kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০২২ । ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

২০২৪-এর লোকসভা নির্বাচন নিয়ে জরিপ

নীতীশ জোট ছাড়ায় মোদির ক্ষতি নেই

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৩ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নীতীশ জোট ছাড়ায় মোদির ক্ষতি নেই

ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট থেকে সরে গেছে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের দল জেডি (ইউ)। এতে আগামী লোকসভা নির্বাচনে কিছু আসন হারালেও এনডিএ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারবে বলে এক জরিপে জানানো হয়েছে।

নির্বাচনী জরিপ ও গবেষণা সংস্থা সি-ভোটারের সহযোগিতায় ইন্ডিয়া টুডে সাময়িকী পরিচালিত এই জরিপে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মোদিকেই সবচেয়ে জনপ্রিয় হিসেবে রায় দিয়েছেন উত্তরদাতারা।

‘মুড অব দ্য নেশন’ শিরোনামের এই জরিপ গত ফেব্রুয়ারি থেকে আগস্টের মধ্যে পরিচালিত হয়।

বিজ্ঞাপন

এর বেশির ভাগ তথ্যই নীতীশ কুমার ও তাঁর দল এনডিএ ছাড়ার আগে সংগ্রহ করা হয়েছিল। গত মঙ্গলবার সম্পর্কচ্ছেদের পরদিন পরিচালিত আরেকটি ছোট জরিপে জোটের আসন সংখ্যা কমার সম্ভাবনার তথ্য উঠে এসেছে।

দেশটির আগামী লোকসভা নির্বাচন ২০২৪ সালে। সরকার গঠন করতে ৫৪৩ আসনের লোকসভায় ২৭২টি আসন প্রয়োজন। প্রাথমিক জরিপে বলা হয়, চলতি আগস্টে নির্বাচন হলে বর্তমান সরকার ৩০৭ আসনে বিজয়ী হবে। বাম দলগুলোর জোট ইউপিএ জিতবে ১২৫ আসনে এবং অন্য দলগুলো জিতবে ১১১ আসনে।

তবে সর্বশেষ জরিপ মতে, নীতীশ কুমারের দল জোট ছাড়ায় ২১টি আসন হারাতে হতে পারে এনডিএকে। সেই আসনগুলোতে জিতবে ইউপিএ। অর্থাৎ আগস্টে নির্বাচন হলে এনডিএ ২৮৬ আসনে, ইউপিএ ১৪৬ আসনে এবং অন্য দলগুলো জিতবে ১১১ আসনে।

নরেন্দ্র মোদি প্রধানমন্ত্রী পদে আছেন আট বছরেও বেশি সময় ধরে। এর মধ্যে ভারত উচ্চ মুদ্রাস্ফীতি আর বেকারত্বের সঙ্গে লড়াই করছে। গত বছরের গ্রীষ্মে ভয়াবহ কভিড পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হয়েছিল দেশটিকে। যেখানে সরকারের অব্যবস্থাপনার অভিযোগ ছিল। এসব সত্ত্বেও রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপরীতে শক্ত অবস্থানে আছেন মোদি, জরিপে তেমনটাই দেখা গেছে।

উত্তরদাতাদের মধ্যে ৫৩ শতাংশ পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মোদিকে সমর্থন করছেন। ৯ শতাংশ সমর্থন করছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে এবং ৭ শতাংশের সমর্থন পাচ্ছেন আম আদমি পার্টির (আপ) নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

জরিপে কংগ্রেসের নেতৃত্ব প্রসঙ্গেও তথ্য সংগ্রহ করা হয়। উত্তরদাতার ৪০ শতাংশ বিরোধী দল হিসেবে কংগ্রেসের ভূমিকাকে ‘ভালো’ হিসেবে মূল্যায়ন করেছেন এবং ৩৪ শতাংশ দেখছেন ‘ত্রুটিপূর্ণ’ হিসেবে।

২৪ শতাংশ উত্তরাদাতা কংগ্রেসের পুনর্জাগরণের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত নেতা হিসেবে দেখছেন রাহুল গান্ধীকে। ১৬ শতাংশের ভরসা সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এবং ১৪ শতাংশ উত্তরদাতা বেছে নিয়েছেন শচিন পাইলটকে। মাত্র ৯ শতাংশ উত্তরদাতা এই ভূমিকায় প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভদ্রকে উপযুক্ত মনে করছেন।

বিরোধীদের একজোট করতে চাই : নীতীশ

এনডিএ ছেড়ে বিহারে রাষ্ট্রীয় জনতা পার্টির (আরজেডি) সঙ্গে যোগ দেওয়ার পর গতকাল শুক্রবার নীতীশ কুমার বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার বাসনায় নেই, বিরোধীদের একজোট করতেই কাজ করে যাব। ’

বিরোধীদের সম্ভাব্য জোটে তাঁর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে নীতীশ বলেন, ‘আমার কাছে অনেক ফোন আসছে। আমার ইচ্ছা (বিজেপি বিরোধিতায়) সবাই একই মঞ্চে আসবে। সামনেই কয়েকটি পদক্ষেপ দেখতে পাবেন। ’ সূত্র : ব্লুমবার্গ, ফিনানশিয়াল এক্সপ্রেস ও টাইমস অব ইন্ডিয়া

 



সাতদিনের সেরা