kalerkantho

বুধবার । ২৪ আষাঢ় ১৪২৭। ৮ জুলাই ২০২০। ১৬ জিলকদ  ১৪৪১

চিকিৎসক লতা করোনায় মারা যাননি, বিশেষ মহল গুজব ছড়াচ্ছে!

লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি   

৩ জুন, ২০২০ ২২:৩১ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চিকিৎসক লতা করোনায় মারা যাননি, বিশেষ মহল গুজব ছড়াচ্ছে!

কুমিল্লা লাকসামের গাইনী বিশেষজ্ঞ লতিফা আহমেদ লতা করোনাভাইরাস আক্রান্ত হলেও বর্তমানে সুস্থ আছেন। অথচ তিনি মারা গেছেন বলে একটি মহল গুজব ছড়াচ্ছে। কুমিল্লায় সুপরিচিত এ চিকিৎসক দম্পতি অভিযোগ করেছেন, একটি কুচক্রীমহল হীনমানসিকতা নিয়ে তাদের সুনাম-সুখ্যাতি নষ্ট করতে চাচ্ছে। তারাই ষড়যন্ত্রমূলক গুজব ছড়িয়েছে।

এ ঘটনায় চিকিৎসক দম্পতি লাকসাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এবং লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জের (ওসি) কাছে অভিযোগ দাখিল করেছেন। তারা আইনী প্রতিকার চেয়েছেন।

স্থানীয় স্বাস্থ্যবিভাগ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, ডা. লতিফা আহমেদ লতা নাঙ্গলকোট উপজেলা স্বাস্থ্যবিভাগে গাইনী বিশেষজ্ঞ হিসেবে কর্মরত। তার স্বামী চক্ষু বিশেষজ্ঞ জহির উদ্দিন। ডা. লতিফা যে হাসপাতালে কর্মরত সেখানে কয়েকজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হলে তিনিও নমুনা দিয়েছিলেন। গত শনিবার (৩০ মে) তাঁর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর একটি মহল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাঁর সুনাম বিনষ্ট করতে নানারকম বিভ্রান্তি ছড়ায়। অবশেষে বুধবার (৩ জুন) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তিনি মারা গেছেন বলে চক্রটি ফেসবুকে গুজব ছড়িয়ে দেয়। যা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়।

অথচ বুধবার বিকেলে তাঁর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। পরবর্তীতে দায়িত্বশীল সূত্রের বরাতে তিনি সুস্থ ও ভালো থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করা হলে অনেকে ফেসবুক স্ট্যাটাস মুছে দেন।

এ ব্যাপারে লতিফা আহমেদ লতার স্বামী চক্ষু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক জহির উদ্দিন  বলেন, ‘এটা সম্পূর্ণ গুজব। তিনি ভালো আছেন, সুস্থ আছেন। তার করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছি। আমাদের পারিবারিক সুনাম বিনষ্ট করতে একটি স্বার্থান্বেষী মহল উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মিথ্যা গুজব ছড়াচ্ছে।’ মিথ্যা গুজবে কর্ণপাত না করতে তিনি সকলের প্রতি অনুরোধ জানান।

লাকসাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নিজাম উদ্দিন বলেন, ’বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা