kalerkantho

এই মুহূর্তে আপনি কি ক্ষুব্ধ? বিষণ্ন? আসক্ত? স্ট্রেসড? এই নিন 5 টু 1 ফর্মুলা (ভিডিও)

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১৮:২২ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



রাগ, বিষণ্নতা, আসক্তি, কাজের অতিরিক্ত চাপ অধুনিক জীবনের অংশ হয়ে গেছে। অনেকে ওষুধ খেয়ে সমস্যার সাময়িক সমাধান পাচ্ছেন। তবে ওষুধ ছাড়াও একটি বিশেষ কৌশলে হাতের নাগালে তা দিয়েই এবং নিজের ইন্দ্রিয়গুলোকে কাজে লাগিয়ে খুব অল্প সময়ে আপনি নিজেকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে পারেন। এই কৌশলকে বলা হচ্ছে ফাইভ টু ওয়ান ফর্মুল। আরেক অর্থে ‘৫-৪-৩-২-১’ মডেল। এ মডেলে নাক, কান, চোখ, জিহ্বা, ত্বক- এ পাঁচটি ইন্দ্রিয় ব্যবহার করতে হয়।

যখনই দেখবেন আপনার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারছেন না তখনি আশেপাশে তাকান। দৃষ্টিসীমার মধ্যে আছে এমন পাঁচটি জিনিস সনাক্ত করুন। মডেলের প্রথম ধাপ তথা চোখের কাজ শেষ। 

দ্বিতীয় ধাপে কাজে লাগাতে হবে আপনার শ্রবণ ইন্দ্রিয়কে। এ ধাপে চারটি জিনিস সনাক্ত করুন-যা আপনি শোনতে পারবেন। এরপরই চলে যেতে হবে পরের ধাপে।

তৃতীয় ধাপে এসে কাজে লাগাতে হবে আপনার ত্বককে। এ ধাপে আরো তিনটি জিনিস সনাক্ত করতে হবে-যা আপনি অনুভব করতে পারেন। 

চতুর্থ ধাপে এসে কাজে লাগান নাককে। এ ধাপে আরো দু’টি জিনিস সনাক্ত করুন-যার গন্ধ নিতে পারেন। গন্ধ নিতে পারেন এমন যেকোনো দু’টি জিনিস সনাক্ত করার পরই চলে যাবেন পরের ধাপে।

পঞ্চম ধাপে এসে আপনি কাজে লাগাবেন জিহ্বাকে। এই ধাপে আরো একটি জিনিস সনাক্ত করুন যার স্বাদ নিতে পারেন। এ কাজগুলো আপনাকে অতি দ্রুত করতে হবে। সব ধাপ শেষ করার পরই মিলবে মুক্তি। 

ক্লিনিকাল সাইকোলজিস্ট এবং ‘কীভাবে নিজের হতে চান’ বইয়ের লেখক অ্যালেন হেন্ডরিকেন জানান, আমাদের ইন্দ্রিয়ের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করতে এবং চিন্তার ঘূর্ণনকে বাধা দেয় ওই আইটেমগুলো। এর ফলে আপনি অতি সহজে রেগে যাবেন না বা হতাশা বা কোনো কিছুর প্রতি আসক্ত হবেন না। 

যুক্তরাষ্ট্রের মেয়ো ক্লিনিক হেলথ সিস্টেমও ওই মডেলটিকে অনুসরণ করতে বলে। রাগের অনুভূতি কামানো জন্য ওই মডেলটি অনুশীলনের চেষ্টা করার পরামর্শ দেয়। তারা জানান, বর্তমানে আপনার মনকে আপনার আশেপাশে স্থানান্তর করতে পারে ওই মডেলটি। সেই সঙ্গে রাগ বোধ করার কারণ থেকে দূরে রাখতে পারে। এই মডেলটি আপনার অস্বাস্থ্যকর চিন্তাগুলোকে দূরে সারিয়ে রাখে।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের হেল্পগাইড জানায়, এই মডেলটি অনুসরণ করে আপনি নানা উপকার পাবেন। এটি অনুসরণ করলে ইন্দ্রিয় সচেতন থাকবে। সেই সঙ্গে হঠাৎ করেই রাগ ওঠার অভ্যাসকে দূরে সারিয়ে দেবে। এটি আপনার হতাশা, কোনো কিছুর প্রতি আসক্তি, নিম্ন রক্তচাপ এবং চাপ থেকে মুক্তি পেতে সহায়তা করবে।

তাই আপনার রাগ যখন আবারো নতুন করে নতুন মাত্রায় ব্যাপকভাবে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে কাজে লাগাতে পারেন এই মডেলটি। এটি কাজে লাগিয়ে এড়িয়ে চলুন রাগকে। মাথা ঠান্ডা রেখে সব কাজ করুন শান্তিতে। 

সূত্র: ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা