kalerkantho

বুধবার । ৩১ আষাঢ় ১৪২৭। ১৫ জুলাই ২০২০। ২৩ জিলকদ ১৪৪১

হিলিতে হঠাৎ বেড়েছে আমদানীকৃত পাথরের দাম

হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি   

১ জুলাই, ২০২০ ০৭:৫৮ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হিলিতে হঠাৎ বেড়েছে আমদানীকৃত পাথরের দাম

দীর্ঘ আড়াই মাস বন্ধের পর হিলি স্থলবন্দর দিয়ে শুরু হয়েছে ভারত থেকে পাথর আমদানি। আমদানি স্বাভাবিক হলেও হঠাৎ করে বেড়েছে পাথরের দাম, প্রতি টনে বেড়েছে ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা। ভারতীয় ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে দাম বাড়িছেন- বলছেন আমদানীকারকরা।

করোনাভাইরাসের কারণে পাথর আমদানি বন্ধ থাকলেও গত ৮ জুন আমদানি-রপ্তানি শুরু হলেও পাথর আমদানি শুরু হয় ১৫ জুন থেকে। তবে এই বন্দর দিয়ে পাথর আমদানি কমে যাওয়ার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ভারতের পাথর ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট তৈরি করে প্রতি টন পাথরে দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন ৮০০ থেকে ৯০০ টাকা। এখন প্রতি টন পাথর বিক্রি হচ্ছে তিন হাজার ৮০০ থেকে তিন হাজার ৯০০ টাকা দরে। এদিকে পাথরের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় বেচাকেনা করতে সমস্যা হচ্ছে আমদানিকারকদের। নতুন করে আমদানি করতে না পারায় বিপাকে পড়েছেন বেশ কিছু আমদানিকারক।

স্থানীয় কয়েকজন পাথর আমদানিকারক জানান, লকডাউন ঘোষণার আগে আমরা ভারতে পাথরের অনেক এলসি করেছিলাম। লকডাউনের কারণে বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ থাকায় সেগুলো আনতে পারিনি। তবে লকডাউনের পর আবারও হিলি স্থলবন্দরে আমদানি-রপ্তানি শুরু হলেও কিছু আমদানিকারক ও ভারতীয় ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট করে পাথর আমদানি স্বাভাবিক থাকার পরও দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। এতে আমাদের ব্যবসা করতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।

তাঁরা আরো জানান, ভারত থেকে পাথর আমদানি করতে পারছেন গুটিকয়েক আমদানিকারক। সিন্ডিকেট করায় ব্যবসা চলে যাচ্ছে তাঁদের হাতে। আর সুযোগ বুঝে তাঁরা দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন। বন্ধের আগে যে পাথরগুলো আমরা দুই হাজার ৯০০ থেকে তিন হাজার টাকা দরে বিক্রি করলেও এখন তাঁদের সিন্ডিকেটের কারণে সেই পাথর বিক্রি হচ্ছে তিন হাজার ৮০০ থেকে তিন হাজার ৯০০ টাকা প্রতি টনে।

এদিকে কথা হয় বগুড়া থেকে পাথর কিনতে আসা শফি মাহমুদের সাথে। তিনি বলেন, হঠাৎ করে পাথরের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় আমরা বিপাকে পড়েছি। ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে এভাবে দাম বাড়ালে আমাদের পথে বসতে হবে।

হিলি কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, ১৫ জুন থেকে ১২ কর্মদিবসে ২৮ হাজার ৬২ মেট্রিক টন পাথর আমদানি হয়েছে এই বন্দর দিয়ে, যা থেকে সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছে প্রায় দুই কোটি এক লাখ টাকা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা