kalerkantho

মঙ্গলবার । ১০ কার্তিক ১৪২৮। ২৬ অক্টোবর ২০২১। ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

জোরপূর্বক হলেও স্ত্রীর সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক ধর্ষণ নয় : আদালত

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ আগস্ট, ২০২১ ২০:৪৭ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



জোরপূর্বক হলেও স্ত্রীর সঙ্গে দৈহিক সম্পর্ক ধর্ষণ নয় : আদালত

বৈধ স্ত্রীর বয়স যদি ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে হয় তাহলে তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক জোরপূর্বক হলেও তা ধর্ষণ হিসেবে গণ্য হবে না বলে রায় দিয়েছেন ভারতের ছত্তিশগড় হাইকোর্টের বিচারক এন কে চন্দ্রবংশী। গতকাল বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এ সংক্রান্ত এক মামলার শুনানিতে বিচারক চন্দ্রবংশী উল্লেখ করেন, ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে কোনো স্ত্রীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে শারীরিক সম্পর্ক হলে তা ধর্ষণ হিসেবে গণ্য হবে না। আইনগতভাবে স্ত্রীর সঙ্গে বিয়ের পর জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক শাস্তিযোগ্য নয়।

২০১৭ সালে এক স্ত্রী তার স্বামীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ এবং যৌতুকের মামলা দায়ের করেন। করেন ‘অপ্রাকৃতিক যৌন সম্পর্কেরও’ অভিযোগ। যদিও ভারতে বৈবাহিক ধর্ষণ কোনো অপরাধ নয়। তবে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক অপরাধ, যদি স্ত্রীর বয়স ১৮ বছরের নিচে হয়। আদালত শুনানি শেষে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে বৈবাহিক ধর্ষণের মামলা থেকে অব্যাহতি দেন। তবে তার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারা ( আইপিসি ৩৭৭) অনুযায়ী ‘অপ্রাকৃতিক যৌনতা’র অভিযোগের বিচার চলতে পারে বলে জানান।

অবশ্য গত মাসে কেরালার হাইকোর্টের এক রায়ে বলা হয়, নারী ইচ্ছার বিরুদ্ধে দৈহিক সম্পর্ককে ‘বৈবাহিক ধর্ষণ’ বলা যেতে পারে।

সূত্র: এনডিটিভি।



সাতদিনের সেরা