kalerkantho

শুক্রবার । ১৪ মাঘ ১৪২৮। ২৮ জানুয়ারি ২০২২। ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

শায়খুল হাদিস আজিজুল হকের ইন্তেকাল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ আগস্ট, ২০১২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শায়খুল হাদিস আজিজুল হকের ইন্তেকাল

ইসলামী ঐক্যজোটের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হক (৯৩) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি...রাজিউন)। গতকাল বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর আজিমপুরে নিজ বাসায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। আজিজুল হক হাদিস বিশারদ হিসেবে পরিচিত ছিলেন। তিনি বুখারি শরিফের বঙ্গানুবাদ করেন। ১৯৯৩ সালে বাবরি মসজিদ ভাঙার প্রতিবাদে বাংলাদেশে যে লংমার্চ হয়েছিল এর নেতৃত্বে ছিলেন তিনি। মোহাম্মদপুুরে সাত মসজিদের পাশে জামেয়া রাহমানিয়া মাদ্রাসাসহ অনেক প্রতিষ্ঠান তিনি গড়ে তোলেন। আজিজুল হক মুন্সীগঞ্জের লৌহজং থানার ভিরিচ খাঁ গ্রামে ১৯১৯ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সাত বছর বয়সে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জামেয়া ইউনুসিয়া মাদ্রাসায় ভর্তি হন। ১৯৩১ সালে ঢাকার বড় কাটারা মাদ্রাসায় ভর্তি হন ও দাওরায়ে হাদিস পাস করেন। সর্বশেষ ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দে শিক্ষা লাভ করেন। দেশে ফিরে ঢাকার বড় কাটারা মাদ্রাসায় ১৯৪৬ থেকে ১৯৫২ সাল পর্যন্ত শিক্ষকতা করেন। ১৯৫২ সালে লালবাগ মাদ্রাসায় যোগ দিয়ে ১৯৮৫ সাল পর্যন্ত শিক্ষকতা করেন। ১৯৭৯ সাল থেকে তিন বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ভিজিটিং প্রফেসর ছিলেন। শায়খুল হাদিস লালবাগ কেল্লা জামে মসজিদ, মালিবাগ শাহী মসজিদ ও আজিমপুর স্টেট জামে মসজিদে খতিব হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। জাতীয় ঈদগাহেও ইমামতি করেছেন কয়েক বছর। তিনি আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের শরিয়া বোর্ডের চেয়ারম্যানও ছিলেন। পাকিস্তান আমলে শায়খুল হাদিস নেজামে ইসলাম পার্টির কর্মকাণ্ডে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ১৯৮১ সালে হাফেজ্জি হুজুরের ডাকে খেলাফত আন্দোলনে যোগদান করেন। ১৯৮৭ সালে তাঁর নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত হয় ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন। ১৯৮৯ সালে খেলাফত মজলিস প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯৯১ সালে তিান ইসলামী ঐক্যজোট গঠন করেন। তাঁর জানাজা আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় জাতীয় ঈদগাহে অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন



সাতদিনের সেরা