kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

নগরজীবন

এই যুগে টাকাই সব!

মো. তোজাম্মেল হোসেন
ভ্রাম্যমাণ মুড়ি বিক্রেতা
পুরানা পল্টন, ঢাকা

১৬ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এই যুগে টাকাই সব!

কেমন আছেন, ব্যবসা কেমন চলছে?

জি, আল্লাহর রহমতে ভালোই আছি। ব্যবসার অবস্থাও খারাপ না। প্রতিদিন যে মাল নিয়া বাইর হই, ইনশাআল্লাহ সবই বেচা হইয়া যায়।

 

মুড়ি বিক্রি করে কেমন আয় হচ্ছে?

বিক্রি যা হয়, সেই টাকা দিয়াই তো সংসার চালাই। কিন্তু সব দিন এক রকম যায় না। সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয় বৃষ্টি হলে কিংবা মেঘলা দিন হলে। যেকোনো একটা মার্কেটে ঢুকে পড়ি। তখন মার্কেটের লোকজন সময় কাটানোর জন্য ঝাল মুড়ি খায়।

 

সংসারে কে কে আছে?

আমার এক ছেলে আর এক মেয়ে। মেয়েটা ছোট, এখনো স্কুলে যায় না। আর ছেলেটা ইন্টারমিডিয়েটে পড়ে। এবার সে পরীক্ষা দেবে। প্রতি মাসে তার জন্য কোচিং ফি দিতে হয় ১২০০ টাকা। অনেক খরচ।

 

ঢাকায় কত বছর, কেমন লাগে এই শহর?

সাত-আট বছর তো হবেই। ঢাকায় আসার পর থেকেই ঝাল মুড়ি, চানাচুর বিক্রি শুরু করি। সেই থেকে এই ব্যবসায় আছি। এই শহর আর কেমন লাগবে? গরিব মানুষ আমরা, হাতে টাকা-পয়সা থাকে না। নিজের খরচ, সংসারের খরচ জোগাতেই তো হাঁসফাঁস অবস্থা। ইনকামের ধান্দায় থাকি, ভালো-মন্দ বুঝি না।

তবে এইটুকু বলা যায় যে এই শহরে চাইলে কোনো একটা কিছু করে আয় করা যায়। যা গ্রামে সম্ভব না।

 

হাতে টাকা-পয়সা থাকলে কী করতেন?

এই যুগে টাকাই সব! পরিবারে কন, সমাজে কন—টাকা থাকলে সবাই আপনারে ভালোবাসব, সম্মান দেব। টাকা নেই তো আপনার কিছু নেই। না খাইয়া মরো, অপমানিত হও। ধরেন আমার টাকা থাকলে গ্রামের বাড়িটা সুন্দর কইরা দিতাম। একটা ভালো ব্যবসা করতাম। পোলাপানগো ভালো স্কুলে পড়াইতাম।

 

তাহলে টাকাই সব?

কইলাম না, এই যুগে টাকাই সব। কিভাবে টাকা কামাইলেন সেইডা বড় কথা না, আপনার টাকা আছে কি না সেইডা বড় কথা।

 

গ্রামে যান?

কয়েক দিন আগেও বাড়ি গেছি। এক টুকরা জমি আছে। সেই ক্ষেতে ফসল বুনে, সেচ দিয়া চইলা আইছি। আবার কয়েক দিন পরে যাব। খালি হাতে তো আর বাড়ি যাওয়া যায় না। মোটামুটি একটা টাকা জমলে বাড়ি যাই। কিছুদিন থাইকা আবার চইলা আসি।

 

ভবিষ্য পরিকল্পনা কী?

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা আর কী! ঢাকায় আছি, কাজ-কাম করি। ঢাকায় অনেক খরচ, তাই সারা জীবন তো আর ঢাকায় থাকা যাইব না। লাখখানেক টাকা জমাইতে পারলে গ্রামে গিয়া একটা ভালোমতো দোকান দেওয়ার চিন্তাভাবনা আছে। জানি না, কত দিনে আমার লাখ টাকা জমব। না হইলে নাই! যেভাবে চলছে সেভাবেই চলব।

সাক্ষাৎকার গ্রহণে : কবীর আলমগীর

ছবি : জান্নাতুল ফেরদৌস শিপন

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা