kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ আগস্ট ২০২২ । ১ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৭ মহররম ১৪৪৪

নমুনা ভাইভা

‘আপনার জেলার কুখ্যাত কিছু ব্যক্তির নাম বলুন’

অনার্স ও মাস্টার্স করেছি অর্থনীতিতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ থেকে। এটা ছিল আমার জীবনের প্রথম বিসিএস। ভাইভা হয়েছিল ১৮ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে। পছন্দক্রম ছিল প্রশাসন, পুলিশ, কাস্টমস, ইকোনমিক, অডিট ও ট্যাক্স।

৬ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



‘আপনার জেলার কুখ্যাত কিছু ব্যক্তির নাম বলুন’

মো. শিব্বির আহমেদ, প্রশাসন ক্যাডার (সুপারিশপ্রাপ্ত), ৪০তম বিসিএস

চেয়ারম্যান : আপনার সামনে টেবিলের বাঁ পাশে একটা ছবি দেখতে পাচ্ছেন? কে উনি?

আমি : স্যার, জর্জ হ্যারিসন।

চেয়ারম্যান স্যার: জর্জ হ্যারিসন কোন দেশের নাগরিক? তাঁর ব্যান্ডের নাম কী?

আমি : স্যার, যুক্তরাজ্যের। বিটলস।

চেয়ারম্যান : ‘কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’-এ তাঁদের মধ্যে সবাই ছিলেন?

আমি : জি না, স্যার।

বিজ্ঞাপন

জন লেনন ছিলেন না।

চেয়ারম্যান : আচ্ছা, টেবিলের ডান পাশের ছবিটা দেখেন; চেনেন?

আমি: জি স্যার। একজন প্রখ্যাত প্রত্নতত্ত্ববিদ ড. এনামুল হক, অন্যজনের নাম মনে পড়ছে না।

চেয়ারম্যান: মুজিববর্ষের বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানের নাম কী?

আমি : মহাবিজয়ের মহানায়ক।

এক্সটার্নাল-১ : আপনি তো পড়াশোনা করেছেন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজে, ‘ভিক্টোরিয়া কলেজ’ নাম হলো কিভাবে?

আমি : স্যার, জমিদার রায়বাহাদুর আনন্দ চন্দ্র রায় প্রথমে ১৮৮৬ সালে ‘রায় এন্ট্রাস স্কুল’ প্রতিষ্ঠা করেন। পরে মহারানি ভিক্টোরিয়া তাঁকে ‘রায়বাহাদুর’ উপাধি দিলে রানির প্রতি কৃতজ্ঞতাস্বরূপ তিনি প্রতিষ্ঠানটির নাম ভিক্টোরিয়া স্কুল করেন। পরে ১৮৯৯ সালে এটি পূর্ণাঙ্গ কলেজ হলে নাম দেওয়া হয় ‘ভিক্টোরিয়া কলেজ’।  

এক্সটার্নাল-১ : প্রতিষ্ঠাতার আর কী কী অবদান আছে?

আমি : জগন্নাথ কলেজ (বর্তমান জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়), ঢাকেশ্বরী মন্দির, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় উনার অবদান রয়েছে।

এক্সটার্নাল-১ : নওয়াব ফয়জুন্নেসা চৌধুরানীর সম্পর্কে কিছু বলেন। অনেক নওয়াবের মধ্যেও উনি কেন এত বিখ্যাত?

আমি : স্যার, দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম ও একমাত্র মহিলা নওয়াব বা জমিদার তিনি।

এক্সটার্নাল-১ : নওয়াব উপাধি কে দেন?

আমি : ব্রিটেনের রানি ভিক্টোরিয়া।

এক্সটার্নাল-১ : উনার উপন্যাসটা পড়েছেন?

আমি : না স্যার। ‘রূপজালাল’ পড়া হয়নি।

এক্সটার্নাল-১ : আপনার বাড়ি তো চাঁদপুর। একে কী নামে ডাকে?

আমি: স্যার, ‘ইলিশের বাড়ি’ চাঁদপুর।

এক্সটার্নাল-১ : এই নামের প্রেক্ষাপট কী?

আমি : স্যার, দেশ-বিদেশে চাঁদপুরকে উপস্থাপনের জন্য ২০১৫ সালে থেকে জেলা ব্র্যান্ডিংয়ের কাজ শুরু হয়। যেহেতু চাঁদপুরের ব্র্যান্ডিং পণ্য ইলিশ, তাই ইলিশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে এর ব্র্যান্ডিং নাম করা হয় ‘ইলিশের বাড়ি’।

এক্সটার্নাল-১ : আপনার কথা চাঁদপুরের ভাষার সঙ্গে মিলে না। চাঁদপুরের ভাষায় কথা বলেন তো।

আমি : স্যার, চাঁদপুরের নিজস্ব কোনো ভাষা নেই। কিছুটা নোয়াখালীর, কিছুটা কুমিল্লার ও কিছুটা শরীয়তপুরের। (এরপর দু-তিন লাইন চাঁদপুরের ভাষায় বলে শুনিয়ে দিলাম। )

এক্সটার্নাল-২ : এবার আপনার সাবজেক্ট থেকে প্রশ্ন করি। What is market?

আমি: In general, market is a place where buyers and sellers can meet to exchange goods and service. But in economics, market refers not necessarily to a place but always to a commodity and the buyers and sellers who are in direct competition.

এক্সটার্নাল-২ : What is Monopolistic Competition Market?

আমি: Sir, it is a type of market structure where many firms are present in an industry, and they produce similar but differentiated products. But None of the firms enjoy a monopoly facility.

এক্সটার্নাল-২: Give some examples.

আমি : Some IT related products, restaurants are given as examples.

এক্সটার্নাল-২: What is the difference between money market and capital market?

Ans : Money market is a market where short term securities are issued and traded. On the other hand, capital market is long term.

চেয়ারম্যান : বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী কে?

আমি : স্যার, মাননীয় মন্ত্রী ডা. দিপু মনি।

চেয়ারম্যান : আচ্ছা পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালীন উনার সফলতা কী?

আমি : ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্র বিজয়, সম্পর্ক উন্নয়ন।

চেয়ারম্যান : উনার পিতার নাম কী?

আমি : ভাষাসৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধা এম এ ওয়াদুদ।

চেয়ারম্যান : (পেপারসের দিকে তাকিয়ে বললেন) আপনার জন্মদিন তো ৩ মার্চ। বিখ্যাত দিন! এ দিন কিসের জন্য বিখ্যাত?

আমি: অসহযোগ আন্দোলন, স্বাধীনতার ইশতেহার, জাতির জনক উপাধি প্রভৃতির জন্য বিখ্যাত।

এক্সটার্নাল-১: আপনার জন্মদিন কী বার ছিল?

আমি: রবিবার।

এক্সটার্নাল-১ : এটাও জেনে এসেছেন! ভালো।

চেয়ারম্যান : আপনার জেলার কুখ্যাত কিছু ব্যক্তির নাম বলুন।

আমি: বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার আসামি লে. কর্নেল (অব.) এম রাশেদ চৌধুরী, রাজাকার কমান্ডার বাচ্চু রাজাকার।

চেয়ারম্যান : আচ্ছা, এবার তাহলে আপনি আসুন।

(আমি চেয়ার থেকে উঠে চলে আসার সময় চেয়ারম্যান স্যার বললেন, চাঁদপুরের মানুষ তো বেশি ব্যবসা করে জানি, আপনি ব্যবসা না করে বিসিএস দিচ্ছেন কেন? আমি বললাম—ব্যবসা করার মতো পুঁজি নেই, স্যার। )

চেয়ারম্যান : আচ্ছা, আপনার জন্য শুভ কামনা, আসুন তাহলে। গ্রন্থনা : এম এম মুজাহিদ উদ্দীন

 



সাতদিনের সেরা