kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩০ জানুয়ারি ২০২০। ১৬ মাঘ ১৪২৬। ৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১     

যুক্তরাষ্ট্রের অনুরোধে

ইরান ইস্যুতে বৈঠক করবে আইএইএ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইরান ইস্যুতে বৈঠক করবে আইএইএ

ঘোষণা অনুযায়ী আজ রবিবার থেকে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধির হার বাড়াবে ইরান। এদিকে ইরানের পরমাণু ইস্যু নিয়ে আগামী বুধবার বৈঠকে বসতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা (আইএইএ)। পরমাণু ইস্যু নিয়ে ইরানের সঙ্গে আন্তর্জাতিক অঙ্গনের এ উত্তেজনার মধ্যে তেহরান হুমকি দিয়েছে, ইরানের তেলবাহী জাহাজ জব্দ করার জবাবে তারাও ব্রিটিশ জাহাজ জব্দ করবে।

জয়েন্ট কম্প্রিহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) শীর্ষক পরমাণু চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র বেরিয়ে গিয়ে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল করায় ইরানও চুক্তির শর্ত ভাঙতে শুরু করেছে। এরই মধ্যে ইরান চুক্তির সীমা উপেক্ষা করে ইউরেনিয়ামের মজুদ ৩০০ কিলোগ্রামের ওপরে নিয়ে গেছে। আজ থেকে তারা শুরু করতে যাচ্ছে ইউরেনিয়ামের সমৃদ্ধি বাড়ানোর কাজ।

বিশ্লেষকরা মনে করেন, পরমাণু অস্ত্র তৈরির লক্ষ্যে ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করছে না, বরং জেসিপিওএভুক্ত দেশগুলোর ওপর চাপ সৃষ্টি করতে চাচ্ছে, যেন চুক্তিভুক্ত দেশগুলো ইরানের ওপর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে পদক্ষেপ নেয়।

এ পরিস্থিতির মধ্যে আইএইএর মুখপাত্র গত শুক্রবার জানান, সংস্থার বোর্ড অব গভর্নরস আগামী বুধবার ইরান পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক করবে। অস্ট্রিয়ার ভিয়েনাভিত্তিক এ পর্যবেক্ষক সংস্থার বিবৃতিতে আরো জানানো হয়, ভিয়েনায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর জন্য নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত জ্যাকি ওলকটের অনুরোধে আইএইএ এ বৈঠকের আয়োজন করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের এমন অনুরোধের প্রতিক্রিয়ায় ভিয়েনায় ইরানের মিশন বলেছে, এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র নিজেদের বিচ্ছিন্নতা দেখিয়ে দিল। ‘যুক্তরাষ্ট্র জেসিপিওএ ভঙ্গকারী প্রধান দেশ’—এমন মন্তব্য করে মিশনের বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘সাম্প্রতিক ঘটনাবলির সঙ্গে বোর্ড অব গভর্নরসের নিরাপত্তাসংশ্লিষ্ট ইস্যু ও নির্দেশের কোনো সম্পর্ক নেই।’

জেসিপিওএভুক্ত দেশ রাশিয়াও প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে। ভিয়েনায় আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর জন্য নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত মিখাইল উলিয়ানভ গত শুক্রবার টুইটারে বলেন, ইরানের জেসিপিওএ লঙ্ঘন করার বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য আইএইএ যথাযথ জায়গা নয়।

ইরান ইস্যুতে আইএইএর বৈঠকে বসা নিয়ে কথাবার্তার মধ্যে দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনির আন্তর্জাতিক ইস্যুবিষয়ক উপদেষ্টা মহসেন রেজাই বলেছেন, ‘ব্রিটেন যদি ইরানের তেলবাহী জাহাজ না ছাড়ে, তবে ব্রিটিশ তেলবাহী জাহাজ আটক করা কর্তৃপক্ষের কর্তব্য।’

ব্রিটেন গত বৃহস্পতিবার জিব্রাল্টার প্রণালি থেকে সিরিয়াগামী ইরানি তেলবাহী জাহাজ আটক করে। জিব্রাল্টারের সর্বোচ্চ আদালত ওই জাহাজ ১৪ দিনের জন্য আটক রাখার অনুমতি দিয়েছেন। ক্ষুব্ধ ইরান জাহাজ আটকের ঘটনাকে জলদস্যুতা আখ্যা দিয়েছে এবং তেহরানে ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠিয়ে অভিযোগ করেছে। এ ছাড়া ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জাহাজ আটকের ঘটনা অবৈধ অ্যাখ্যা দিয়ে অভিযোগ করেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের নির্দেশে ব্রিটেন ইরানের জাহাজ আটকেছে। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা