kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৩০ নভেম্বর ২০২১। ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

টেকসই খাদ্য ব্যবস্থা নিশ্চিতে ওয়েবিনার

অনলাইন ডেস্ক   

২৭ অক্টোবর, ২০২১ ১৩:৫২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



টেকসই খাদ্য ব্যবস্থা নিশ্চিতে ওয়েবিনার

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অর্থায়নে জাতিসঙ্ঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ ইউনিটের সহযোগিতায় এক ওয়েবিনারের আয়োজন করা হয়। টেকসই খাদ্য ব্যবস্থা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সমন্বিত আলোচনা ও একসঙ্গে কাজ করার অভিপ্রায় ও অঙ্গীকারের উদ্দেশ্যে গত ২৬ অক্টোবর এ ওয়েবিনারের আয়োজন করা হয়। 

ওয়েবিনারের মূল উদ্দেশ্য ছিল- খাদ্যকে এসডিজির জন্য শক্তিশালী হাতিয়ার হিসেবে তুলে ধরার লক্ষ্যে সব স্তরের জনগণের মতামত ও ভাবনাকে তুলে ধরা। ওয়েবিনারে সভাপতিত্ব করেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মজিবর রহমান এবং সহ-সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাদ্য মন্ত্রণালয়ের খাদ্য পরিকল্পনা ও মনিটরিং ইউনিটের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. শহীদুজ্জামান ফারুকী।

ওয়েবিনারের ‘ইউএন ফুড সিস্টেমস সামিট- দি অ্যাকশন অ্যাজেন্ডা এবং বিজ্ঞানের ভূমিকা’ বিষয়ে মূল বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন বন ইউনিভার্সিটির সেন্টার ফর ডেভেলপমেন্ট রিসার্চের পরিচালক এবং ইউএনএফএসএস সায়েন্টিফিক গ্রুপের চেয়ার ড. জোয়াকিম ভন ব্রাউন । ব্রাউন তার বক্তব্যে, দেশের জন্য তৈরি জাতীয় পর্যায়ের প্রতিশ্রুতি এবং জোট বাস্তবায়নের জন্য বিজ্ঞান এবং নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের কর্মকর্তারা, জোট ও গোষ্ঠীর সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন। তিনি জলবায়ু সহনশীল উন্নয়ন পথের জন্য জোটের নেতৃত্ব দেওয়ার প্রস্তাব করায় বাংলাদেশের প্রশংসা করেন এবং একটি অংশগ্রহণমূলক পদ্ধতিতে বাংলাদেশের জন্য একটি জলবায়ু সহনশীল খাদ্য ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার ওপর জোর দেন।

ব্রাউন খাদ্য ব্যবস্থার রূপান্তরের জন্য অর্থের গুরুত্ব তুলে ধরেন এবং অগ্রাধিকার খাতগুলোর ওপর জোর দেওয়ার জন্য এফএও, ডাব্লিউএফপি এবং ইন্টারন্যাশনাল ফান্ড ফর অ্যাগ্রিকালচারাল ডেভেলপমেন্টের (ইফাদ) মতো প্রতিষ্ঠানগুলোর ভূমিকার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। সেই সঙ্গে কৃষি উৎপাদনশীলতার জন্য কৃষিতে যান্ত্রিকীকরণ, বৈচিত্র্যময় চাষাবাদ, জ্ঞান নিবিড় শস্যপদ্ধতি, সম্প্রসারণ ও প্রশিক্ষণ এবং কৃষক, সুশীলসমাজ ইত্যাদিসহ স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে অব্যাহত সংলাপের মতো বিষয়গুলোর প্রয়োজনীয়তাও সমানভাবে তুলে ধরেন।

ওয়েবিনারে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. রুহুল আমিন তালুকদার এবং ড. সালমা মমতাজ। তারা এসডিজির প্রতি তাদের প্রতিশ্রুতি পুনর্নিশ্চিত করেন এবং এসডিজি লক্ষ্য অর্জনের জন্য সবচেয়ে শক্তিশালী হিসেবে খাদ্যে বিনিয়োগ করার প্রয়োজনীতার কথা ব্যক্ত করেন। এ ছাড়া অংশগ্রহণ করেন- বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী মিয়া সাপ্পো, বাংলাদেশে এফও-এর প্রতিনিধি রবার্ট সিম্পসন। বিশিষ্ট অতিথি এবং আলোচনাকারীদের মধ্যে অংশীদার সংস্থা- গ্লোবাল এলায়েন্স ফর ইন্টিগ্রেটেড নিউট্রিশন (গেইন) ও অন্যান্য সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিরা যোগদান করেন এ ওয়েবিনারে।



সাতদিনের সেরা