kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

ইরানের বিক্ষোভ অব্যাহত

তেহরানের বিশ্ববিদ্যালয়ে চড়াও নিরাপত্তা বাহিনী

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তেহরানের বিশ্ববিদ্যালয়ে চড়াও নিরাপত্তা বাহিনী

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি গতকাল রাজধানী তেহরানে সশস্ত্র বাহিনীর একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন। ছবি : এএফপি

ইরানে তরুণী মাশা আমিনির অস্বাভাবিক মৃত্যুর প্রতিবাদে ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভ দমন করতে রবিবার রাতে রাজধানী তেহরানের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিযান চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। দেশজুড়ে দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে এই বিক্ষোভ চলছে।

‘ত্রুটিপূর্ণভাবে’ হিজাব পরার অপরাধে ইরানের ‘নৈতিকতা পুলিশ’ কুর্দি তরুণী মাশা আমিনিকে হেফাজতে নেয়। সেখানে তাঁর মৃত্যু হওয়ার পর দেশব্যাপী বিক্ষোভ শুরু হয়।

বিজ্ঞাপন

এ পর্যন্ত প্রায় দেড় শ শহরে বিক্ষোভ ছড়িয়েছে।

রবিবার রাতে তেহরানের শরিফ ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ বন্ধ করতে টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করেন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা। খবরে বলা হয়, ইরানের মধ্যাঞ্চলের ইসফান বিশ্ববিদ্যালয়েও বিক্ষোভ হয়েছে।

এখন পর্যন্ত এ বিক্ষোভে ৯২ জনের নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তবে নিহতের সংখ্যা নিয়ে সুস্পষ্ট ধারণা এখনো পাওয়া যায়নি।

এদিকে ইরানের ইসলামী বিপ্লবের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি গতকাল সোমবার অভিযোগ করেছেন, দেশের চলতি বিক্ষোভের পেছনে ‘চিরশত্রু’ যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরায়েলের হাত রয়েছে।

বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ার পর প্রথম জনসমক্ষে এসে তেহরানের একটি অনুষ্ঠানে খামেনি বলেন, ‘আমি পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, এসব দাঙ্গা ও নিরাপত্তাহীনতার ঘটনা বিদেশের কিছু বিশ্বাসঘাতক ইরানির সহযোগিতায় যুক্তরাষ্ট্র ও তার পরিচালিত মিথ্যাবাদী ইহুদিবাদী শাসক এবং তাদের এজেন্ট দ্বারা সংঘটিত হচ্ছে। ’

খামেনি আরো বলেন, এ ধরনের বিক্ষোভ ইরানকে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র। মাশা আমিনির মৃত্যু না হলে দেশকে অস্থিতিশীল করার অন্য অজুহাত তৈরি করা হতো। সূত্র : এএফপি, আলজাজিরা

 



সাতদিনের সেরা