kalerkantho

সোমবার । ১৫ আগস্ট ২০২২ । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১৬ মহররম ১৪৪৪

জুয়েলারিশিল্পে নতুন দিক উন্মোচনে আমরা বদ্ধপরিকর

প্রমোদ সাওয়ান্ত মুখ্যমন্ত্রী, গোয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৫ জুলাই, ২০২২ ২৩:২০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জুয়েলারিশিল্পে নতুন দিক উন্মোচনে আমরা বদ্ধপরিকর

গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত

ভারতের অঙ্গরাজ্য গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত বলেছেন, ‘জুয়েলারিশিল্পে নতুন দিক উন্মোচনের জন্য আমাদের পর্যাপ্ত সম্পদ রয়েছে। ভবিষ্যতে দুই দেশের স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের মধ্যে উন্নতির জোয়ার আসবে। ’ সম্প্রতি গোয়ার পাঁচতারা হোটেল দ্য লীলায় আয়োজিত হয় ‘সোনার বাংলা’ শিরোনামে বর্ণাঢ্য জুয়েলারি এক্সপো। ভারতীয় সংস্থা কেএনসি সার্ভিসেস আয়োজিত জুয়েলারি এক্সপোতে অংশ নেয় বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)।

বিজ্ঞাপন

ফিতা কেটে প্রদীপ প্রজ্বালনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন বাজুস সভাপতি সায়েম সোবহান আনভীর। দুই দেশের জুয়েলারি ব্যবসায়ীদের মধ্যকার এ সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য দেন প্রমোদ সাওয়ান্ত। এ সময় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত বলেন, ‘‘এটি এক অনন্য সম্মানের বিষয় যে ‘সোনার বাংলা’ সম্মেলনের প্রথম আসরে আপনারা আমার রাজ্য ‘গোয়াকে’ বেছে নিয়েছেন। ’’ বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) সভাপতি সায়েম সোবহান আনভীরের সঙ্গে অত্যন্ত লাভজনক ব্যাবসায়িক সম্ভাবনা এবং নতুন উদ্যোগ নিয়ে একসঙ্গে কাজ করার জন্য আলোচনা চালিয়ে যেতে চান বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী।

প্রমোদ সাওয়ান্ত বলেন, ‘গোয়া প্রধানত পর্যটনশিল্পে উন্নতি লাভ করলেও জুয়েলারিশিল্পে নতুন দিক উন্মোচনে আমরা বদ্ধপরিকর এবং আমাদের পর্যাপ্ত সম্পদ রয়েছে। ’ স্বর্ণ ব্যবসায় দুই দেশের এই মিলনমেলাকে ইতিবাচক কর্মকাণ্ড হিসেবে দেখছেন বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘সোনার বাংলা, কেএনসি সার্ভিসেস এবং বাজুসের পাশে আছি। ভারত ও বাংলাদেশের ব্যাবসায়িক সম্পর্ক দীর্ঘজীবী হোক। ’ সোনার বাংলা শীর্ষক সম্মেলনটিকে ফলপ্রসূ করতে আয়োজকদের প্রতিও শুভ কামনা জানান তিনি।  

বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন অর্থাৎ বাজুসের পক্ষ থেকে ভারতের গোয়ায় এ ধরনের অনুষ্ঠান এবারই প্রথম। প্রদর্শনীতে ভারতের মোট ৩৫টি স্বনামধন্য জুয়েলারি প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। ফলে ভারত ও বাংলাদেশ অর্থাৎ আন্তর্জাতিক নিরিখে এ অনুষ্ঠানের যথেষ্ট তাৎপর্য রয়েছে, যার ফলে ভবিষ্যতে দুই দেশের স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের মধ্যে উন্নতির জোয়ার আসবে বলে মনে করেন মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত।

বক্তব্যের শুরুতে তিনি এ ধরনের একটি ব্যতিক্রমী আয়োজনের জন্য আয়োজকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘এমন একটি আয়োজনে ভারতের অঙ্গরাজ্য গোয়ায় আপনাদের অতিথি হিসেবে পেয়ে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। সোনার বাংলা সম্মেলনকে ফলপ্রসূ করতে আপনাদের প্রতি রইল আমার শুভ কামনা। ’ দুই দেশের স্বর্ণশিল্পকে একযোগে এগিয়ে নিতে উদ্যোগ গ্রহণ করায় বাজুস সভাপতি সায়েম সোবহান আনভীরকে ধন্যবাদ জানান গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী।



সাতদিনের সেরা