kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

সবজি-ফলে শরীর ঠাণ্ডা

গরমে মৌসুমি ফল খাওয়া ভালো। কিছু রসালো ফল ও সবজি আছে, যা শরীর শীতল রাখতে সাহায্য করে। পরামর্শ দিয়েছেন ডায়েট কাউন্সেলিং সেন্টারের প্রধান পুষ্টিবিদ সৈয়দা শারমিন আক্তার। লিখেছেন এ এস এম সাদ

২১ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সবজি-ফলে শরীর ঠাণ্ডা

শসা

তন্তুজাতীয় এই ফল খেলে গরমে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা থেকে দূরে থাকা যায়। শসা মূত্রবর্ধক, তাই এটি শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে আনতে সহায়তা করে। প্রচুর পরিমাণে পানি থাকে, তাই শরীরের পানির চাহিদা অনেকটাই পূরণ হয় এই ফলে। গরমে এই ফল খেলে শরীর ঠাণ্ডা থাকে।

বাঙ্গি

প্রতি ১০০ গ্রাম বাঙ্গিতে ৩৪ কিলোক্যালরি খাদ্যশক্তি পাওয়া যায়। বাঙ্গি একেবারে চর্বি বা কোলেস্টেরলমুক্ত। বাঙ্গিতে আছে ০.৯ গ্রাম খাদ্য আঁশ। বাঙ্গির রস এই গরমে আপনাকে দেবে শরীরের সঠিক তাপমাত্রা ও সুস্থ সুন্দর ত্বক। ফলে আপনি থাকবেন ২৪ ঘণ্টাই স্বাভাবিক ও ঝরঝরে।

ডাবের পানি

ডাবের পানি গ্রীষ্মের সেরা পানীয়। প্রয়োজনীয় ভিটামিন, খনিজ এবং অন্যান্য পুষ্টি উপাদানে পরিপূর্ণ। তাই শরীর থেকে ঘাম বেরিয়ে গেলেও এটি তার জায়গা পূরণ করে দেয়। গরম আবহাওয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করতে সহায়তা করে।

 

তরমুজ

ঠাণ্ডা ঠাণ্ডা তরমুজ গরমে আপনাকে দেবে প্রশান্তি। তাই এই সময় আপনার প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় কয়েক টুকরা তরমুজ রাখতে পারেন। তরমুজের মধ্যে ৯০ শতাংশই পানি থাকায় তা আপনার শরীরকে আরাম দেবে। ভিটামিন ‘এ’ ও ‘সি’ সমৃদ্ধ এই ফলে আরো আছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট লাইকোপেন, যা ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।

আখের রস

প্রচণ্ড গরমে এক গ্লাস ঠাণ্ডা আখের রস পান প্রাণটা সতেজ করে তোলে। আখের রস হার্টের অসুখ দূরে রাখে, কোলেস্টেরল কমায় এবং হার্ট সুস্থ রাখে। এ ছাড়া নিয়মিত আখের রস খেলে ব্রেস্ট ক্যান্সারের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

পেঁপে

গরমে শরীর ঠাণ্ডা রাখতে পেঁপে অত্যন্ত উপকারী। পেঁপেতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে খনিজ ও ভিটামিন। কাঁচা পেঁপে সিদ্ধ করে খেতে পারেন। অথবা পাকা পেঁপে খেতে পারেন, যাতে উপকার বেশি হবে। তবে যেভাবেই খান না কেন, পেঁপে খেলে আপনি এই গরমে ভালো থাকবেন এটি নিশ্চিত।

লাউ

লাউ ঠাণ্ডা সবজিগুলোর মধ্যে একটি। লাউয়ের মধ্যে রয়েছে ৯৬ শতাংশ পানি। পানির পরিমাণ বেশি থাকে বলে এটি শরীর ঠাণ্ডা রাখে। এতে আছে সোডিয়াম ও পটাসিয়াম, যা হজমশক্তি বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে।

সবুজ শাক-সবজি

গরম হোক কী শীত, বছরজুড়ে সবুজ শাক-সবজি খাওয়া আপনাকে অনেক সুবিধা দেয়। এগুলো আপনার প্রতিদিনের ডায়েটে যুক্ত করা উপকারী। কারণ এগুলোতে প্রচুর পরিমাণে পানি থাকে। মনে রাখবেন, এই সবজিগুলো অতিরিক্ত রান্না করলে পানির পরিমাণ কমে সবজির পুষ্টিগুণ হারিয়ে যায়। তাই কম রান্না করে সবজি খান।

পুদিনা পাতা

গরমে শরীর ঠাণ্ডা রাখতে পুদিনা পাতার জুড়ি নেই। প্রতিদিন এক গ্লাস পুদিনা পাতার রস পান করুন। এটি আপনার শরীর ভেতর থেকে ঠাণ্ডা করে দেবে।

দই

দই শরীর শীতল করে। দইয়ের মধ্যে ফল দিতে পারেন বা এটি আপনার খাবারের সঙ্গে মিশিয়েও খেতে পারেন। দই খাওয়ার আরেকটি বিকল্প হলো এতে মৌসুমি ফল দিয়ে সুস্বাদু স্মুদি তৈরি করে খাওয়া। খই কিংবা মুড়ি মিশিয়েও দই খেতে পারেন। এই গরমে শরীর শীতল থাকবে।