kalerkantho

শনিবার । ২৫ জুন ২০২২ । ১১ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৪ জিলকদ ১৪৪৩

নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার, উত্পাদন দুটিতেই জোর দিচ্ছে রাশিয়া

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার, উত্পাদন দুটিতেই জোর দিচ্ছে রাশিয়া

দোনবাসের বিভিন্ন অংশে রুশ বাহিনীর নিরবচ্ছিন্ন হামলায় বাখমুত এলাকায় ধ্বংস হয়ে যাওয়া একটি কারখানায় গতকাল আগুন নেভানোর চেষ্টা। ছবি : এএফপি

বিশ্বজুড়ে আসন্ন খাদ্যসংকট সামাল দেওয়ার জন্য ‘উল্লেখযোগ্য ভূমিকা’ রাখতে রাশিয়া প্রস্তুত বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সেই সঙ্গে তাঁর কৃষিমন্ত্রী জানিয়েছেন, রাশিয়ায় শস্য উত্পাদন ও রপ্তানির ওপর জোর দেওয়া হচ্ছে।

ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘির সঙ্গে গত বৃহস্পতিবার ফোনে কথা হয় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের। ওই ফোন কলে পুতিন খাদ্যসংকট কাটাতে রাশিয়ার ওপর থেকে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে জোর দেন।

বিজ্ঞাপন

দুই নেতার কথোপকথনের পর এ সম্পর্কে এক বিবৃতিতে ক্রেমলিন বলে, ‘পুতিন গুরুত্ব দিয়ে জানিয়েছেন, খাদ্যসংকট কাটাতে শস্য ও সার রপ্তানির মাধ্যমে রুশ ফেডারেশন উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে প্রস্তুত, যেটা নির্ভর করছে পশ্চিমাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ওপর। ’ 

পুতিনের এসব প্রস্তাবের নিন্দা জানিয়ে মার্কিন সেনা সদর দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, ‘তারা এখন অর্থনৈতিক হাতিয়ারকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে।

এদিকে ইতালির প্রধানমন্ত্রী দ্রাঘি রুশ রাষ্ট্রপ্রধানের সঙ্গে ফোন কলের ব্যাপারে বলেন, ‘ইউক্রেনের গুদামে থাকা গম বের করে আনার জন্য কিছু করা যায় কি না, সেটা জানাই ছিল এ ফোন কলের উদ্দেশ্য। ’

এ জন্য রাশিয়া প্রস্তুত বলে জানার পর এখন প্রধানমন্ত্রী দ্রাঘি এ বিষয়ে ইউক্রেনের প্রস্তুতির কথা জনাতে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কিকে ফোন করবেন বলে জানান।

গম উত্পাদন ও রপ্তানিতে জোর : রাশিয়ার ওপর থেকে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে গুরুত্ব দেওয়ার পাশাপাশি রপ্তানির উদ্দেশ্যে অভ্যন্তরীণ গম উত্পাদনেও জোর দিচ্ছে ক্রেমলিন। গতকাল শুক্রবার রাশিয়ার কৃষিমন্ত্রী দিমিত্রি পাত্রুশেভ বলেন, ‘চলতি মৌসুমে (২০২১-২২) আমরা এরই মধ্যে দুই কোটি ৮৫ লাখ টন গমসহ সাড়ে তিন কোটি টন শস্য রপ্তানি করেছি। ’ আগামী ৩০ জুন চলতি মৌসুম শেষ হওয়ার আগেই শস্য রপ্তানির পরিমাণ তিন কোটি ৭০ লাখ টন ছাড়িয়ে যাবে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ‘আসন্ন মৌসুমে আমাদের হিসেবে পাঁচ কোটি টন শস্য রপ্তানি করা সম্ভব হবে। ’

দোনবাসের যুদ্ধ পরিস্থিতি : গতকাল দোনবাস হিসেবে পরিচিত পূর্ব ইউক্রেনের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি পয়েন্টে হামলার তীব্রতা বাড়িয়েছে রুশ বাহিনী। গোটা অঞ্চলকে রুশ বাহিনী বসবাসের অযোগ্য করে ফেলছে এবং সেখানে গণহত্যা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি।

দোনবাসের একটি অংশ লুহানস্ক প্রদেশের গভর্নর সেরগি গাইদে জানান, ওই প্রদেশের সেভেরোদোনেত্স্ক শহরে চারজন এবং ক্রামাতোরস্ক শহরে একজন রুশ হামলায় মারা গেছে। আবাসিক এলাকাগুলোতেও রুশ হামলা চলছে এবং এক মুহূর্তের জন্য হামলা থামছে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এ ছাড়া রুশ হামলায় ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর খারকিভে ৯ জন এবং দনিপ্রো শহরে আরো ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানায় আঞ্চলিক সূত্রগুলো।

এর মধ্যে রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীরা জানায়, সেভেরোদোনেত্স্ক ও ক্রামাতোরস্ক শহরের মাঝামাঝি অবস্থিত লিমান শহরের দখল নিয়েছে তারা। এখনো ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণে থাকা গুরুত্বপূর্ণ কিছু শহরে যাওয়ার রুট এই লিমান শহর।

‘রাশিয়ার বিরুদ্ধে পশ্চিমাদের পূর্ণ যুদ্ধ ঘোষণা’ : রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সেরগেই লাভরভ গতকাল মন্ত্রী পর্যায়ের এক বৈঠকে বলেন, ‘পশ্চিমা বিশ্ব আমাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে, গোটা রুশ বিশ্বের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। রাশিয়াকে বাতিল করে দেওয়া এবং আমাদের দেশের সঙ্গে জড়িত সব কিছুকে বাতিল ঘোষণা করার সংস্কৃতি এরই মধ্যে অর্থহীন পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। ’ সূত্র : এএফপি



সাতদিনের সেরা