kalerkantho

রবিবার । ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৩১  মে ২০২০। ৭ শাওয়াল ১৪৪১

ঈদের নামাজের জন্য গির্জার দরজা খুলে দিল জার্মানি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ মে, ২০২০ ১৮:০৪ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঈদের নামাজের জন্য গির্জার দরজা খুলে দিল জার্মানি

করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে মুসলিমরা যাতে ঈদের সময় নামাজ আদায় করতে পারেন সে জন্য জার্মানির একটি গির্জা তাদের দরজা খুলে দিয়েছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কারণে স্থানীয় মসজিদে মুসলিমদের স্থান সংকুলান হচ্ছে না।

জার্মানিতে প্রার্থনা স্থলগুলো ৪ মে থেকে খুলে দেয়া হয়েছে, কিন্তু বলা হয়েছে যারা প্রার্থনা করবেন তাদের দেড় মিটার (৫ ফুট) দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ফলে বার্লিনের নিউকোলন এলাকার দার আস-সালাম মসজিদ শুক্রবার মাত্র হাতে গোণা কয়েকজন নামাজিকে জায়গা দিতে পেরেছিল।

সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এসেছে ক্রুজবার্গ-এর মার্থা লুথেরান চার্চ। তারা বলেছে, মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ তাদের গির্জায় জুমার ও ঈদের নামাজ আদায় করতে পারবেন।

এবছর পৃথিবীর আর সব দেশের মত বার্লিনেও করোনা সংকটের কারণে সবরকম ধর্মীয় অনুষ্ঠান নিয়ম অনুযায়ী ও প্রথা মেনে পালন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

স্থানীয় মুসলিমরা বলেছেন তারা খুব খুশি কারণ তারা নামাজে যোগ দিতে পেরেছেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে স্থানীয় ওই মসজিদের ইমাম বলেন, 'এট দারুণ একটা ব্যবস্থা এবং এই সঙ্কটের মাঝে রোজার সময় আমাদের খুবই খুশি করেছে। এই মহামারি আমাদের সম্প্রদায়ের মধ্যে ঐক্য তৈরি করেছে, সঙ্কটই মানুষকে কাছে নিয়ে আসে।'

গির্জায় নামাজ আদায়ের বিষয়ে একজন মুসল্লি সামির হামদুন বলেন, 'এখানে নামাজ আদায় করতে অদ্ভুত লাগছিল, ভেতরে বাজনা আছে, ছবি আছে। ইসলামের প্রার্থনাস্থলে তো এসব থাকার কথা নয়। কিন্তু এসব অগ্রাহ্য করতে হবে, ভাবতে হবে আমরা ঈশ্বরেরই একটা আলয়ে বসে আছি।'

ভেতরের বাহ্যিক বিষয়গুলো ভুলে যেতে চেষ্টা করেছেন নামাজীরা। এমনকী ওই গির্জার যাজকও নামাজে অংশ নিয়েছেন। মনিকা ম্যাথিয়াস নামের ওই যাজক বলেন, 'আমি জার্মান ভাষায় বক্তৃতা করেছি। আর নামাজের সময় আমি শুধু একটা কথাই বলেছি- হ্যাঁ, হ্যাঁ, হ্যাঁ। কারণ আমরাও তো একইভাবে উদ্বিগ্ন এবং আমরা আপনাদের কাছ থেকেও শিখতে চাই।'

সূত্র- বিবিসি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা