kalerkantho


চাঁদাবাজি মামলা দিয়ে হয়রানি

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



লক্ষ্মীপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে পত্রিকার হকার, দুই ভাই মাহবুবুর রহমান ও লুৎফুর রহমানের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা দিয়ে হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে এক আইনজীবীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় লুৎফুর গতকাল মঙ্গলবার জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মাহবুবুর ও লুৎফুরের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে জেলা আদালতের আইনজীবী খোরশেদ আলম ও তাঁর পরিবারের সঙ্গে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। এর জেরে লক্ষ্মীপুর আদালতে একটি মামলা হয়। মামলাটি উচ্চ আদালতে স্থগিত করে রেখেছেন খোরশেদ। এদিকে গত দেড় বছর ধরে তিনি জোর করে হকারদের ১৫ শতাংশ জমি দখল করে আছেন। সেখান থেকে তিনি দুই লাখ টাকার বিভিন্ন প্রজাতির গাছও কেটে নিয়েছেন। জমিটি ওই আইনজীবী রেজিস্ট্রি করার জন্য পাঁয়তারা করছেন বলে হকারদের অভিযোগ। সর্বশেষ ২৮ আগস্ট দুই ভাইয়ের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরো চার-পাঁচজনের বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চাঁদাবাজি মামলা করেন খোরশেদ। মামলাটি পরদিন চন্দ্রগঞ্জ থানায় লিপিবদ্ধ করা হয়। হকার লুৎফুর বলেন, ‘আমরা শুধু ঈদের ছুটির সময় গ্রামের বাড়িতে আসি। এ সুযোগে খোরশেদ জোর করে আমাদের জমি দখল করে নিয়েছে। এখন মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের হয়রানি করছে। আমি হয়রানি রোধ ও সুষ্ঠু তদন্তের দাবি করছি।’ আইজীবী খোরশেদ বলেন, ‘আমি যে মামলা করেছি এটি সত্য। তাদের বিরুদ্ধে কোনো মিথ্যা মামলা করা হয়নি।’



মন্তব্য