kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ প্রকল্প ফের চালু করেছে ইরান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভূগর্ভস্থ ফোরদ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কেন্দ্র ফের চালু করেছে ইরান। গত বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে সেটি চালু করা হয়। এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার ‘সন্দেহজনক’ জিনিস বহনের দায়ে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থার (আইএইএ) এক পর্যবেক্ষকের অনুমোদন বাতিল করেছে ইরান।

ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা জানিয়েছে, ফোরদ স্থাপনার সেন্ট্রিফিউজগুলোয় ইউরেনিয়াম হেক্সাফ্লুওরাইড গ্যাস ভরার কাজ শুরু হয়েছে। পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র বেরিয়ে যাওয়ার দেড় বছরের মধ্যে এ নিয়ে চতুর্থ দফা পরমাণু চুক্তি ভাঙল ইরান। চুক্তি ভাঙলেও ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ শুরুর মধ্য দিয়ে কোনোভাবেই পরমাণু অস্ত্র উৎপাদনের দিকে এগোনো হচ্ছে না বলে ইরানের বরাবরের দাবি। এ দাবির ধারাবাহিকতা এবারও বজায় আছে।

ইরানের আণবিক সংস্থাটির বক্তব্য, ‘আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থার তত্ত্বাবধানে সব কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে।’ জাতিসংঘের ওই পর্যবেক্ষক সংস্থার এক ঘনিষ্ঠ সূত্র আরো জানিয়েছে, ফোরদ স্থাপনায় একেবারে মাঠপর্যায়ে নিয়োজিত আছেন সংস্থাটির প্রতিনিধিরা এবং তাঁরা ইরানের যেকোনো পদক্ষেপ সম্পর্কে খুব দ্রুত সংস্থাকে জানাতে পারবেন।

জাতিসংঘ পর্যবেক্ষকের অনুমোদন বাতিল : ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থা গতকাল এক অনলাইন বিবৃতিতে জানিয়েছে, আইএইএর এক পর্যবেক্ষক নাতাঞ্জ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ স্থাপনায় ‘সন্দেহজনক জিনিস’ নিয়ে ঢোকার সময় সতর্কতা সংকেত বেজে ওঠে এবং এরপর তিনি আর সেখানে প্রবেশ করতে পারেননি। ওই পর্যবেক্ষকের কাছ থেকে কোনো কিছু জব্দ করা হয়েছে কি না, তা স্পষ্ট না করে সংস্থাটি জানায়, এ ঘটনার পর পর্যবেক্ষক হিসেবে ওই ব্যক্তির অনুমোদন বাতিল করা হয়েছে। তিনি এরই মধ্যে অস্ট্রিয়ার ভিয়েনার উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। সূত্র : এএফপি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা