    উত্তর : গোলীয় দর্পণ যে গোলকের অংশবিশেষ, সেই গোলকের কেন্দ্রকে ওই দর্পণের বক্রতার কেন্দ্র  বলে।

১১।     প্রধান অক্ষ কাকে বলে?

    উত্তর : গোলীয় দর্পণের মেরু ও বক্রতার কেন্দ্রের মধ্য দিয়ে অতিক্রমকারী সরলরেখাকে দর্পণের প্রধান অক্ষ বলে।

১২। ফোকাস দূরত্ব কাকে বলে?

    উত্তর : গোলীয় দর্পণের মেরু বিন্দু থেকে প্রধান ফোকাস পর্যন্ত দূরত্বকে ফোকাস দূরত্ব বলে।

১৩।     উত্তল দর্পণ কী?

    উত্তর : কোন গোলকের উত্তল পৃষ্ঠ যদি প্রতিফলকরূপে কাজ করে তাকে উত্তল দর্পণ বলে।

১৪।     অবতল দর্পণ কী?

    উত্তর : কোনো গোলকের অবতল পৃষ্ঠ যদি প্রতিফলকরূপে কাজ করে অর্থাৎ আলোর নিয়মিত প্রতিফলন যদি গোলীয় দর্পণের অবতল পৃষ্ঠ থেকে সংঘটিত হয়, তবে সে দর্পণকে অবতল দর্পণ বলে।

১৫।     অবাস্তব প্রতিবিম্ব কাকে বলে?

    উত্তর : কোনো বিন্দু থেকে নিঃসৃত আলোক রশ্মিগুচ্ছ কোনো তলে প্রতিফলিত বা প্রতিসরিত হওয়ার পর যদি দ্বিতীয় কোনো বিন্দু থেকে অপসারিত হচ্ছে বলে মনে হয়, ওই দ্বিতীয় বিন্দুটিকে প্রথম বিন্দুর অবাস্তব প্রতিবিম্ব বলে।

১৬।     সদ বিম্ব কাকে বলে?

    উত্তর : কোনো বিন্দু থেকে নিঃসৃত আলোক রশ্মিগুচ্ছ প্রতিফলন বা প্রতিসরণের পর থেকে দ্বিতীয় কোনো বিন্দুতে মিলিত হলে যে বিম্ব গঠিত হয় তাকে সদ বিম্ব বলে।

১৭।     অসদ বিম্ব কাকে বলে?

    উত্তর : কোনো বিন্দু থেকে নিঃসৃত আলোক রশ্মিগুচ্ছ প্রতিফলন বা প্রতিসরণের পর দ্বিতীয় কোনো বিন্দু থেকে অপসৃত হচ্ছে বলে মনে হলে যে বিম্ব গঠিত হয় তাকে অসদ বিম্ব বলে।

১৮। প্রধান ফোকাস কাকে বলে?

    উত্তর : প্রধান অক্ষের নিকটবর্তী ও সমান্তরাল রশ্মিগুচ্ছ কোনো গোলীয় দর্পণে আপতিত হয়ে প্রতিফলনের পর প্রধান অক্ষের ওপর যে বিন্দুতে মিলিত হয় (অবতল দর্পণে) বা যে বিন্দু থেকে অপসৃত হচ্ছে বলে মনে হয় (উত্তল দর্পণে) তাই দর্পণের প্রধান ফোকাস।

১৯। প্রতিফলনের প্রথম সূত্রটি লেখো।

    উত্তর : প্রতিফলনের প্রথম সূত্রটি হলো—আপতিত রশ্মি, প্রতিফলিত রশ্মি এবং আপতন বিন্দুতে অঙ্কিত অভিলম্ব একই সমতলে অবস্থান করে।



সাতদিনের সেরা