kalerkantho

রবিবার । ১ কার্তিক ১৪২৮। ১৭ অক্টোবর ২০২১। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

গেরিলা

[পঞ্চম শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বইয়ে গেরিলার উল্লেখ আছে]

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গেরিলা

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময়কার কয়েকজন গেরিলা

চুপিসারে লুকিয়ে যুদ্ধ করাই হলো গেরিলা যুদ্ধ। আর যারা এমন যুদ্ধ করে তারাই হলো গেরিলা। গেরিলা শব্দটি স্প্যানিশ ‘গুয়েরিলেরোস’ শব্দ থেকে এসেছে। এর মানে ‘খুদে যুদ্ধ’। গেরিলা যুদ্ধের ইতিহাস ঘাঁটলে দেখা যাবে দুর্বল পক্ষটিই তার শক্রর বিরুদ্ধে গেরিলা যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়ে থাকে। অর্থাৎ অপেক্ষাকৃত শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে গেরিলা যুদ্ধই সবচেয়ে বড় হাতিয়ার।

গেরিলা যুদ্ধের প্রথম লিখিত নথি পাওয়া যায় ৬০০ খ্রিস্টপূর্বের চীনা সেনানায়ক সো সু আইয়ের ‘দ্য আর্ট অব ওয়ার’ বইটিতে। এতে সম্রাট হুয়াংয়ের বিরুদ্ধে মিয়াও সম্প্রদায়ের লোকদের গেরিলা যুদ্ধের বর্ণনা আছে। তা ছাড়া ইউরোপের গথ, ভেন্ডালস ইত্যাদি সম্প্রদায়ের লোকজন পারস্য সাম্রাজ্য, রোমান সাম্রাজ্য ও আলেকজান্ডারের বিরুদ্ধে গেরিলা যুদ্ধ করে। রোমান সেনাপতি কুয়েন্টাস ফাবিয়াস ম্যাক্সিমাসকে বলা হয়ে থাকে গেরিলা যুদ্ধের জনক। যদিও তিনি জন্মেছিলেন সো সুর অনেক পরে এবং ইতিহাসে তাঁর আগেও গেরিলা যুদ্ধের কথা পাওয়া যায়। তবে কুইন্টাস অনেক আধুনিক গেরিলা যুদ্ধের কৌশল আবিষ্কার করেন। এর মাধ্যমে তিনি হ্যানিবলের মতো শক্তিশালী সেনাপতিকেও ঘোল খাইয়েছিলেন।

১৯৭১ সালে আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে এই গেরিলাদের অবদান ছিল অনেক বেশি। পাকিস্তানি সেনাবাহিনী যখন মূল সড়ক, জাহাজ ও শহরে আস্তানা গাড়ত, তখন গেরিলারা অস্ত্র আর গ্রেনেড হাতে লুকিয়ে থাকত নৌকার ছইয়ের ভেতর। রাতের আঁধারে মাইন নিয়ে সাঁতরে গিয়ে সেটা লাগিয়ে দিয়ে আসত পাকিস্তানিদের জাহাজে। অতর্কিত হামলা চালিয়ে উড়িয়ে দিত ব্রিজ, রেলপথ। দেখা গেল মাত্র চার-পাঁচজন গেরিলা যোদ্ধার ভয়েই তটস্থ থাকত গোটা একটা সেনাবহর।

গেরিলা আক্রমণ অত্যন্ত দুরূহ ও সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। অনেক চিন্তা-ভাবনা করে অতর্কিত আক্রমণের প্রস্তুতি নিতে হয়। সঠিক সময়ের জন্য অপেক্ষা করতে হয়। অতর্কিত আক্রমণে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো আক্রমণ করার জন্য যথাযথ জায়গা এবং একই সঙ্গে সে স্থানে সহজেই নিজেদের লুকিয়ে রাখা। এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে ভালো কাজে লাগে গাছপালাবেষ্টিত ঘন বনজঙ্গল। এই ধরনের গেরিলা লড়াইয়ের উত্কৃষ্ট উদাহরণ ভিয়েতনাম যুদ্ধ। তবে ইরাকে মার্কিন দখলের পর সেখানে আমরা আরবান গেরিলা লড়াই দেখেছি। আবাসিক ভবনগুলোকে আশ্রয় করে সেখানে মার্কিন বাহিনীকে আক্রমণ করা হয়েছে।

রিদওয়ান আক্রাম



সাতদিনের সেরা