kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পূজোর ভোজে বাঙালিয়ানা

উত্সবে বাঙালি খাবার ছাড়া যেন জমে না। কয়েকটি রেসিপি দিয়েছেন রন্ধনশিল্পী নয়না আফরোজ

৩ অক্টোবর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



পূজোর ভোজে বাঙালিয়ানা

 

মসলা পোলাও

উপকরণ

চিনিগুঁড়া চাল এক কেজি, তেজপাতা চারটি, পেঁয়াজ কুচি দুই কাপ, মিশ্রিত মসলা গুঁড়া (এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ, স্টার এনিস্, জায়ফল, জয়ত্রি) দুই চামচ, কাঁচা মরিচ ১০টি, আদা বাটা আধা চা চামচ, রসুন বাটা আধা চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, তেল এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ, ঘি দুই টেবিল চামচ, বেরেস্তা আধা কাপ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.    তেল ও অর্ধেক ঘি মিশিয়ে তেজপাতা ও পেঁয়াজ কুচি ভেজে নিন। এরপর চাল দিয়ে নেড়ে আদা বাটা, রসুন বাটা, মসলার মিশ্রণ ও লবণ দিয়ে খুব ভালো করে ভাজুন।

২.    ভাজা হলে চালের দ্বিগুণ পরিমাণ গরম পানি দিন।

বিজ্ঞাপন

একটা ফুট দিলে পেঁয়াজ বেরেস্তার অর্ধেক ও কাঁচা মরিচ দিয়ে ১০ মিনিট উঁচু আঁচে ঢেকে রান্না করুন।

৩. চাল ও পানি সমান সমান হয়ে এলে পোলাও দমে দিন। পোলাও ঝরঝরা সিদ্ধ হয়ে গেলে ঘি ও বাকি অর্ধেক বেরেস্তা দিয়ে নেড়ে চুলা বন্ধ করে দিন।

৪.    ব্যস, হয়ে গেল ভিন্ন স্বাদের মজাদার মসলা পোলাও।

 

তিসি বালাচাও ভর্তা

উপকরণ

তিসি তিন টেবিল চামচ, বালাচাও এক টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুচি দুই চা চামচ, সরিষার তেল এক টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.    শুকনা খোলায় তিসি ভেজে গুঁড়া করে নিন।

২.    তিসি গুঁড়া ও বালাচাও ভেজে নামিয়ে সরিষার তেল, পেঁয়াজ কুচি, ভাজা শুকনা মরিচ কুচি ও সামান্য লবণ দিয়ে ভালো করে মেখে নিন।

৩.   ব্যস, হয়ে গেল তিসি বালাচাও ভর্তা।

 

সিদ্ধ চিংড়ি ভর্তা

উপকরণ

চিংড়ি ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি দুই কাপ, ধনেপাতা কুচি দুই টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ কুচি এক টেবিল চামচ, সরিষার তেল এক চা চামচ, লেবুর রস এক চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, ভিনেগার আধা চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.    চিংড়ি মাছ লবণ ও সামান্য ভিনেগার দিয়ে পাঁচ মিনিট সিদ্ধ করে আধা বাটা করে নিন।

২.    পেঁয়াজ কুচি, কাঁচা মরিচ কুচি, লবণ, সরিষার তেল একসঙ্গে মেখে তার সঙ্গে আধা বাটা সিদ্ধ চিংড়ি দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে ধনেপাতা কুচি ও লেবুর রস মিশিয়ে নিন।

৩.   ব্যস, হয়ে গেল মজাদার সিদ্ধ চিংড়ি ভর্তা।

 

চিংড়ি কোর্মা

উপকরণ

বাগদা চিংড়ি ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ, তেজপাতা চারটি, ছোট এলাচ গুঁড়া এক চা চামচ, দারচিনি গুঁড়া আধা চা চামচ, লবঙ্গ গুঁড়া আধা চা চামচ, আদা ও রসুন বাটা এক চা চামচ, আমন্ড পেস্তা বাটা দুই টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ বাটা দুই চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, চিনি এক চা চামচ, ঘি এক টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.    মাছ ভালো করে ধুয়ে লবণ মেখে ভেজে তুলে রাখুন।

২.    একই তেলে তেজপাতা ও পেঁয়াজ কুচি ভেজে আদা ও রসুন বাটা দিয়ে নাড়ুন। এবার মিশ্র বাদাম বাটা, কাঁচা মরিচ বাটা, সব গুঁড়া মসলা ও লবণ দিন। মসলার কাঁচা গন্ধ চলে গেলে এবং উপরে তেল উঠে এলে এক কাপ গরম পানি দিন।

৩.   পানি ফুটলে ভেজে রাখা মাছ দিয়ে পাঁচ থেকে সাত মিনিট ঢেকে রান্না করুন। মাছ সিদ্ধ হলে চিনি ও ঘি ছড়িয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

 

নারকেলি ঝিঙে

উপকরণ

এক কিলো ঝিঙে, নারকেল আধা মালো, এক চা চামচের চার ভাগের এক ভাগ হলুদ গুঁড়া, আধা চা চামচ কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়া, একটি ছোট টমেটো পেষা, তিন থেকে চারটি কাঁচা লঙ্কা, পরিমাণমতো মিষ্টি, স্বাদমতো লবণ, এক টেবিল চামচ সরষের তেল।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.    ঝিঙেগুলো খোসা ছাড়িয়ে কেটে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন।

২.    কড়াইয়ে সরিষা তেল দিয়ে কাঁচা লঙ্কা ও কালিজিরার ফোড়ন দিন। এবার ঝিঙেগুলো দিয়ে ঢেকে চুলার আচ বাড়িয়ে হলুদ গুঁড়া, মরিচ গুঁড়া দিয়ে ফের ১০ মিনিট ঢেকে রাখুন।

৩. এরপর ঢাকনা খুলে টমেটো পেস্ট দিন। পানি পুরো শুকিয়ে এলে লবণ, মিষ্টি ও নারকেল দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে কিছুক্ষণ মাঝারি আঁচে রেখে দিন।

৪.    পানি শুকিয়ে ঝিঙে ভালো করে মজে মাখা মাখা হলে চুলা বন্ধ করে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

 

দই মাছ

উপকরণ

বড় কাতল মাছ আট টুকরা, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, তেজপাতা চারটি, ছোট এলাচ ছয়টি, দারচিনি, লবঙ্গ ছয়টি, আদা বাটা এক চা চামচ, রসুন বাটা এক চামচ, মরিচ গুঁড়া দুই চা চামচ, টক দই আধা কাপ, সাদা তেল এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ, চিনি এক চামচ, ঘি দুই চা চামচ, কাঁচা মরিচ ছয়টি, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে তৈরি করবেন

১.    মাছ হলুদ, লবণ ও মরিচ মাখিয়ে ভেজে নিন।

২.    কড়াইয়ে তেল ও ঘি গরম করে এলাচ, দারচিনি, তেজপাতা ও লবঙ্গ দিন। সুগন্ধ বের হলে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে ভেজে নিন।

৩. পেঁয়াজ নরম হয়ে এলে তাতে আদা বাটা, রসুন বাটা ও মরিচ গুঁড়া দিয়ে ভালো করে নাড়ুন। তেল উঠে এলে ফেটানো টক দই ও লবণ দিন।

৪.    মসলা ভালো করে মিশিয়ে নিয়ে তাতে দুই কাপ গরম পানি দিন। পানি ফুটে উঠলে  ভেজে রাখা মাছগুলো দিয়ে আঁচ কমিয়ে ঢেকে দিন। মাছ সিদ্ধ হয়ে ঝোল ঘন হলে চিনি, ঘি ও কাঁচা মরিচ দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।



সাতদিনের সেরা