kalerkantho

সোমবার  । ১২ আশ্বিন ১৪২৮। ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৯ সফর ১৪৪৩

নোয়াখালীতে ১৪৪ ধারা জারি

নোয়াখালী প্রতিনিধি   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২১:২৯ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নোয়াখালীতে ১৪৪ ধারা জারি

নোয়াখালীর মাইজদীতে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি নিয়ে সংগঠনের তিন গ্রুপের সমাবেশ ডাকাকে কেন্দ্র করে নোয়াখালী জেলা শহরে ১৪৪ ধারা জারি করেছে জেলা প্রশাসন। রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ১১৪ ধারা জারি করার বিষয়ে নিশ্চিত করেন নোয়াখালী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান।

এদিকে, বিকেলে দুপক্ষের বিরোধের জের ধরে জেলা শহরে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ রাবার বুলেট ছোঁড়ে।

জেলা প্রশাসক জানান, ১৪৪ ধারা চলার সময় মাইজদী শহর ও আশপাশ (মাইজদী, দত্তেরহাট, সোনাপুর) এলাকায় মধ্যে ব্যক্তি, সংগঠন, রাজনৈতিক দল, গণজমায়েত, সভা, সমাবেশ, মিছিল, র‌্যালি, শোভাযাত্রা, যেকোনো ধরনের অনুষ্ঠান এবং রাজনৈতিক প্রচার নিষিদ্ধ করা হয়েছে। একই সব এলাকায় চারজনের বেশি মানুষ জমায়েত হতে পারবে না।

রবিবার বিকেল সোমবারের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচিকে ঘিরে মাইজদী শহরের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেয় তিন গ্রুপের নেতাকর্মীরা। জেলা শহরের বিশ্বনাথ মোড় দিয়ে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন সমর্থকরা  মিছিণ নিয়ে শহরে আসার সময়ে সেখানে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। এ সময় সংসদ সদস্য একরামের সমর্থকরা ধাওয়া দেয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৯ রাইন্ড রাবার বুলেট ছোঁড়ে।

আপরদিকে, বিকেল সাড়ে ৫টায় মেয়র সোহেলের সমর্থকরা শহরের দিকে মিছিল নিয়ে আসার সময়ে মাইজদী পুরানো বাসস্টান্ড মোড়ে সংসদ সদস্য সমর্থকরা বাঁধা দেয়। এ সময় দুপক্ষ ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়।

গত কিছু দিন থেকে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীদের মধ্যে বিভক্তি দেখা দেয়। এতে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র শহীদ উল্যাহ খান সোহেল ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শিহাব উদ্দিন শাহীনের অনুসারীরা পৃথক ভাবে নিজেদের কর্মসূচি পালন করে আসছে। এই তিন গ্রুপের নেতারা সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) পাল্টাপাল্টি সমাবেশের ডাক দেয়।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহেদ উদ্দিন বলেন, দুপক্ষই বৃষ্টির মতো ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে, আমরা তাদের নিয়ন্ত্রণে আনি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৯ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়া হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত আছে।



সাতদিনের সেরা