kalerkantho


ঢাকায় মাইক্রোসফটের সম্মেলনে বক্তারা

ব্যবসা বাড়াতে ডিজিটাল রূপান্তরের কৌশল নিতে হবে আর্থিক খাতকে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



আর্থিক খাতে ডিজিটাল জ্ঞান ও ধারণা আদান-প্রদানের উদ্দেশ্যে সম্প্রতি ঢাকায় এক সম্মেলনের আয়োজন করে মাইক্রোসফট। গুলশানের ওয়েস্টিন হোটেলে অনুষ্ঠিত ওই সম্মেলনে বিভিন্ন আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা নতুন প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে তাঁদের ব্যবসাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাওয়ার উপকরণগুলো সম্পর্কে নিজেদের ধারণা নিয়ে অন্যদের সঙ্গে আলোচনা করেন।

সম্মেলনে ডিজিটাল রূপান্তর ও ব্যাংক খাতের উৎপাদনশীলতা নিয়ে অনুষ্ঠিত সেশনে অমনি চ্যানেল ও ডায়নামিক ৩৬৫ এবং পাওয়ার বিআই ও অ্যানালিটিকসের ওপর উপস্থাপনা ছিল। পাশাপাশি সাইবার নিরাপত্তা ও ট্রাস্টেড ক্লাউড নিয়ে আলোচনা হয়।

গ্রাহক প্যানেল আলোচনায় ডিজিটাল বিশৃঙ্খলায় টিকে থাকা এবং বর্তমান সময়ের প্রবণতাসহ এ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় স্থান পায়। সম্মেলনে ওয়ান পার্টনার, পিডাব্লিউসি ও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সাম্প্রতিক সময়ে ডিজিটাল রূপান্তর নিয়ে মাইক্রোসফটের এশিয়া জরিপ অনুযায়ী, এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের আর্থিক খাতে ব্যবসায়িক নেতাদের ৮১ শতাংশ জানিয়েছেন, ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধিতে তাঁদের ডিজিটাল ব্যবসায় রূপান্তরিত হওয়া প্রয়োজন। ৩১ শতাংশ জানিয়েছেন, এ রূপান্তর নিয়ে তাঁদের ডিজিটাল কৌশলগত পরিকল্পনা বা স্ট্র্যাটেজি রয়েছে। জরিপে জানা গেছে, এশিয়ার ব্যবসায়িক নেতারা ডিজিটাল রূপান্তরের স্ট্র্যাটেজির ক্ষেত্রে ক্লাউড কম্পিউটিংকে অত্যন্ত সময়োপযোগী ও প্রয়োজনীয় বিষয় বলে মনে করেন। তাঁরা এও মনে করেন, ডাটা ইনসাইট নতুন আয়ের উৎসের ক্ষেত্রে দিকনির্দেশক হিসেবে কাজ করবে।

এ নিয়ে মাইক্রোসফট এশিয়া প্যাসিফিকের সাউথ-ইস্ট এশিয়ার নিউ মার্কেটসের চিফ অপারেটিং অফিসার রেনা চাই বলেন, ‘আমরা চতুর্থ শিল্পবিপ্লবের খুব কাছাকাছি, বর্তমান সময়ে ব্যবসাপ্রক্রিয়া এবং ব্যবসায় গ্রাহক ও ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের সম্পর্ক বজায় রাখার ক্ষেত্রে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।’

মাইক্রোসফট বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটান ও লাওসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবির বলেন, ‘ডিজিটাল ডিসরাপশনের এ সময়ে ব্যাংক খাত প্রযুক্তির সুবিধা নিয়ে কার্যক্রমের সঠিক পরিচালনায় ও মুনাফা বৃদ্ধিতে সঠিক উপকরণ ব্যবহার করে কর্মীদের ক্ষমতায়ন করতে পারে এবং গ্রাহকদের সঙ্গে তাদের সম্পর্ককে আরো ঘনিষ্ঠ করতে পারে।


মন্তব্য